free hit counter
বড় জয়ে মেসির জোড়া গোল
খেলা

মেসির জোড়া গোলে বড় জয় বার্সেলোনার

লা লিগায় বৃহস্পতিবার ক্যাম্প ন্যুতে বার্সেলোনা ৫-২ গোলে হারিয়েছে গেতাফেকে। লিওনেল মেসির জোড়া গোলে গুরুত্বপূর্ণ জয় পায় বার্সেলোনা। এই জয়ে ৩১ ম্যাচ শেষে ৬৮ পয়েন্টে শিরোপা রেসে ভালোভাবেই টিকে রইল কাতালানরা। তারা আছে তৃতীয় স্থানে। একই দিন আতলেতিকো মাদ্রিদ ২-০ গোলে হারিয়েছে হুয়েস্কাকে। ৩২ ম্যাচে ৭৩ পয়েন্টে শীর্ষে ডিয়েগো সিমিওনের দল। ৩২ ম্যাচে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে রিয়াল রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। সমান ম্যাচে ৬৭ পয়েন্টে চারে সেভিয়া।

শিরোপা জিততে শীর্ষ তিনের পরের ম্যাচগুলোতে জয় ছাড়া বিকল্প নেই। চারে থাকা সেভিয়াকেও পিছিয়ে রাখা যাচ্ছে না। গেল সপ্তাহে অ্যাথলেটিক বিলবাওকে হারিয়ে কোপা দেল রে শিরোপা নিজেদের করে নেন মেসিরা। কোপা দেল রে’র শিরোপা জয়ের জন্য মাঠে কাতালান দলকে গার্ড অব অনার দেয় গেতাফে। তবে সুপার লিগের প্রতিবাদে টি-শার্টও গায়ে চড়িয়েছিলেন দলটির খেলোয়াড়রা। সুপার লিগের উদ্যোগ মাঠে মারা গেলেও বার্সা এখনো এই উদ্যোগ থেকে নাম প্রত্যাহার করেনি। এর মধ্যেই মেসির চমকে বড় জয় উদযাপন করেছে দলটি। লিগের আগের ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারের পর বৃহস্পতিবার শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ছিল স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৮ মিনিটে সার্জিও বাসকুটসের পাস থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন মেসি। ১২ মিনিটে ক্লেমেন্ট লেংলেটের আত্মঘাতী গোলে সমতায় ফেরে গেতাফে। যদিও আরেক আত্মঘাতী গোলে লিড পুনরুদ্ধার করে বার্সা। ২৮ মিনিটে গেতাফের হয়ে ভুলটি করেন সোফিয়ান চাকলা। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল করে বার্সাকে ৩-১ গোলে এগিয়ে নেন মেসি। ৬৯ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কমায় গেতাফে। তবে ৮৭ মিনিটে মেসির কর্নার থেকে বল পেয়ে আরাউজো গোল করেন। যোগ করা সময়ে আন্তোইন গ্রিজমান ৫-২ গোলে জয় নিশ্চিত করে বার্সার।

চলতি মৌসুমে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলে মেসির গোলসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৩। লিগে করেছেন ২৫ গোল।

ম্যাচশেষে বার্সার কোচ রোনাল্ড কোম্যান বলেন, ‘সে (মেসি) বিশ্বসেরা। কখনো হাল ছেড়ে দেয় না। আশা করি সে আরও অনেক বছর থাকবে।’ ম্যাচে বড় জয় পেলেও পুরোপুরি সন্তুষ্ট নন কোম্যান। বলেন, ‘দ্বিতীয়ার্ধে আমাদের কিছুটা কঠিন সময় কেটেছে। তবে শেষ পর্যন্ত এটা ভালো ফল বলে আমি মনে করি। প্রথমার্ধটা ছিল খুব ভালো, দল লক্ষ্যে স্থির ছিল। দ্বিতীয়ার্ধে খেলোয়াড়রা মনোযোগ ধরে রাখতে পারেনি এবং একটা সময় ৩-২ হয়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি জটিল হয়ে গিয়েছিল।’

এদিকে নিজেদের মাঠে আতলেতিকোর হয়ে গোল করেছেন অ্যাঞ্জেল কোরেয়া ও ইয়ানিক ক্যারাসেস্কার। এ ম্যাচ জয়ে আবারো এককভাবে শীর্ষস্থান ফিরে পেয়েছে আতলেতিকো। গত বুধবার রিয়াল মাদ্রিদ নিজেদের ম্যাচে জয় পাওয়ায় ৭০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছিল।

Related posts

ডি স্টেফানো- বিশ্বকাপ না খেলা এক কিংবদন্তির গল্প

News Desk

জার্মানির দায়িত্বে মেসিকে কাঁদানো আরেক কোচ

News Desk

অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে ডাগ আউটে থাকা হচ্ছেই না কোম্যানের

News Desk