Image default
খেলা

“যার শুরু আছে তার শেষ আছে”

ক্রিকেট মাঠে এখন শুধু মাহমুদুল্লাহ রিয়াদই খেলাধুলা করছেন। মার্চে ইংল্যান্ড সিরিজের পর থেকেই মাঠের বাইরে রয়েছেন টাইগার অলরাউন্ডার। তাকে ছাড়াই শেষ এশিয়ান কাপেও দল ঘোষণা করা হয়। এশিয়ান কাপে না থাকায় বলা যায় আগামী বিশ্বকাপে তিনি অংশ নেবেন না। মূলত এই দল ঘোষণার পর থেকেই শুরু হয় আলোচনা। কিন্তু হঠাৎ করেই কিছুটা আশা দেখা দিয়েছে মাহমুদউল্লাহকে। শুনেছেন তিনি এখনও টাইগারদের বিশ্বকাপ নিয়ে ভাবছেন। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান তানভীর আহমেদ টিটোও এ বিষয়ে আশার বাণী দিয়েছেন।

শুক্রবার মিরপুরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হওয়ার সময়, বিসিবির এই সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছিলেন যে কেউ আহত হলে বিশ্বকাপ দলে যারা রিজার্ভ ক্রিকেটার হবেন তাদের মধ্যে মাহমুদউল্লাহ ডাক পেতে পারেন। টিটো বলেছেন: “আপনারা সবাই জানেন যে আমাদের প্রধান নির্বাচক রিয়াদ সম্পর্কে আমাদের বলেছেন। ফলস্বরূপ, আমরা সবসময় ক্রিকেট বোর্ড হিসাবে ক্রিকেটার তৈরি থেকে খেলা পর্যন্ত কাজ করেছি। কীভাবে ক্রিকেট সেই প্রক্রিয়ায় শূন্য থেকে স্তর পর্যন্ত কাজ করে। সবকিছুই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে। মাহমুদউল্লাহ রিয়াজের ক্ষেত্রে যা ঘটেছে তা ইতিমধ্যেই আলোচনার মধ্যে রয়েছে, এবং এটি সেভাবে আলোচনা করা হয়েছে বলে মনে হয় না। যার শুরু আছে তার শেষ আছে। তাই প্রত্যেক ক্রিকেটারকে মাঝে মাঝে জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। , এবং কখনও কখনও বাদ পড়েন৷ ফলস্বরূপ, তিনি অভ্যস্ত হওয়ার প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যান৷ যদি বিশ্বকাপে টিম ম্যানেজমেন্ট মনে করে যে কোনও রিজার্ভ প্লেয়ার ইনজুরিতে পড়েছে এবং যদি কোনও ক্রিকেটারকে তার জায়গায় নেওয়ার প্রয়োজন হয় তবে রিয়াজ সেখানে থাকতে পারেন৷



জাতীয় দলের হয়ে শেষবার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ খেলেছিলেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। ওই সিরিজের পর আর দলে সুযোগ পাননি তিনি। ৩৮ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের ফেরার সম্ভাবনাও খুব কম। বোর্ড তাকে কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দিতে চাচ্ছে বলে আলোচনা চলছে। ক্রিকেটের নিয়ম মেনেই চলবে বলেও জানান টিটো। একজন ক্রিকেটার যদি এক বছরের জন্য জাতীয় দলের বাইরে থাকেন, তাহলে তার চুক্তির মেয়াদ ৬ মাসের মধ্যে শেষ হয়ে গেলেও চুক্তি নবায়ন না করার নিয়ম আছে। কারণ আমি আপনাকে এভাবে বলতে চাই, সম্ভবত আপনি একটি দায়িত্বে আছেন, আপনি যদি এই দায়িত্বে না থাকেন তবে চুক্তিটি কতদিনের মধ্যে নবায়ন হবে? সব কিছু নিয়ম মেনে চলবে। সবকিছুই হবে ক্রিকেটের নিয়ম অনুযায়ী।


বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তানভীর আহমেদ টিটো।

দলে জায়গা করে নেওয়া এবং দল থেকে বাদ পড়ার নিয়ম উল্লেখ করে মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘মাহমুদুল্লাহ রিয়াজের কথা বললে বাংলাদেশি ক্রিকেটে তার অবদান কখনোই প্রত্যাখ্যান হবে না এবং হবে না। সমাপ্ত তবে একটা কথা আছে, কারণ মাহমুদ আল্লাহ রিয়াদ একবার দলে যোগ দিলে নিয়ম অনুযায়ী তাকে দল থেকে বাদ দেওয়া হবে। এটা দুঃখজনক কিন্তু সত্য। এটাই নিয়ম। এভাবেই সংসার চলে। সেই নিয়ম থেকে বাদ। তাই দুঃখ হবে, তার খারাপ লাগবে কারণ তার মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আমাদের এখানে নেই। একসময় মাহমুদউল্লাহ ছিলেন না। তিনিও, কেউ একজনের দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়েছিল। সেই সময় যারা বাদ পড়েছিল তাদের জন্য আমার খারাপ লাগছিল।

এদিকে টাইগারদের স্কোয়াড থেকে আটজন খেলোয়াড়কে প্রস্তুত করার পরিকল্পনা করেছে বিসিবি। তাদের মধ্যে মাহমুদউল্লাহ রয়েছেন, এশিয়ান কাপ এবং পরবর্তী নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য কোনো পরিবর্তন প্রয়োজন হলে সেই খেলোয়াড়দের দলে জায়গা দেওয়া হবে।

এ প্রসঙ্গে সিনিয়র স্পেশালিস্ট মিনহাজুল আবিদীন নানো গণমাধ্যমকে বলেন, ‘৮ জন ক্রিকেটারের তালিকা উপস্থাপন করা হবে। তারা ঢাকায় প্রশিক্ষণ নেবেন। বলতে পারেন, তাদের নিয়ে আলাদা ট্রেনিং ক্যাম্প হবে। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে অনুশীলন চালিয়ে যাবে তারা। সেজন্য কেউ আঘাত পেলে বিকল্প ব্যবস্থা আছে।

Source link

Related posts

প্রিমিয়ার লিগের খেলা ঢাকাতেই

News Desk

ডারবান টেস্ট: প্রথম দিন সমান লড়াই

News Desk

ব্রাজিলকে টপকানোর সুযোগ হারাল কলম্বিয়া

News Desk

Leave a Comment