free hit counter
প্রযুক্তি

২০২২ সালের বিশ্বের সেরা ১০টি স্মার্টফোন

আজকের দিনে যে সমস্ত স্মার্টফোন আমাদের হাতে হাতে ঘুরছে বা আমরা যেসব সুবিধা উপভোগ করছি স্মার্টফোনগুলোর মাধ্যমে, কিছু বছর আগেও এসব অকল্পনীয় ছিল। একটা দীর্ঘসময় ধরে আমরা বেশ ভারী ওজন, বড় বেজেল, ছোট স্ক্রিনের মোবাইলফোন ব্যবহারে অভ্যস্ত ছিলাম। এর প্রায় দুই দশক পরে প্রযুক্তির বিবর্তনের মাধ্যমে আমাদের হাতে এসে পৌঁছেছে উন্নত হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার সম্বলিত আজকের মোবাইল ফোন।

এছাড়াও ৫জি প্রযুক্তি টেক দুনিয়ার দরজায় কড়া নাড়ছে। যা কিনা আমাদের আরও দ্রুততর নেটওয়ার্কিং সুবিধা দিতে সক্ষম হবে। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই মুঠোফোন নির্মাতারা বাজারে নিয়ে আসছে ৫জি সুবিধা সম্বলিত স্মার্টফোন। চলুন দেখে নেওয়া যাক, ২০২২ সালে নতুন কী কী ফিচার নিয়ে বাজারে আসছে এ সমস্ত নতুন মোবাইল ফোন।

ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো – OnePlus 9 Pro

 

ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো ফোনটির মাধ্যমে সেরা স্মার্টফোনের কাতারে বেশ সহজেই নিজেদের স্থান দখল করে নিয়েছে ওয়ানপ্লাস। হ্যাসেলব্লেড-টিউনড ক্যামেরার কল্যাণে ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো এর ক্যামেরাও তালিকার অন্যসব ফোনের ক্যামেরার সাথে টক্কর দিবে সমানে।ফাস্ট ওয়্যারলেস চার্জিং এর পাশাপাশি অসাধারণ দেখতে কিউএইচডি ডিসপ্লে ও ১২০হার্জ রিফ্রেশ রেট মিলিয়ে অস্থির একটি স্মার্টফোন প্যাকেজে পরিণত হয়েছে ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো। ফোনটিতে টপ অফ দ্যা লাইন, স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসরের পাশাপাশি কোয়াড ক্যামেরা সেটাপ ফোনটিকে যেকোনো ধরনের ব্যবহারকারীর জন্য একটি আকর্ষণীয় ডিলে পরিণত করেছে।ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো এর ব্যাস ভ্যারিয়েন্ট এ র‍্যাম রয়েছে ৮জিবি ও স্টোরেজ থাকছে ১২৮জিবি। এছাড়াও ১২ জিবি র‍্যাম পর্যন্ত ও ২৫৬জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ পাওয়া যাবে ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো এর ম্যাক্স ভ্যারিয়েন্টে।একনজরে ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮
  • মেইন ক্যামেরাঃ ৫০মেগাপিক্সেল কোয়াড ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৮জিবি/১২জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি/২৫৬জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৪৫০০মিলিএম্প
  • দামঃ ৬৪,৯৯৯ টাকা
OnePlus 9 Pro
ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো – OnePlus 9 Pro
আসুস আরওজি ফোন ৫ – Asus ROG Phone 5

 

গেমারদের কথা মাথায় রেখে তৈরী করা হয় বলেই হয়ত আসুস এর ফোনগুলো পারফরম্যান্স এর দিক দিক দিয়ে এতো মারাত্মক হয়ে থাকে। কথা বলছি আসুস আরওজি ফোন ৫ কে নিয়ে। এই ফোনটার মাথানষ্ট পারফরম্যান্স বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন এর তালিকায় জায়গা করে দিয়েছে।১৪৪হার্জ এর ব্লেজিং ফাস্ট রিফ্রেশ রেট ও স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ এর বদৌলতে যেকোনো ধরনের গেম ম্যাক্স সেটিংসে এই ফোনটিতে নির্দ্বিধায় খেলা যাবে। ফোনটির নজরকাড়া ডিজাইন আর এমন মনস্টার পারফরম্যান্স, ফোনটিকে যেকোনো মোবাইল গেমারের জন্য স্বপ্নের ফোনে পরিণত করেছে।একনজরে আসুস আরওজি ফোন ৫ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭৮ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮
  • মেইন ক্যামেরাঃ ৬৪মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২৪মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৮জিবি/১২জিবি/১৬জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি/২৫৬জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৬০০০মিলিএম্প
  • দামঃ ৪৯,৯৯৯ টাকা
Asus ROG Phone 5
আসুস আরওজি ফোন ৫ – Asus ROG Phone 5
শাওমি মি ১১ আলট্রা – Mi 11 Ultra

 

শাওমি মি ১১ আলট্রা ফোনটির ফিচারসমুহ আসলে গুণে শেষ করা সম্ভব নয়। ফোনটি জানা অজানা অসংখ্য চমকে পরিপূর্ণ। তিনটি ৪৮মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরাই হোক, কিংবা ফোনের ব্যাকে একটি ১.১ইঞ্চি সেকেন্ডারি ডিসপ্লে; একটি ফোনে যতোসব প্রযুক্তিকে জায়গা দেওয়া সম্ভব, তার সবটুকুই নিশ্চিত করেছে শাওমি।আগেই বলেছিলাম, মি ১১ আলট্রা ফোনটির প্রত্যেকটা ফিচারেই কোনো না কোনো চমক থাকছেই। যার ফলশ্রুতিতে এই ফোনটিতে রয়েছে ৬৭ওয়াট ফাস্ট চার্জিং। আরো রয়েছে ৬.৮১ইঞ্চির কিউএইচডি অ্যামোলেড ডিসপ্লে, যা ১২০হার্জ রিফ্রেশ রেট সাপোর্টেড। এছাড়াও চিপসেট হিসেবে স্ন্যাপ্পড্রাগন ৮৮৮ তো থাকছেই।শাওমি মি ১১ আলট্রা ফোনটিতে ৫০ মেগাপিক্সেল মেইম ক্যামেরার পাশাপাশি রয়েছে ৪৮মেগাপিক্সেল আলট্রাওয়াইড ও ৪৮মেগাপিক্সেল টেলিফটো ক্যামেরা। এই ৪৮মেগাপিক্সেল টেলিফটো ক্যামেরা আবার ৫এক্স অপটিক্যাল জুম ও ১২০এক্স ম্যাক্স জুম করতে সক্ষম।একনজরে শাওমি মি ১১ আলট্রা এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৮১ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮
  • মেইন ক্যামেরাঃ ৫০মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২০মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৮জিবি/১২জিবি
  • স্টোরেজঃ ২৫৬জিবি/৫১২জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প
  • দামঃ ১১১৫০০ টাকা
শাওমি মি ১১ আলট্রা – Mi 11 Ultra
স্যামসাং গ্যালাক্সি জি ফোল্ড ৩ – Samsung Galaxy Z Fold 3

 

স্যামসাং এর তৃতীয় জেনারেশনের ফোল্ডেবল ডিভাইস, স্যামসাং গ্যালাক্সি জি ফোল্ড ৩ আমাদের সেরা স্মার্টফোনের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে এর অসাধারণ সব সুবিধা আর ভবিষ্যতমুখী ভাবনার বিবেচনায়।গত জেনারেশনের ফোল্ডেবল এর চেয়ে বেশ অনেকটা পথ এগিয়ে এসেছে স্যামসাং। গ্যালাক্সি জি ফোল্ড ৩ একটি ব্যবহারযোগ্য স্মার্টফোন হওয়ার পাশাপাশি একটি ফোল্ডেবল ডিভাইসও বটে। ফোল্ডেবল ডিভাইস হওয়ার দরুণ আমাদের এই সেরা স্মার্টফোন এর তালিকার অন্য যেকোনো স্মার্টফোন এর তুলনায় জি ফোল্ড ৩ এ মাল্টিটাস্কিং এক্সপেরিয়েন্স তুলনামুলকভাবে অনেক উন্নত।ফোল্ডেবল প্রযুক্তি আর স্যামসাং এর অসাধারণ ডিসপ্লে প্রযুক্তি এক হয়ে জি ফোল্ড ৩ ফোনটিকে একটি অসাধারণ ডিভাইসে পরিণত করেছে। স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ চিপসেটের সাথে ১২০হার্জ রিফ্রেশ রেট মিলিয়ে স্যামসাং গ্যালাক্সি জি ফোল্ড ৩ প্রত্যেকটা টাস্কই দ্রুত থেকে দ্রুততর সময়ে সম্পন্ন করতে সক্ষম। একনজরে স্যামসাং গ্যালাক্সি জি ফোল্ড ৩ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৭.৬ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮
  • মেইন ক্যামেরাঃ ১২মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১০মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ১২জিবি
  • স্টোরেজঃ ২৫৬জিবি/৫১২জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৪৪০০মিলিএম্প
  • দামঃ ১৩৭০০০ টাকা
Samsung Galaxy Z Fold 3
অপ্পো ফাইন্ড এক্স-৩ প্রো –  Oppo Find X3 Pro

 

অপো’র টপ টিয়ার ফ্ল্যাগশিপ সিরিজ, ফাইন্ড এক্স এর লেটেস্ট সংযোজন, অপো ফাইন্ড এক্স৩ প্রো আমাদের সেরা স্মার্টফোন এর তালিকায় এর অসাধারণ স্পেসিফিকেশন ও পারফরম্যান্স এর বদৌলতে জায়গা করে নিয়েছে। অপো বরাবরই তাদের ক্যামেরার জন্য পরিচিত, ব্যাতিক্রম থাকছেনা এই ফোনের ক্ষেত্রেও।ইউনিক ইউনিবডি ডিজাইন ও ওয়ানপ্লাস ৯ প্রো এর মত একই ৬৫ওয়াট ফাস্ট চার্জিং এর কথা বলেই শেষ নয় অপো ফাইন্ড এক্স৩ প্রো এর ফিচার এর তালিকা। ফোনটিতে থাকা স্পেশাল মাইক্রোস্কোপিক ক্যামেরা ফোনটিকে করেছে অনন্য। স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ এর কল্যাণে ফোনটি শক্তিশালী পাওয়ার হাউস ও বটে।একনজরে অপো ফাইন্ড এক্স৩ প্রো এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮
  • মেইন ক্যামেরাঃ ৫০মেগাপিক্সেল কোয়াড ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৩২মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৮জিবি / ১২জিবি / ১৬জিবি
  • স্টোরেজঃ ২৫৬জিবি/৫১২জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৪৫০০মিলিএম্প
  • দামঃ ৭২,৯৯১ টাকা
অপ্পো ফাইন্ড এক্স-৩ প্রো –  Oppo Find X3 Pro
 শাওমি মি ১১ – Xiaomi Mi 11

 

শাওমি’র মি ১১ ফোনটির স্পেসিফিকেশন যেকোনো ধরনের স্মার্টফোন প্রেমীকেই আকৃষ্ট করার ক্ষমতা রাখে। ফোনটির কোনো কর্নারেই স্পেসিফিকেশনের বেলায় কোনো ছাড় দেয়নি শাওমি। তাই তো আমাদের এই বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন এর তালিকায় শাওমি মি ১১ স্থান করে নিয়েছে খুব সহজেই।শাওমি মি ১১ এত কোয়াড কার্ভ ডিসপ্লে ও আকর্ষণীয় ডিজাইন এর সাথে এর শক্তিশালী স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসর ফোনটিকে অনবদ্য এক পছন্দে পরিণত করেছে। আবার ১০৮মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরার কল্যাণে যেকোনো ধরনের ফটোগ্রাফিই সম্ভব মি ১১ ফোনটিতে।একনজরে শাওমি মি ১১ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৮১ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮
  • মেইন ক্যামেরাঃ ১০৮মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২০মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৬জিবি/৮জিবি/১২জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি/২৫৬জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৪৬০০মিলিএম্প
  • দামঃ ৬০,০০০ টাকা
শাওমি মি ১১ – Xiaomi Mi 11

 

অ্যাপল আইফোন ১৩ – Apple iPhone 13

 

সেরা স্মার্টফোন এর তালিকায় সদ্য মুক্তি পাওয়া আইফোন ১৩ থাকবেনা, তা কি করে হয়। নতুন এ১৫ বায়োনিক চিপ এর কল্যাণে আইফোন ১৩ তে। অপেক্ষাকৃত ছোট নচ ও নতুন ক্যামেরা প্লেসমেন্টের মাধ্যমে গতবছরের আইফোনের চেয়ে বেশ রিফ্রেশিং লুক নজরে আসবে এই বছরের আইফোন ১৩ তে।আইফোন ১৩ তে ডিজাইনের পাশাপাশি উন্নতি এসেছে ব্যাটারি লাইফে। পূর্ববর্তী আইফোন ১২ মডেল থেকে প্রায় ২.৫ঘন্টা অধিক ব্যাটারি ব্যাকাপ নিয়ে আইফোন ১৩ খুব সহজেই আমাদের বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন এর তালিকায় স্থান করে নিয়েছে।আইফোন ১৩ এর ক্যামেরাতেও এসেছে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন। আইফোন ১৩ তে সেন্সর শিফট স্ট্যাবিলাইজেশন যুক্ত হওয়ার ফলে ভিডিও রেকর্ডিং হবে অধিক স্মুথ। এছাড়াও এবারের আইফোনের বেস স্টোরেজ ৬৪জিবি থেকে বাড়িয়ে ১২৮জিবি করেছে অ্যাপল।নতুন আইফোনের হাত ধরে দাম কমেছে বিগতবছরে সেরার তালিকায় থাকা আইফোন ১২ সিরিজের ফোনগুলোর। তাই যারা কিছুটা সাশ্রয়ী দামে একই আইফোন এক্সপেরিয়েন্স উপভোগ করতে চান, তাদের জন্য আইফোন ১২ সিরিজ পছন্দের তালিকায় থাকবে।একনজরে আইফোন ১৩ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.১ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ এ১৫ বায়োনিক
  • মেইন ক্যামেরাঃ ১২মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১২মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৪জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি/২৫৬জিবি/৫১২জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৩২৪০মিলিএম্প
  • দামঃ ৬৮৫০০ টাকা
অ্যাপল আইফোন ১৩ – Apple iPhone 13
অ্যাপল আইফোন ১৩ প্রো – Apple iPhone 13 Pro

 

নতুন আইফোন এর মোটা দাগের পরিবর্তনগুলো চোখে আইফোন প্রো সিরিজে। আইফোন ১৩ প্রো এর থ্রিপল ক্যামেরা এই বছর মাতিয়ে বেড়াবে মোবাইল দিয়ে ফটোগ্রাফি ও ভিডিও রেকর্ড করতে যারা পছন্দ করেন, তাদের মন।এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় আইফোন ক্যামেরা সেন্সর কে সাথে আইফোন ১৩ প্রো নিঃসন্দেহে এই তালিকার অন্য সব ফোনকে কোনো সমস্যা ছাড়াই পেছনে ফেলবে, এটি গ্যারান্টি। ফটোগ্রাফিক স্টাইল, প্রোরেস ভিডিও, ম্যাক্রো ফটোগ্রাফি সহ অসংখ্য ফটোগ্রাফিক ফিচার নিয়ে আইফোন ১৩ প্রো আমাদের সেরা স্মার্টফোন এর তালিকায় ৩য় স্থান দখল করে নিয়েছে।একনজরে আইফোন ১৩ প্রো এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.১ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ এ১৫ বায়োনিক
  • মেইন ক্যামেরাঃ ১২মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১২মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৬জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি/২৫৬জিবি/৫১২জিবি/১টিবি
  • ব্যাটারিঃ ৩১২৫মিলিএম্প
  • দামঃ ৮৫,৭০০ টাকা
অ্যাপল আইফোন ১৩ প্রো – Apple iPhone 13 Pro
স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১ আলট্রা – Samsung Galaxy S21 Ultra

 

নামের পাশাপাশি প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে আলট্রা পারফরম্যান্স দেখিয়ে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১ আলট্রা দখল করে নিয়েছে বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকার দ্বিতীয় স্থান। ১০৮মেগাপিক্সেল ক্যামেরার ম্যাডনেসকে সাথে নিয়ে স্মার্টফোন হিসেবে এই বছর প্রতিযোগিদের অনেক পেছনে ফেলে এগিয়ে গিয়েছে স্যামসাং এস২১ আলট্রা।আলট্রা সনিক ইন-ডিসপ্লে ফিংগারপ্রিন্ট এর কথা বলা হোক, কিংবা অসাধারণ স্টিরিও স্পিকার, প্রত্যেকটা ক্ষেত্রেই নিখুঁত এক ছোয়া রয়েছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১ আলট্রা ফোনটিতে। এসব আকর্ষণকে সাথে নিয়ে ফোনটির নান্দনিক ডিজাইন দেখে যে কেউ এক দেখায় পছন্দ করে ফেলতে বাধ্য হবে।একনজরে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১ আলট্রা এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৮ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ এক্সিনোজ ২১০০
  • মেইন ক্যামেরাঃ ১০৮মেগাপিক্সেল কোয়াড ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৪০মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ১২জিবি/১৬জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি/২৫৬জিবি/৫১২জিবি
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প
  • দামঃ ৬৮,৬০০ টাকা
স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১ আলট্রা – Samsung Galaxy S21 Ultra
অ্যাপল আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স – Apple iPhone 13 Pro Max

 

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন এর তালিকায় আমরা শীর্ষে নাম রেখেছি আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স এর। আইফোন ১৩ প্রো ও প্রো ম্যাক্স এর স্পেসিফিকেশন একই হলেও ব্যাটারি ব্যাকাপের দিক দিয়ে এই তালিকার সব ফোনের চেয়ে সবচেয়ে এগিয়ে থাকবে আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স। যার ফলে আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স কে বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন ২০২১ এর তালিকায় জয়ী বলে গণ্য করা যায়।আইফোন ১৩ প্রো সিরিজের অসাধারণ ক্যামেরা, দৃষ্টিনন্দন ডিজাইন ও ১২০হার্জযুক্ত রিফ্রেশ রেট মিলিয়ে এই তালিকার অন্যসব ফোনের চেয়ে কার্যকরীতার দিক দিয়ে এক ধাপ এগিয়ে থাকবে আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স।একনজরে আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ এ১৫ বায়োনিক
  • মেইন ক্যামেরাঃ ১২মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১২মেগাপিক্সেল
  • র‍্যামঃ ৬জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি/২৫৬জিবি/৫১২জিবি/১টিবি
  • ব্যাটারিঃ ৪৩৮৩মিলিএম্প
  • দামঃ ৯৪০০০ টাকা
অ্যাপল আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স – Apple iPhone 13 Pro Max

আপনার কী মতামত? কমেন্টে জানান!আপনি অনলাইনে যতগুলো স্মার্টফোন র‍্যাংকিং পাবেন, তা একটা আরেকটার সাথে মিলবেনা। এমনকি আপনার নিজের বিবেচনায়ও হয়ত আলাদা র‍্যাংকিং চলে আসবে। এই তালিকায় থাকা প্রতিটি ফোনই অসাধারণ। বিক্রেতাভেদে এদের দাম ভিন্ন হতে পারে।