free hit counter
খেলা

সিডনিকে পেছনে ফেলে শীর্ষে শারজা

সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়াম যেন ক্রিকেটের বিশাল এক ইতিহাস ধারণ করে সগর্বে দাঁড়িয়ে আছে মরুর বুকে। এবার নতুন এক ইতিহাস তৈরি করে ফেললো শারজার স্টেডিয়ামটি। গতকাল এশিয়া কাপে সুপার ফোরের শ্রীলঙ্কা-আফগানিস্তান ম্যাচ দিয়ে বিশ্বের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন করা মাঠ হয়ে গেল শারজা। ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ইতিহাসের সর্বোচ্চ ২৮১টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজন করলো শারজা।




একসময় আরব আমিরাত বা সমগ্র মধ্যপ্রাচ্যের বুকেই একমাত্র ক্রিকেট স্টেডিয়ামই ছিলো শারজা। আশি-নব্বই দশকে ভারত-পাকিস্তানের অনেক রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের সাক্ষী শারজার এই স্টেডিয়াম। এরপর দুবাই আর আবুধাবিতে দুটি নতুন স্টেডিয়াম তৈরি হওয়ার পর অবশ্য শারজার ওপর চাপ কমেছে অনেকটা। তবে এবার ক্রিকেট বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ আয়োজন করার তালিকায় শারজা উঠে গেলো সবার শীর্ষে। পেছনে ফেলে দিলো অস্ট্রেলিয়ার প্রাচীন আর ঐতিহ্যবাহী সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডকে।

শুক্রবার (২ সেপ্টেম্বর) পাকিস্তান ও হংকংয়ের ম্যাচ দিয়ে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডের পাশে বসেছিল শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়াম। আর শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সিডনিকে ছাড়িয়ে এককভাবে শীর্ষে উঠল শারজা।


সিডনিকে পেছনে ফেলে শীর্ষে শারজা

শারজাতে আয়োজিত হওয়া ২৮১ ম্যাচের মধ্যে একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ ২৪৪টি, টেস্ট ৯টি আর টি-টোয়েন্টি ২৮টি। শারজার আগে ২৮০ ম্যাচ নিয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ আয়োজনের তালিকায় শীর্ষে ছিলো সিডনি, সেখানে অনুষ্ঠিত হয়েছে ১১০ টেস্ট, ১৫৯ ওয়ানডে ও ১১ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।

এদিকে ২৭৮ ম্যাচ নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার আরেকটি ঐতিহ্যবাহী মাঠ মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড। চতুর্থ স্থানে রয়েছে জিম্বাবুয়ের হারারে স্পোর্টস ক্লাব (২৩৭ ম্যাচ) আর পঞ্চম স্থানে রয়েছে ঐতিহ্যবাহী লর্ডস ক্রিকএট গ্রাউন্ড (২২১ ম্যাচ)। এরপরের অবস্থানেই রয়েছে মিরপুরের হোম অব ক্রিকেট খ্যাত শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম। আগের পাঁচ স্টেডিয়ামের তুলনায় অনেক পরে যাত্রা শুরু হলেও হোম অব ক্রিকেটের মাটিতে এখন পর্যন্ত ম্যাচ আয়োজন হয়েছে ১৯৫টি। 

Source link