free hit counter
খেলা

ফের শুরুতেই হোঁচট মুম্বাইয়ের , নাটকীয় ম্যাচে শেষ বলে মুম্বইকে হারাল আরসিবি

আইপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পরাজয়ের ধারা অব্যাহত রইল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের। এই নিয়ে টানা ৯ বছর প্রথম ম্যাচে পরাস্ত হলো আইপিএলের সফলতম দল। শুরু থেকেই নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে রোহিত শর্মাদের চাপে রাখে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। এরপর হর্ষল প্যাটেলের বিধ্বংসী স্পেল আর বিরাট কোহলি ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের জুটিতে জয়ের ভিত তৈরি হয়। যদিও একটা সময় দ্রুত উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছিল আরসিবি। তবে অভিজ্ঞ এবি ডি ভিলিয়ার্সের দুরন্ত ব্যাটিংয়ে স্নায়ুযুদ্ধ ২ উইকেট জিতল আরসিবি। ডেথ ওভারে বিপজ্জনক জশপ্রীত বুমরাহকে এবি সামলালেন পরিকল্পিত ব্যাটিংয়ে। শেষ ওভারে দরকার ছিল ৭। চতুর্থ বলে দুই রান নিতে গিয়ে ২৭ বলে ৪৮ রান করে রান আউট হন এবি। শেষ দুই বলে দরকার ছিল ২। জয় এলো শেষ বলে।

দুর্ধর্ষ মেজাজে ব্যাট করলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স (সূত্রঃ আইপিএল )

বহুদিন পর টস জিতে প্রথমেই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছিলেন বিরাট কোহলি। এদিন কয়েন তোলেন রোহিত শর্মা, বিরাট হেড কল করেন। টস জিতে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে ব্যাট করতে পাঠান আরসিবি অধিনায়ক। শুরু থেকেই নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রানের বেশি এগোতে পারেনি মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। শেষ ওভারে একটি রান আউট-সহ চার উইকেট পড়ে। হর্ষল প্যাটেল ওই ওভারে তিন উইকেট নেন, খরচ করেন মাত্র ১ রান। ২৭ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট নেন হর্ষল প্যাটেল। টি ২০ ম্যাচে তাঁর কেরিয়ারের প্রথম পাঁচ উইকেট, মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধেও তাঁর আগে কেউ কোনও ম্যাচে পাঁচ উইকেট নেননি।

শেষ চার ওভারে ৫ উইকেট খুইয়ে রোহিতের দল মাত্র ২৪ রানই তুলতে সক্ষম হয়। ৩৫ বলে সর্বাধিক ৪৯ রান করেন ক্রিস লিন। সূর্যকুমার যাদব ৩১ ও ঈষান কিষাণ ২৮ রান করেন। এই ম্যাচে অভিষেক হওয়া ক্রিস লিনের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে এবং কোহলির ক্ষিপ্রতায় ১৯ রানে রান আউট হন রোহিত শর্মা। শেষ ওভারের প্রথম দুই বলে হর্ষলের শিকার হন যথাক্রমে ক্রুণাল পাণ্ডিয়া ও কায়রন পোলার্ড। চতুর্থ বলে বোল্ড হন মার্কো জেনসেন। শেষ বলে রান আউট হন রাহুল চাহার। কাইল জেমিসন ও ওয়াশিংটন সুন্দর নেন একটি করে উইকেট। তবে বাংলার শাহবাজ আহমেদ ১ ওভারে ১৪ রান দেওয়ার পর তাঁকে দিয়ে আর বোলিং করানোর ঝুঁকি নেননি বিরাট। নিজের শততম ম্যাচে ৪ ওভারে ৪১ রান দিয়েও কোনও উইকেট পাননি যুজবেন্দ্র চাহাল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স: ২০ ওভারে ১৫৯/৯ (ক্রিস লিন ৪৯, সূর্যকুমার যাদব ৩১, হর্ষল প্যাটেল ৫/২৭)

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর: ২০ ওভারে ১৬০/৮ (এবিডি ৪৮, ম্যাক্সওয়েল ৩৯, বুমরাহ ২/২৬)

ফলাফল : আরসিবি দু’উইকেটে জয়ী।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ: হার্শাল প্যাটেল

Related posts

ফাইনালের আগে করোনা আতঙ্কে কোহলিরা

News Desk

সাকিব-মুস্তাফিজ কবে ফিরবেন জানেন না

News Desk

এক নজরে আইপিএলে পার্পেল ক্যাপ জয়ীরা

News Desk