free hit counter
জানা অজানা

দ্রুত ইংরেজি শেখার সহজ ১০টি উপায়

ইংরেজি বেশ মজার একটি ভাষা। ইংরেজিকে সাধারণত বেশ বোধগম্য ও সহজ ভাষা হিসেবেই ধরা হয়। আমরা প্রায় সময়ই ভেবে থাকি “না আমার দ্বারা এটি শেখা হবেই না।” আমি বলবো, “না, আপনিই পারবেন। কীভাবে? চলুন শুরু করি।

আপনি যদি দ্রুত ইংরেজি শেখার উপায় সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। এই নিবন্ধটি আপনাকে ইংরেজি শিখতে সম্পূর্ণরূপে সাহায্য করবে। এই আর্টিকেলের মাধ্যমে, আপনি তিনটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর পাবেন যা ইংরেজি শিখতে আগ্রহী প্রতিটি শিক্ষার্থী জানতে চায়।

ইংরেজি বর্তমান যুগের সবচেয়ে প্রভাবশালী ভাষা। আজকের যুগে ইংরেজি একটি স্ট্যাটাসে পরিণত হয়েছে। ইংরেজি শেখা এবং বলা বর্তমান যুগের প্রয়োজনে পরিণত হয়েছে। এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে আপনিও ভাল ইংরেজি পড়তে, লিখতে এবং বলতে পারবেন।

যেভাবে ইংরেজি দ্রুত শিখবেন: ১০টি সহজ টিপস!

১) হাতের কাছাকাছি যা পান সব কিছুই পড়ার চেষ্টা করুন

ইংরেজি বই, সংবাদপত্র, ওয়েবসাইট, ইমেইল, ফেসবুক নিউজফিড: চোখের সামনে ইংরেজিতে যাই পান সব পড়ে দেখার চেষ্টা করবেন, বোঝার চেষ্টা করুন। এতে করে নতুন ভোকাবুলারি শেখা সম্ভব। যা ইংরেজি শেখার মূল। নতুন এবং পুরান দুইটাই। এভাবে একদিকে যেমন নতুন শব্দ শেখা যাবে, তার পাশাপাশি পুরাতন শব্দগুলো ঝালিয়ে নেওয়া সম্ভব। কিন্তু, শুধু পড়তে থাকলেই হবে না, আপনাকে

২) নতুন শব্দগুলো নোট করে রাখতে হবে

এটা বেশ সাধারণ একটি টিপস হলেও কার্যকর। পড়তে পড়তে মজার একটি শব্দ সামনে আসলে মনে হয় ‘আরে, এই শব্দের অর্থ আমি কখনোই ভুলবো না।’ কিন্তু দেখা যায় এক সময় গিয়ে আমরা সেটা ভুলে যাই। সব সময় একটা ছোট নোটবুক, অথবা ডিজিটাল ভাবে করলে কোনো নোট-টেকিং অ্যাপের মধ্যে নতুন বা অজানা শব্দগুলো লেখে রাখতে হবে। শুধু শব্দটা না, অর্থ ও সিনোনিমসহ লেখে রাখতে হবে, যেন পরবর্তীতে এক নজরেই মনে করে নেওয়া যায়।

৩) বন্ধুদের সাথে ইংরেজি প্র্যাক্টিস করুন

কারো সাথে স্পিকিং না করেই ইংরেজি শেখবেন? উহু, সম্ভব না। জানি কী বলবেন, টেক্সট করে হয়তো অনেক ইংরেজি প্র্যাক্টিস করা সম্ভব। কিন্তু ওই যে, স্পিকিং প্র্যাক্টিসটা যে হলো না? প্রায় সময়ই মেসেজে দেখি যে, “ইংরেজি বুঝি, কিন্তু বলতে পারি না।” তাই আমাদের অভ্যাস পরিবর্তন করতে হবে; কথা বলতে হবে, ইংরেজিতে।

৪) ইউটিউবে শিক্ষনীয় ইংরেজি চ্যানেলগুলো সাবস্ক্রাইব করে রাখুন

রান্না ভালবাসেন? বিভিন্ন দেশের রাজনীতি শুনতে পছন্দ করেন? খেলার কমেন্ট্রি শুনতে পছন্দ করেন? তাহলে এ বিষয়গুলোর ভালো ভালো ইংরেজি চ্যানেলগুলোর ভিডিও অথবা পডক্যাস্ট শুনতে পারেন। দেখা গিয়েছে, প্রতিদিন আমাদের পাঁচ লক্ষ কর্মঘন্টা নষ্ট হচ্ছে** ট্রাফিক জ্যামের কারণে। এই সময়ে যদি আমার চ্যানেলের ভিডিওগুলো দেখে ডিরেক্ট ইংরেজি শেখার পাশাপাশি এই জিনিসগুলো করেন, তাহলে বলা যায় আপনার ইংরেজি চর্চা হবে সম্পূর্ণ।

৫) বন্ধুদের থেকে শেখা শুরু করুন

আমাদের ফ্রেন্ডলিস্টে সব সময়ই অন্তত এমন একজন বন্ধু আছে যে একদম সুন্দর করে ইংরেজিতে স্ট্যাটাস দিতে পারে। তাদের লেখাগুলো ঘাটুন। কঠিন বাক্যগুলো বোঝার চেষ্টা করুন। ওরা কী বুঝাতে চাচ্ছে এটা অনুধাবন করার চেষ্টা করুন। এভাবে কিন্তু ভোকাবুলারিও শেখা সম্ভব।

৬) প্রশ্ন করুন

আপনি হয়তো ঘরে বসে Spoken English কোর্সটি করছেন, এবং কোথাও আটকে গিয়েছেন, প্রশ্ন করুন। অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সাথেও আলোচনা করতে পারেন। একটা ব্লগ হয়তো পড়ছেন, লেখককে জিজ্ঞেস করুন আপনার কনফিউশনগুলো। আপনার বন্ধুকে বলুন, সে যে ইংরেজিতে স্ট্যাটাস দিয়েছে এটা যেন বুঝিয়ে দেয়।

৭) ইংরেজির যে টপিকগুলো আপনার শেখা অধিক প্রয়োজন সেগুলো আগে শিখুন

ইংরেজিতে ১০ লক্ষেরও বেশি শব্দ*** রয়েছে। সবগুলো অথবা অদরকারীগুলো শিখতে গেলে সারা জীবন চলে যাবে। তাই নিজেকে প্রশ্ন করুন, কোন ধরনের শব্দগুলো আমার এই মুহূর্তে জানা থাকা প্রয়োজন? আপনি যদি জেনারেল জিনিসগুলো শেখার উদ্দেশ্যে মেকানিক্যাল কোনো বিষয়ে কারো লেখা পি এইচ ডি পেপার নিয়ে বসেন, তাহলে কিন্তু যেখানে শুরু করেছিলেন সেখানেই থেকে যাবেন, কিছু শেখা হবে না।

৮) প্রতিদিন সামান্য করে শিখুন

একদিনেই ইংরেজিতে বাজিমাত করার চেষ্টা করছেন? আমরা প্রায়ই এমনটা করার চেষ্টা করি। রাত ৪ টা পর্যন্ত পড়ার পর পরের দিন দেখা যায় কিছুই মনে পড়ছে না। তাই প্রতিদিন পড়তে হবে এবং একটু একটু করে পড়তে হবে। সকালে ১৫টি শব্দ শিখেছেন। রাতে আরও নতুন ১৫টি শব্দ চর্চা না করে সকালের গুলো আবার brush-up করে ফেলুন। এতে করে শব্দগুলো মনে রাখা সম্ভব হবে।

৯) লক্ষ্য নির্ধারণ করুন

শেখা শুরু করার আগে আপনাকে একটা কাজ করতে হবে। লক্ষ্য নির্ধারণ করুন। আজ শেখা শুরু করলে এক মাস পর আপনি কতটুকু শিখতে চান, সেটা আগে থেকে লিখে রাখুন। প্রতিদিন এটা দেখবেন এবং নিজেকে বলবেন, “আর ২৫ দিন বাকি। আমার লক্ষ্য পূরণ করতে হলে আজ ৪ ঘন্টা পড়তে হবে।”

১০) শেখার শুরু করার পরও উন্নতি না হলে হাল ছেড়ে দেওয়া যাবে না কোনোভাবেই

ইংরেজি শেখা শুরু করলেন। দু’ মাস হয়ে গেলো। আপনি ভেবে দেখলেন এখনও আপনি আপনার পাশের বন্ধুটির মত অনর্গল ইংরেজিতে কথা বলতে পারছেন না।

এখন কী করবেন, হাল ছেড়ে দিবেন? উহু, এই কাজটা ভুলেও করা যাবে না। ভেবে দেখুন, দু’মাস আগে আপনি যতটা ইংরেজি জানতেন, তার চেয়ে একটু হলেও বেশি জানেন কি না? উত্তর যদি হ্যাঁ হয় (এবং তা অবশ্যই হ্যাঁ হবে যদি আপনি শেখা শুরু করেন), তাহলে সেটাই যথেষ্ট।

কেন আপনাকে ইংরেজি শিখতে হবে?
  • ইংরেজি জানা থাকলে আপনি যে কোন মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিতে ভালো বেতনে চাকরি করার সুযোগ পেতে পারেন। আজকের যুগে, আপনি যদি একটি ভাল সরকারি চাকরি পেতে চান, আপনার ইংরেজি জানা আবশ্যক।
  • আপনি যদি বিদেশে পড়াশোনা করতে যেতে চান অথবা দেশের বাইরে চাকরি করতে চান তবে আপনার ইংরেজি জানা বাধ্যতামূলক।
  • আপনি যদি বিদেশে ঘুরতে যেতে চান সেক্ষেত্রেও আপনার ইংরেজি জানা থাকা প্রয়োজন।
  • আজকের সময়ে যদি আপনি একটি ভালো ব্যবসা করতে চান, আপনার ইংরেজি জানা উচিত। এটি আপনাকে অন্যদের থেকে এগিয়ে রাখবে।
  • ইংরেজি বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ভাষা, তাই আপনাকে অবশ্যই এটি শিখতে হবে, এটি আপনার জন্য সাফল্যের একটি নতুন মাত্রা খুলে দেবে।
কীভাবে ইংরেজি শিখবেন

কিভাবে ইংরেজি বলতে, লিখতে এবং পড়তে শিখবেন?

ইংরেজিতে পারদর্শী হওয়া এবং কথা বলা, লেখা এবং ভাল পড়া একদিনের প্রক্রিয়া নয়। আপনাকে কমপক্ষে 6 থেকে 12 মাস অবিরাম প্রচেষ্টা করতে হবে। কতক্ষণ লাগবে তা নির্ভর করে শিক্ষার্থীর গ্রহণযোগ্যতার উপর, কত দ্রুত সে কিছু শেখে। আমি আপনাকে শব্দভান্ডার বা ব্যাকরণে খুব বেশি মনোযোগ না দিয়ে ইংরেজিতে আপনার চারপাশের মানুষ এবং বন্ধুদের সাথে কথোপকথন শুরু করার সুপারিশ করব। যাইহোক, আপনার ইংরেজি শব্দ এবং Tense সম্পর্কে কিছু জ্ঞান থাকতে হবে। যদি সম্ভব হয়, প্রতিদিন 25-30 মিনিটের জন্য ইংরেজি সংবাদপত্র পড়ুন। অন্যথায় আপনি আপনার স্কুলের ইংরেজি বইও পড়তে পারেন।

শেষ কথা

ইংরেজি হল ইন্টারন্যাশনাল বা আন্তর্জাতিক ভাষা। আপনি যদি ইংরেজি সঠিক ভাবে উচ্চারণ করে কথা বলতে পারেন তবে, আপনি একজন লাকি ব্যক্তি। কেননা, ইংরেজি পৃথিবীর ২ য় সর্বাধিক ব্যবহৃত কথ্য ভাষা। আজকের এই নিবন্ধে আমরা দ্রুত ইংরেজি শেখার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আপনাদের জানানোর চেষ্টা করেছি।