free hit counter
লঙ্কায় পেসারদের ওপরেই ভরসা রাখছে বাংলাদেশ
খেলা

লঙ্কায় পেসারদের ওপরেই ভরসা রাখছে বাংলাদেশ

চলতি বছরে এখনো ভালো শুরু পায়নি শ্রীলঙ্কা। সফরকারী বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রতিকূলতার মুখোমুখি হবে জেনেই দুই টেস্ট শুরুর অপেক্ষায় লঙ্কানরা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে ২-০ ব্যবধানে হারের আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সমান ব্যবধানে সিরিজ হেরেছিল তারা। লঙ্কানদের সফলতা বলতে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই টেস্ট সিরিজ ড্র। সেই আত্মবিশ্বাস নিয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ শুরু করতে যাচ্ছে স্বাগতিকেরা।

অন্যদিকে আরও নাজুক অবস্থা টাইগারদের। টানা আট টেস্ট হারের ক্ষত নিয়ে লঙ্কা সফরে গেছে বাংলাদেশ। গত ৯ টেস্টের মধ্যে বাংলাদেশের জয় মাত্র একটিতে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। সফরকারীরা বুঝতে পারছেন, শ্রীলঙ্কায় ভালো করতে হলে দলের পেসারদের পারফরম্যান্সে এগিয়ে থাকতে হবে। দুই দিনের আন্তঃ স্কোয়াড ম্যাচে ৭ জন পেসারকে ব্যবহার করেছে বাংলাদেশ। তবে একমাত্র আবু জায়েদই সক্ষম হয় উইকেটের দেখা পেতে।

পাল্লেকেল্লের উইকেট পেস নির্ভর হবে মনে করেন সাবেক কোচ ও সফরকারী বাংলাদেশ দলের বর্তমান টিম লিডার খালেদ মাহমুদ সুজন। অনুশীলনে যা হোক না কেন পেসাররা এই উইকেটে ভালো করবে মনে করেন তিনি, ‘আমাদের পেস বোলাররা অনুশীলন ম্যাচে ভালো বল করেছে। তবে তা পার্টনারশিপে আমাদের যে রকম বল করার দরকার তা সেভাবে কার্যকর হবে না। আমরা পাল্লেকেলেতে খেলিনি। তবে যা বুঝছি, পেসাররা কিছুটা হলেও সহায়তা পেতে পারে এবং এখন তাদেরই সেই সুবিধাটা নিতে হবে।’

৭ পেসার নিয়ে লঙ্কা সফরে গেছে বাংলাদেশ। তাসকিন আহমেদ, খালেদ আহমেদ, এবাদত আহমেদ, আবু জায়েদ ছাড়াও দলে আছে তিন নতুন পেসার মুকিদুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম ও শরিফুল ইসলাম। বাংলাদেশ দলের হাই-পারফরম্যান্স ইউনিটের বোলিং কোচ চম্পাকা রমানায়েকও শ্রীলঙ্কায পেসারদের জ্বলে ওঠার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এখন অনেক ফার্স্ট বোলার আছে। টেস্টে সামঞ্জস্যপূর্ণ লাইন অ্যান্ড লেংথ খুবই গুরুত্বপূর্ণ যেকোনো কিছুর চেয়ে এবং মানসিকভাবে আপনাকে তার প্রতি প্রতিশ্রুতিশীল থাকতে হবে। আপনি কেমন প্রতিশ্রুতিশীল তার ওপরই সবকিছু নির্ভর করছে। কেন্ডির উইকেট স্পোর্টিং, তাই পেসাররাও সুযোগ তৈরি করতে পারবে। প্রেরণা এবং বিশ্বাস হলো সফলতার মূলমন্ত্র।’

এ ছাড়া ফোকাস থাকবে বাংলাদেশের স্পিনারদের ওপরেও। টাইগারদের স্পিন আক্রমণে নেতৃত্ব দেবেন তাইজুল ইসলাম। সাকিব আল হাসান না থাকায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বটা বর্তাতে পারে মেহেদি হাসান, নাঈম হাসান এবং শুভাগত হোমের ওপরেও।

২১ এপ্রিল, কেন্ডির পাল্লেকেল্লেতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট হবে ২৯ এপ্রিল, একই ভেন্যুতে।

Related posts

দুই সেশনে ৫ উইকেট নিয়ে চালকের আসনে বাংলাদেশ

News Desk

হোয়াইটওয়াশ করতে না পারার আক্ষেপ নিয়ে বড় হার বাংলাদেশের

News Desk

২ রানে সাকিবের বিদায়, ১৫ রানে ৪ উইকেট নেই মোহামেডানের

News Desk