Image default
খেলা

স্বামীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছেন সাকিবপত্নী শিশির

দেশের ক্রিকেটে সাকিব আল হাসান মানেই যেনো আলোচিত সব ঘটনা এবং পক্ষে-বিপক্ষে নানান তর্ক-বিতর্ক। তবে ঘটনা যাই হোক, পরিস্থিতি যেমনই হোক, একটি বিষয় সবসময়ই থাকে অপরিবর্তিত। তা হলো স্বামীর প্রতি সাকিবপত্নী উম্মে আহমেদ শিশিরের অকুণ্ঠ সমর্থন। ব্যতিক্রম হলো না এবারও।

শুক্রবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে জমজমাট আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচ চলাকালীন সময়ে, আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত মনঃপুত না হওয়ায় প্রথমে লাথি মেরে স্ট্যাম্প ভেঙে দেন সাকিব। এর পরের ওভারে তিনটি স্ট্যাম্পই তুলে সজোরে মাটিতে আছড়ে ফেলেন তিনি। যা নিয়ে বিকেল থেকেই চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

ম্যাচটি বৃষ্টি আইনে ৩১ রানের ব্যবধানে জিতেছে সাকিবের মোহামেডান। খেলা শেষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের এমন কাজকে মানবিক ভুল হিসেবে উল্লেখ করে ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব এবং জানিয়েছেন ভবিষ্যতে আর এমন না করার চেষ্টা করবেন তিনি।

তবে সাকিবের স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশিরের ভাবনা ভিন্ন। সাকিব আল হাসান বিষয়টিকে নিজের ভুল হিসেবে উল্লেখ করলেও, শিশিরের মতে এটি ছিলো তার স্বামীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ। যা কি দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে। বাংলাদেশ সময় মধ্যরাতে এক ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে সাকিবকে সমর্থন জানিয়েছেন সাকিবপত্নী।

শিশিরের ফেসবুক পোস্ট নিচে তুলে ধরা হলোঃ

গণমাধ্যমের মতো আমিও পুরো বিষয়টা খুব উপভোগ করছি। অবশেষে টিভিতে কিছু খবর পাওয়া গেলো। যারা আজকের (শুক্রবার) ঘটনার পরিষ্কার চিত্র বুঝতে পেরেছে, তাদের সমর্থন দিতে দেখা সত্যিই দারুণ। অন্তত কেউ একজনের তো সব প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর সাহসটা রয়েছে।

যাই হোক, এখানে মূল বিষয়টা চাপা পড়ে যাচ্ছে কারণ গণমাধ্যমে তার (সাকিব) দেখানো রাগের বিষয়টিই শুধু সামনে আসছে। পুরো ঘটনায় মূল বিষয়টা হলো আম্পায়ারদের নেয়া ক্রমাগত ভুল সিদ্ধান্তগুলো। কিন্তু শিরোনামগুলো সত্যিই হতাশাজনক।

আমার কাছে মনে হয়, এটা তার বিরুদ্ধে একটা ষড়যন্ত্র। যা কি না দীর্ঘসময় ধরে চলে আসছে, যাতে যেকোনো পরিস্থিতিতে তাকে খলনায়ক বানানো যায়। আপনি যদি ক্রিকেটপ্রেমী হয়ে থাকেন, তাহলে নিজের কর্মকান্ডের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন।

Related posts

কলম্বিয়ার সাথে ইতিহাস গড়লেন মেসি

News Desk

৩০ বছর পর ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শ্রীলঙ্কার

News Desk

দিবালার বিদায়ী ম্যাচ সবাইকে ছুঁয়ে গেলো

News Desk

Leave a Comment