Image default
খেলা

৬ গোলের থ্রিলারে ড্র সার্বিয়া-ক্যামেরুনের

রোমাঞ্চকর এক ম্যাচ উপহার দিলো সার্বিয়া-ক্যামেরুন। কেউ জেতেনি। তবে হারেওনি। ৩-৩ সমতা নিয়ে মাঠ ছাড়লো দু’দল। এই ড্রয়ে শেষ ষোলোতে যাওয়া যদিও কঠিন হয়ে গেছে দুটি দলের, তবে সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়নি। নিজেদের শেষ ম্যাচ জিতে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার একটা সুযোগ থাকছে সার্বিয়া-ক্যামেরুনের।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের ম্যাচে দশম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো সার্বিয়া। কিন্তু ডিবক্স থেকে আলেকজান্দার মিত্রোভিচের শট বাধাপ্রাপ্ত হয় পোস্টে। ২৯তম মিনিটে ক্যামেরুনকে এগিয়ে নেন জন-চার্লস ক্যাস্টেলেত্তো। হাল ছাড়েনি সার্বিয়া। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে চমক দেখায় দলটি।

বিজ্ঞাপন
মাত্র ১৪৮ সেকেন্ডের ব্যবধানে সার্বিয়া আদায় করে নেয় দুই গোল। ১৯৬৬ বিশ্বকাপের পর প্রথমবার কোনো ম্যাচে প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে দুই গোল হলো।
(৪৫+১) মিনিটে দুসান তাদিচের নেওয়ার ফ্রি-কিক থেকে হেডে ক্যামেরুনের জালে বল পাঠান ডিফেন্ডার স্ট্রাহিনিয়া পাভালোভিচ। ওই ধাক্কা সামলে ওঠার আগেই ক্যামেরুনকে দ্বিতীয় আঘাত হানেন সার্গেই মিলিনকোভিচ-সাভিচ। সার্বিয়ার তৃতীয় গোলটি যেন শিল্পীর তুলিতে আঁকা। ডিবক্সে মিত্রোভিচকে পাস দেন তাদিচ। মিত্রোভিচের পা থেকে বল চলে যায় মিলিনকোভিচ-সাভিচের পায়ে। সাভিচ পাস দেন জিভকোভিচকে। তার থেকে বল আবার ফিরে যায় মিত্রোভিচের কাছে। ক্লোজ রেঞ্জ থেকে নিখুঁত ফিনিশিংয়ে বিশ্বকাপের সেরা টিম গোলটি করেন ফুলহাম তারকা মিত্রোভিচ। সার্বিয়ার জার্সিতে শেষ ৬ ম্যাচে ৭ গোল করলেন তিনি। আর বিশ্বকাপে সবশেষ গোল পেয়েছিলেন ২০১৮’র আসরে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে।

৫৫তম মিনিটে মার্টিন হংগার বদলি হিসেবে মাঠে নামেন ভিনসেন্ট আবুবকর। অভিজ্ঞ এ খেলোয়াড়ের ছোঁয়ায় বদলে যায় ক্যামেরুনের খেলার গতি। মাঠে নামার দশ মিনিটের মধ্যেই ক্যামেরুনকে গোল উপহার দেন আবুবকর। প্রথমে মনে হয়েছিল আবুবকর অফসাইড পজিশনে। তবে পর্যালোচনার পর তার গোল বহাল রাখে ভিএআর। দুই মিনিট পরেই সমতা আনে ক্যামেরুন। এবার আবুবকরের অ্যাসিস্ট থেকে গোল করেন এরিক ম্যাক্সিম চুপো-মোর্টিং।
১৯৬৬ সালের পর আবুবকর প্রথম আফ্রিকান খেলোয়াড়, যিনি বিশ্বকাপের কোনো ম্যাচে বদলি হিসেবে খেলতে নেমে গোল ও অ্যাসিস্ট করলেন।
৭৬তম মিনিটে সার্বিয়াকে এগিয়ে নেওয়ার সুযোগ নষ্ট করেন মিত্রোভিচ। তার শট ঠেকিয়ে দেন ক্যামেরুন গোলরক্ষক ডেভিড ইপাসি। এ ম্যাচে ইপাসির খেলারই কথা ছিল না। কোচ রিগোভার্ট সং-এর সঙ্গে প্লেয়িং স্টাইল নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় সার্বিয়া ম্যাচের আগমুহূর্তে একাদশ থেকে বাদ পড়েন নিয়মিত গোলরক্ষক আন্দ্রে ওনানা। সৌদি লীগের আবহা ক্লাবের ২৯ বছরবয়সী ডেভিস ইপাসিকে মাঠে নামার সং। ক্যামেরুনের জার্সিতে মাত্র ৬ টা ম্যাচ খেলা ইপাসি বিশ্বকাপে আজকেই প্রথম ম্যাচ।

৮৮তম মিনিটে সুবিধাজনক জায়গা থেকে পোস্টের বাইরে বল মারেন মিত্রোভিচ। যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে আবার মিত্রোভিচকে হতাশ করেন ইপাসি। শেষতক ৩-৩ সমতা নিয়ে মাঠ ছাড়ে দুই দল।

দুই ম্যাচে সার্বিয়া-ক্যামেরুন দুই দলেরই সমান ১ পয়েন্ট। তবে গোল ব্যবধানে সার্বিয়ার চেয়ে এগিয়ে থাকায় ‘জি’ গ্রুপে তিন নম্বরে ক্যামেরুন। আজ রাত ১০টায় গ্রুপের অন্য ম্যাচে মুখোমুখি হবে ব্রাজিল ও সুইজারল্যান্ড। দুই দলই তাদের প্রথম ম্যাচে জিতেছে। তবে গোল গড়ে এগিয়ে শীর্ষে রয়েছে ব্রাজিল।

Related posts

মেটস লিড উড়িয়ে দেয় এবং অষ্টম-ইনিং বিপর্যয়ে রেডদের কাছে হেরে যায়

News Desk

TNT ঘোষক ওবি টপিনের স্বার্থপর এবং বেপরোয়া ডঙ্কের মহিমান্বিত

News Desk

বাউন্ডারি লাইনে বিজ্ঞাপন; ভীষণ ক্ষুব্ধ বেন স্টোকস

News Desk

Leave a Comment