free hit counter
খেলা

শেষ দুই ওভারের ম্যাজিকে ইংল্যান্ডকে হারালো পাকিস্তান

এভাবেও জেতা যায় তাহলে। হারতে বসা ম্যাচে শেষ দুই ওভারের ম্যাজিকে ইংল্যান্ডকে ৩ রানে হারিয়ে সিরিজে সমতা ফেরালো পাকিস্তান। 

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) করাচি আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে পাকিস্তান-ইংল্যান্ডের মধ্যকার চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে হারিস রউফ ও মোহাম্মদ ওয়াসিমের বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে শ্বাসরুদ্ধকর এক জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান। 

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে পাকিস্তানকে দারুণ সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার বাবর আজম এবং মোহাম্মদ রিজওয়ান। ৯৭ রানের উদ্বোধনী জুটিতে ৩৬ রান করেন অধিনায়ক বাবর।



বাবর আউট হওয়ার পর ৬৭ বলে ৯ চার আর ১ ছক্কায় ওভার ৮৮ রান করেন রিজওয়ান। আগের ম্যাচে অর্ধশতক পাওয়া শান মাসুদ এদিন করেন ২১ রান। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তানের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৬৬ রান।

১৬৭ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা একেবারে ভালো হয়নি ইংল্যান্ডের। ১৪ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে ইংলিশরা। চতুর্থ উইকেটে ৪৩ রানের জুটি গরে সেই ধাক্কা সামাল দেন হ্যারি ব্রুক ও বেন ডাকেট।২৪ বলে ৩৩ রানে করে ডাকেট আউট হলেও ক্রিজের ওপর প্রান্তে অবিচল থাকেন ব্রুক। পঞ্চম উইকেটে মঈন আলীকে৪ নিয়ে গড়েন ৪৯ রানের জুটি। 

হঠাৎ করেই আবারও ছন্দপতন ইংল্যান্ডের। এক ওভারের ব্যবধানে দুইজনকেই হারালে ইংল্যান্ডের রান দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ১১৩। ২০ বলে ২৯ রান করে মোহাম্মদ নেওয়াজের বলে সাজঘরে ফেরেন মঈন আলী। ২৯ বলে ৩৪ রান করে ডাকেট আউট হন মোহাম্মদ ওয়াসিমের বলে। ১১ রানে করে ডেভিড উইলিও ফিরে যান হারিস রউফের বলে। ইংল্যান্ডের স্কোর দাঁড়ায় ৭ উইকেটে ১৩০।


ছবি- ইএসপিএন ক্রিকইনফো

সেখান থেকেই লিয়াম ডসন একাই প্রায় জিতিয়ে ফেলেছিলেন ইংলিশদের। শেষ দুই ওভারে মাত্র ৯ রান প্রয়োজন ছিলো জয়ের জন্য। ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলে চার মেরে ডসন সমীকরণ দাড় করায় ১০ বলে ৮ রান।  ইংল্যান্ডের জয় নিশ্চিত বলাই যায়। তবে তখনও হয়তো নিজের মনে অন্যকিছুই ভাবছিলেন পাকিস্তানি পেসার হারিস রউফ। তৃতীয় বলে ডসনকে ক্যাচ দেওয়ান বদলি নামা মোহাম্মদ হারিসের হাতে। ঠিক পরের বলেই বোল্ড করেন অলি স্টোনকে। পাকিস্তানকে মায়চে ফেরানো রউফ হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগালেও সেটি অবশ্য আর হয়নি।

সেহ ওভারে জয়ের জন্য ৪ রান লাগতো ইংল্যান্ডের। মোহাম্মদ ওয়াসিমের করা শেষ ওভারের প্রথম বলটি ডট গেলে পরের বলে রানের প্রাণপণ চেস্টা করেন রিচ টপলি। তবে কপাল খারাপ, সিঙ্গেল নিতে গিয়ে মিড-অনে থাকা শান মাসুদের ডিরেক্ট থ্রোতে রান আউট টপলি। অবিশ্বাস্য ভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ৩ রানে ম্যাচ জিতে নিয়ে পাকিস্তান।

এই জয়ে সাত ম্যাচ সিরিজের চতুর্থ ম্যাচ শেষে ২-২ এ সমতা আনল পাকিস্তান। দুর্দান্ত বোলিংয়ে দলকে জেতানোয় ম্যাচসেরার পুরস্কার পান হারিস রউফ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান: ২০ ওভারে ১৬৬/৪ (রিজওয়ান ৮৮, বাবর ৩৬, মাসুদ ২১; ডসন ৪-০-৩২-১, টপলি ৪-০-৩৭-২, উইলি ৪-০-৩১-১)

ইংল্যান্ড: ১৯.২ ওভারে ১৬৩ (ডাকেট ৩৩, ব্রুক ৩৪, মইন ২৯, ডসন ৩৪; নাওয়াজ ৪-০-৩৫-৩, হাসনাইন ৪-০-৪০-২, রউফ ৪-০-৩২-৩)

Source link

Bednet steunen 2023