free hit counter
বাংলাদেশ

ঝুঁকি নিয়ে ট্রাক-পিকআপে ঘরে ফিরছেন মানুষ

ঈদযাত্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ক্রমেই যানবাহনের চাপ বাড়ছে। গণপরিবহনের পাশাপাশি ট্রাক-পিকআপে গাদাগাদি করে নাড়ির টানে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গন্তব্যে ছুটেছেন মানুষ। শনিবার (৩০ এপ্রিল) সরেজমিনে মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

এই মহাসড়কে দেখা গেছে, ঈদকে কেন্দ্র করে রাজধানী ছাড়ছে ঘরমুখো মানুষ। গণপরিবহনের পাশাপাশি মালবাহী ট্রাক, পিকআপভ্যানে ঝুঁকি নিয়ে গাদাগাদি করে অসংখ্য মানুষ গন্তব্যে ফিরছেন। এ ছাড়াও প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেলসহ ব্যক্তিগত গাড়িতে করে ঘরমুখো মানুষ গন্তব্যে যাচ্ছেন। মালবাহী ট্রাক ও পিকআপভ্যান থেকে পড়ে যেকোনও সময় দুর্ঘটনা হওয়ার শঙ্কাও রয়েছে। এ ছাড়াও দাবদাহের কারণেও চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের।

যাত্রীরা জানান, ঢাকাতে গণপরিবহন ঠিকমতো পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে বাধ্য হয়ে ট্রাক-পিকআপভ্যানে করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গন্তব্যে যেতে হচ্ছে। প্রতি বছর ঈদযাত্রায় এ সড়কে যানজটে আটকে থেকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। কিন্তু এবার যানজট ছাড়াই স্বস্তিতে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছেন।

এদিকে, ঈদযাত্রায় উত্তরের মহাসড়কে যানবাহনের চাপ কয়েকগুণ বেড়েছে। তবে যানবাহন স্বাভাবিক গতিতেই চলাচল করছে। কোথাও বড় ধরনের যানজটের খবর পাওয়া যায়নি।

অন্যান্য বছর দীর্ঘ যানজটে আটকে থেকে মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। কিন্তু এবার ঈদযাত্রায় ভোগান্তি ছাড়াই মানুষ স্বস্তিতে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছেন।

এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আতাউর রহমান বলেন, ‘মহাসড়কে এখনও যানবাহন স্বাভাবিক গতিতেই চলাচল করছে। তবে বাড়তি চাপ রয়েছে। যানজট নিরসনে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মহাসড়কে কাজ করছে।’

Source link