Image default
অন্যান্য

রাস্তার পাশে ওয়ার্ডরোব, ভেতরে নারীর লাশ!

গাজীপুরে ওয়ার্ডরোব থেকে হাত-পা বাঁধা এবং গলায় গামছা বাঁধা অবস্থায় এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে সদর উপজেলার মনিপুর-ডগরি সড়কের বিকেবাড়ী পশ্চিমপাড়া এলাকার রাস্তার পাশে ফেলে রাখা ওয়ার্ডরোব থেকে লাশটি উদ্ধার হয়। পুলিশের ধারণা অন্যত্র শ্বাসরোধে হত্যার পর ওয়ার্ডরোবে ভরে লাশ ওই স্থানে ফেলে গেছে হত্যাকারীরা।

তিনি গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানার নাওজোর এলাকায় ভাড়া থেকে গার্মেন্টে চাকরি করতেন। 

জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাতাব উদ্দিন জানান, শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে চার ব্যক্তি একটি পিকআপে করে ওয়ার্ডরোবটি বিকেবাড়ী পশ্চিমপাড়া এলাকায় রাস্তার পাশে ফেলে যায়। দীর্ঘক্ষণ ওয়ার্ডরোবটি সেখানে পড়ে ছিল। কেউ নিতে না আসায় এলাকার লোকজনের কৌতূহল সৃষ্টি হয়। রাত ১১টার দিকে খবর দেওয়া হয় জয়দেবপুর থানায়। রাত ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওয়ার্ডরোবের তালা ভেঙে অজ্ঞাতপরিচয় হিসেবে নারীর লাশটি উদ্ধার করা হয়। তার গলায় শক্ত করে গামছা বাঁধা ছিল। খবর পেয়ে রাতেই পিবিআই সদস্যরা এসে আঙুলের ছাপ নিয়ে লাশের পরিচয় শনাক্ত করেন। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়।

পুলিশের ওই কর্মকর্তার ধারণা, সাবিনা খাতুনকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ ওয়ার্ডরোবে ভরে সেখানে রেখে গেছে হত্যাকারীরা। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুজনকে থানায় আনা হয়েছে। কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

নিহতের ছোট ভাই মো. জসিম জানান, স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর তার বোন গাজীপুরে এসে গার্মেন্টে চাকরি নেন। তার ১০ বছরের একটি ছেলে রয়েছে। সে নানির কাছে থাকে। শুনেছেন তার বোন আবার বিয়ে করেছেন। কার সঙ্গে বিয়ে হয়েছে বা কোথায় ভাড়া থাকতেন এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। পরিবারের সঙ্গে তার যোগাযোগও ছিল না বলে দাবি জসিমের। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে হত্যা মামলা করবেন।

Related posts

পাসপোর্ট অফিসে চেয়ারে বসায় সেবাগ্রহীতাকে মারধর, তদন্তের নির্দেশ

News Desk

পিএসজির রামোস ও নেইমারের নিষেধাজ্ঞা

News Desk

নেত্রকোনায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন

News Desk

Leave a Comment