Image default
খেলা

মেসি দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন করে, এবং মিয়ামি টাইব্রেকারে জিতেছিল

প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ স্টেডিয়ামে ইন্টার মিয়ামির শার্টে। সেই ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন বিশ্বকাপ জয়ী আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি লিওনেল মেসি। মিয়ামির জার্সিতে এরই মধ্যে ৩ ম্যাচে ৫ গোল করা মেসি প্রথমবারের মতো প্রতিপক্ষের কোর্টে গেলেন। এফসি ডালাসের বিপক্ষে লিগ কাপে মেসির খেলা দেখার 10 মিনিটের মধ্যে সব টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। ভক্তদের উন্মাদনা বৃথা যায়নি। পুরো ম্যাচ জুড়েই মেসিদের মন্ত্রমুগ্ধ হয়েই থেকেছেন তারা। ডালাসের কাছে হারের পর, মিয়ামি মেসির জাদুতে খেলাটি টাই করে, তারপর ডেভিড বেকহ্যামের দল টাইব্রেকারে জিতে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে।

আজ সোমবার (৭ আগস্ট) প্রতিপক্ষের স্টেডিয়ামে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমে ম্যাচের শুরুতেই গোল করেন মেসি। এর মাধ্যমে, মিয়ামির জার্সি গায়ে তিনটি খেলায় শুরুর লাইন আপের 10 মিনিটের মধ্যে গোল করেন আর্জেন্টাইন জাদুকর।

ডালাস স্কোয়ারে ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে জর্দি আলবার পাস থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মেসি। বার্সেলোনার সাবেক তিন সতীর্থ মেসি বুস্কেটস আলবা প্রথমবারের মতো মিয়ামির জার্সিতে একসঙ্গে মাঠে নামেন। খেলার শুরুতেই পুরনো মেসি আলবার রসায়নে ডালাসের বিপক্ষে এগিয়ে নেয় মিয়ামি।



খেলার শুরুতে ডালাস তাদের খেলার ধরন পরিবর্তন করে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে। এতে তারা খুবই সফল। মেসির গোলে লিড নিলেও প্রথমার্ধে দুই গোল হারানোর পর মায়ামি ২-১ গোলে পিছিয়ে পড়ে।

দ্বিতীয়ার্ধে খেলতে গিয়ে মিয়ামির বিপদ বেড়ে যায়। 63তম মিনিটে ডালাসের হয়ে আরেকটি গোল করে অ্যালান ভেলাসকো 3-1 করে।

কিন্তু ৬৫ মিনিটে আলবার পাসে মায়ামির হয়ে একজনকে ফিরিয়ে দেন বেঞ্জামিন ক্রেমাশচি। তবে তিন মিনিট পর আবার বিপদ বেড়ে যায়। পাল্টা আক্রমণে বল ক্লিয়ার করার সময় মিয়ামির ফরোয়ার্ড রবার্ট টেইলর নিজের জালে বল জড়ান। 4-2 পিছিয়ে পড়ার পর অনেকেই ভেবেছিলেন মিয়ামি লিগ কাপ থেকে বাদ পড়বে।

কিন্তু তখনো মাঠে মেসি ছিলেন, তাই হাল ছাড়েননি মায়ামি। আর্ম ব্যান্ডটা আরেকটু শক্ত করে আবার শুরু করলেন। আর মেসি যখন তার মুগ্ধতা দেখাতে শুরু করেন, তখন প্রতিপক্ষের বিস্ময়ে তাকানো ছাড়া উপায় থাকে না।


ছবি: কোলাজ

ম্যাচের শেষ অংশে মেসির ফ্রি কিক থেকে দুটি গোল। অবশ্যই, আত্মহত্যার প্রবণতা ছিল। ম্যাচের ৮০তম মিনিটে ডালাসের লেফট-ব্যাক মার্কো ভারফামিনোট মেসির ফ্রি কিক দিয়ে বল জালে জড়ান। আর মাত্র পাঁচ মিনিট পরেই ডালাসের বিপক্ষে দুর্দান্ত ফ্রি কিক দিয়ে গোল করেন মেসি।

মিয়ামি খেলাটিকে টাইব্রেকারে নিয়ে যায় কারণ সিন মেসির জাদুতে একটি অত্যাশ্চর্য প্রত্যাবর্তন লিখেছিল। সেখানে মিয়ামি ডালাসকে ৫-৩ গোলে হারিয়ে লীগ কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে। মিয়ামির হয়ে 4 ম্যাচে মেসি 7 গোল করেন এবং দলটি তার টানা চতুর্থ জয় অর্জন করে।

আমরা ইয়েলোকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে যাচ্ছি

Source link

Related posts

রাবাদা-মিলার বিহীন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জিতল পাকিস্তান

News Desk

Scottie Scheffler PGA চ্যাম্পিয়নশিপ ক্লিঞ্চ ভিডিওতে ‘সাহায্যের’ জন্য আবেদন করেছেন

News Desk

চিফস শর্টস্টপ অ্যান্ডি রিড রয়্যালসের উদ্বোধনী দিনে নিখুঁত উদযাপনের প্রদর্শনে মুগ্ধ

News Desk

Leave a Comment