free hit counter
প্রযুক্তি

অ্যান্ড্রয়েড ১২-তে এবার যেসব ফিচার যুক্ত হচ্ছে

বিশ্বজুড়ে কোটি কোটি স্মার্ট ফোনে ব্যবহৃত অ্যান্ড্রয়েড সর্বাধিক জনপ্রিয় একটি স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেম। ফলশ্রুতিতে এই অপারেটিং সিস্টেমের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পরিবর্তনগুলোও ব্যবহারকারীদের নজর কেড়ে নেয়। চলতি মাসে গুগল বহুল প্রতীক্ষিত ভার্সন Android 12 এর বিটা ভার্সন প্রকাশ করেছে। দ্যা ভার্জ-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৮ মে (মঙ্গলবার) অনুষ্ঠিত এক ভার্চুয়াল বৈঠকে এসব ফিচার উন্মুক্ত করা হয়

পারসোনালাইজেশন:
অ্যান্ড্রয়েড-১২ অপারেটিং সিস্টেমের স্মার্টফোনগুলোকে পুরোপুরি পারসোনালাইজ করা যাবে। গুগল বলছে, বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের পিক্সেল স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা এই অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে পারবেন।

স্মুথ এক্সপেরিয়েন্স ও ফ্লুইড ইন্টারফেস :
অ্যান্ড্রয়েড-১২ অপারেটিং সিস্টেমে ব্যবহারকারীদের স্মুথ এক্সপেরিয়েন্স ও ফ্লুইড ইন্টারফেস অফারের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের টাচে আরও কুইক রেসপন্স দেওয়া হবে বলে গুগল।

গুগল অ্যাসিস্ট :
অ্যান্ড্রয়েড-১২ স্মার্টফোনের পাওয়ার বাটন কিছুক্ষণ চেপে স্ক্রিনে ভেসে উঠবে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট। এর সাহায্যে ভয়েস কমান্ডস, ভয়েস সার্চিং ডিভাইস কন্ট্রোলের সুবিধা করা যাবে।

প্রাইভেসি ড্যাশবোর্ড:
প্রাইভেসি ড্যাশবোর্ডের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর পারমিশন সেটিংসে যেসব তথ্য অ্যাক্সেস করা হয় তার বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে। এর মাধ্যমে ড্যাশবোর্ড থেকে অ্যাপের পারমিশন প্রত্যাহারেরও সুযোগ পাবেন ব্যবহারকারীরা।

ওয়াই-ফাই শেয়ারিংয়ে উন্নত অভিজ্ঞতা:
অ্যান্ড্রয়েড ১২-তে কিউআর কোডের মাধ্যমে ওয়াই-ফাই কানেকশন শেয়ার করা যাবে। এই ফিচারটি পাওয়া যাবে ‘নিয়ার বাই’ অপশনে।

কালার এক্সট্রাকশন:
অ্যান্ড্রয়েড ১২-তে স্মার্টফোন সম্পূর্ণরূপে পার্সোনালাইজ করা যাবে। কালার এক্সট্রাকশন ফিচারটি সর্বপ্রথম গুগলের পিক্সেল স্মার্টফোনগুলোতে পাওয়া যাবে। এই ফিচারের ফলে কোনো ওয়ালপেপার সিলেক্ট করার পর সিস্টেম স্বয়ংক্রিয়ভাবে নির্ধারণ করবে এর সঙ্গে কোন কালারগুলো ডমিন্যান্ট, কোনগুলো কম্প্লিমেন্টারি এবং কোনগুলো দেখতে দুর্দান্ত। তারপরে এটি পুরো অপারেটিং সিস্টেমে সেই কালারগুলো প্রয়োগ করবে, যেমন: নোটিফিকেশন শেড, লক স্ক্রিন, ভলিউ্যম কন্ট্রোল, উইজেট প্রভৃতিতে ব্যবহৃত হবে।

প্রাইভেট কম্পিউট কোর
নতুন অ্যান্ড্রয়েডে রয়েছে প্রাইভেট কম্পিউট কোর, যা লাইভ ক্যাপশন নাউ প্লেয়িং এবং স্মার্ট রিপ্লাই-এর মতো ফিচারগুলোকে সক্রিয় করে। এতে নেটওয়ার্ক থেকে আলাদা হয়ে যাবতীয় অডিও প্রসেসিং ডিভাইসের মধ্যে সম্পন্ন হয়, যা তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষা করবে।

অ্যাপ্রক্সিমেট লোকেশন:
নতুন অ্যান্ড্রয়েডে থাকবে অ্যাপ্রক্সিমেট লোকেশন পারমিশন ফিচার। সুনির্দিষ্ট লোকেশনের পরিবর্তে অ্যাপ্রক্সিমেট বা আনুমানিক লোকেশন অ্যাকসেস করতে এই ফিচারটিকে ব্যবহার করা যাবে। অর্থাৎ অ্যাপগুলোর সঙ্গে আপনার লোকেশনের তথ্য কতটা শেয়ার করবেন তার ওপর আরও বেশি নিয়ন্ত্রণ থাকবে আপনার।

এর মধ্যে আরও থাকবে লক স্ক্রিন, উইজেট ও নোটিফিকেশন, কাস্টম কালার প্রভৃতি।
নকশা পরিবর্তনের আরেকটি অংশ হচ্ছে আরও বেশি ফ্লুইড মোশন, অ্যানিমেশন ও স্পর্শে আরও বেশি প্রতিক্রিয়া দেখানোর বিষয়টি। এখন অলওয়েজ-অন ডিসপ্লে সুবিধা ও আরও বেশি অ্যাডাপ্টিভ নোটিফেকশন থাকবে। যেমন কেউ যদি নোটিফিকেশন লক স্ক্রিনে বাতিল করে দেন, তখন ঘড়িটি বড় আকারে দেখা যাবে। তখন বিষয়টি স্মরণে থাকবে।

Related posts

আইফোন থেকে যেভাবে প্রিন্ট করুন খুব সহজেই

News Desk

যেভাবে Google Search এবং Google Maps ব্যবহার করে নিকটবর্তী কোভিড-১৯ টিকা কেন্দ্র খুঁজবেন

News Desk

চলে গেলেন অ্যাডোবির সহপ্রতিষ্ঠাতা চার্লস গেসকি

News Desk