free hit counter
খেলা

মর্গ্যানের হাত ধরে ট্রফি ঘরে ফেরাতে মরিয়া কেকেআর

টানা ছয় বছরের ব্যর্থতা ভুলে এবার কি সাফল্যের সিঁড়িতে উঠতে পারবে কেকেআর? উত্তরের জন্য অপেক্ষা করতে হবে আগামী দেড় মাস৷ কোয়ারেন্টাইন কাটিয়ে মাঠে নেমে পড়েছে আইপিএলের প্রতিটি দল৷ ব্যতিক্রম নয় কিং খানের কলকাতা নাইট রাইডার্স৷ ইয়ন মর্গ্যানের হাত ধরে আইপিএলের তৃতীয় ট্রফি ঘরে তুললে মরিয়া কেকেআর৷

ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়কের হাত ধরে ‘ওল্ড ম্যাজিক’ ফেরাতে চাইছে দু’বারের চ্যাম্পিয়ন কলকাতা৷ মরু শহরে গত আইপিএলে ভালো ফল করতে পারেনি কেকেআর৷ টুর্নামেন্টের মাঝপথে নেতৃত্ব বদলেও ভাগ্য ফেরেনি কিং খানের দলের৷ দীনেশ কার্তিকের থেকে নেতৃত্বের ব্যাটন উঠেছিল মর্গ্যানের হাতে৷ কিন্তু প্লে-অফের টিকিট হাতে পায়নি নাইটরা৷ ১৪ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে শেষ করেছিল কলকাত৷

ইয়ন মর্গ্যান
ছবিঃ ইয়ন মর্গ্যান

গত আইপিএলেই নয়, টানা দু’ মরশুম প্লে-অফে উঠতে পারেনি কেকেআর৷ চতুর্দশ সংস্করণে অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যে ভর করে এবার ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া কিং খানের দল৷ কোয়ারেন্টাইন থেকে দলের বায়ো-বাবলে ঢুকে পরেই হুঙ্কার কেকেআর-এর ক্যারিবিয়ান সুপারস্টার আন্দ্রে রাসেলের৷ মাঠে নেমেই সমর্থকদের উদ্দেশে ‘ড্রে রাস’-এর বার্তা এবার দল ঘুরে দাঁড়াবেই।

২০১২ ও ২০১৪ আইপিএলে নাইটরা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল গৌতম গম্ভীরের হাত ধরে৷ কিন্তু তারপর গত ছ’ বছরে ভাঁড়ার শূন্য৷ এ বার কি চাকা ঘুরবে? আত্মবিশ্বাসের সুর রাসেলের গলায়৷ রাসেল বলেন, ‘আমি ম্যাচ খেলার জন্য মুখিয়ে আছি। সত্যি বলতে এবার শুরু থেকেই দারুণ অনুভূতি হচ্ছে। সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটাতে আমরা বদ্ধপরিকর। ওদের জন্য এবারের ট্রফিটা জিততে চাই।’

১১ এপ্রিল চিপকে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে এবারের আইপিএল অভিযান শুরু করছে কেকেআর৷ গত আইপিএলে চেনা ছন্দে পাওয়ানি নাইটদের ক্যারিবিয়ান তারকাকে৷ শেষবার রাসেলের ব্যাট জ্বলে উঠেছিল ২০১৯ আইপিএলে৷ দ্বাদশ আইপিএলে ১৪ ম্যাচে ৫১০ রান করেছিলেন রাসেল। গড় ৫৬.৬৬। স্ট্রাইকরেট ২০৪.৮১। সর্বোচ্চ ৮০ করেছিলেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে৷ ব্যাটের পাশাপাশি বল হাতে তুলে নিয়েছিলেন ১১টি উইকেট। কিন্তু মরু শহরের আইপিএলে ১০ ম্যাচে মাত্র ১১০ রান করেছিলেন রাসেল।

নাইটদের এবারের আইপিএল সফরে বড় ভূমিকা নিতে পারেন দুই অভিজ্ঞ খেলোয়াড় হরভজন সিং ও শাকিব আল হাসান৷ এবারের নিলামে ভাজ্জিকে কিনেছে কেকেআর৷ মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংসের জার্সিতে ১৫০টি আইপিএল উইকেট রয়েছে হরভজনের৷ করোনা আবহে গত আইপিএলে খেলেননি ভাজ্জি৷ এবার নাইটদের জার্সিতে নিজেকে নিঙড়ে দিতে চান টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অফ-স্পিনার৷

এছাড়া এবছর কেকেআরের জার্সি গায়ে চাপিয়েছেন শাকিব৷ ২০১২ ও ২০১৪ সালে নাইটদের দু’বারের আইপিএল জয়ী দলের সদস্য ছিলেন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার৷ ২০১৯ সালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দলের জার্সিতে খেললেও নির্বাসনের কারণে গত আইপিএলে খেলেননি শাকিব৷ নাইটদের বোলিংকে নেতৃত্বে দেবেন অজি পেসার প্যাট কামিন্স৷ এছাড়াও পেস বিভাগে নাইটদের শক্তি লকি ফার্গুসন, প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা, শিভম মাভি, কমলেশ নাগোরকোটি ও সন্দীপ ওয়ারিয়র৷ আর স্পিন বিভাগে হরভজনের সঙ্গে রয়েছেন কুলদীপ যাদব, শাকিব আল হাসান এবং মিস্ট্র স্পিনার বরুণ চক্রবর্তী৷

কলকাতা নাইট রাইডার্স: ইয়ন মর্গ্যান (ক্যাপ্টেন), দীনেশ কার্তিক, শুভমন গিল, নীতিশ রানা, টিম সেফার্ট, রিঙ্কু সিং, আন্দ্রে রাসেল, সুনীল নারি, কুলদীপ, যাদব, শিভিম, প্যাট কামিন্স, লকি ফার্গুসন, প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা, শিভম মাভি, কমলেশ নাগোরকোটি ও সন্দীপ ওয়ারিয়র, রাহুল ত্রিপাঠি, হরভজন সিং, কুলদীপ যাদব, শাকিব আল হাসান, বরুণ চক্রবর্তী, বেন কাটিং, শেলডন জ্যাকসন, করুণ নায়ার, ভেঙ্কটেশ আইয়ার ও পবন নেগি৷

 

তথ্য সূত্রঃ কলকাতা২৪৭

 

Related posts

অস্ট্রেলিয়া সিরিজ বাতিল করলো আফগানদের সঙ্গে

News Desk

কলকাতায় কি ফিরছেন নারিন?

News Desk

আইপিএলের জৈব নিরাপত্তা বলয় আরো কঠোর হল

News Desk