free hit counter
খেলা

ভারতের ‘ফেক ফিল্ডিং’ নিয়ে যা বললেন শ্রীরাম

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের ৫ রানে হারের পর আলোচনায় ‘ফেক ফিল্ডিং’ এবং ভেজা মাঠে খেলানো। বিষয় দুটো নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভারতীয় দল ও আইসিসিকে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা করছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। ভেজা মাঠে খেলানোর চেয়ে ফেক ফিল্ডিং নিয়েই আলোচনা বেশি। যদিও বাংলাদেশ দলের কেউই এটাকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাতে চান না। দলের টেকনিক্যাল কনসালটেন্ট শ্রীধরন শ্রীরাম যেমন স্পষ্ট করিই জানিয়ে দিলেন, এখানে তারা অজুহাত দিতে আসেননি।

পাকিস্তান ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে শ্রীরামের কাছে সাংবাদিকদের প্রথম প্রশ্নই ছিল, ফেক ফিল্ডিং নিয়ে। জবাবে স্পষ্ট করে শ্রীরাম বলেছেন, ‘আমরা এখানে কোনও অজুহাত দিতে আসিনি। আমি চতুর্থ আম্পায়ারের সঙ্গে ঘটনা হওয়ার পরপরই কথা বলেছিলাম। আমার মনে হয়, এটা মাঠের আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত, আমাদের এমনই বলেছে। এখানে কোনও অজুহাত দিতে চাই না।’

বৃষ্টি নামার আগে নাজমুল হোসেন শান্ত ও লিটনের ডাবলস নেওয়ার সময় ফেক ফিল্ডিং করেছিলেন বিরাট কোহলি। ঘটনাটি ষষ্ঠ ওভারে। বোলিং করছিলেন ভারতের বাঁহাতি স্পিনার অক্ষর প্যাটেল। ওই ওভারে বল না ধরেই কোহলি থ্রো করার ভান করেন। সেটি দেখেন নাজমুল হোসেন শান্ত। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ৫ রান পাওয়ার জন্য আম্পায়ার মারাইস এরাসমাসের কাছে ছুটে যান। কিন্তু আম্পায়ার সাড়া পাননি। উল্টো আম্পায়ার নাকি বলে দেন, ‘আমার চোখে তো পড়েনি।’

ফেক ফিল্ডিং নিয়ে কথা না বললেও ভারতের বিপক্ষে দলের দারুণ পারফরম্যান্সে খুশি শ্রীরাম, ‘ম্যাচের আগে যদি কেউ বলতো, আমরা ভারতের সঙ্গে ৫ রানে হারবো। এটা যে কেউ মেনে নিতো। আমার মনে হয় ভারতকে হারানোর মতো একটা জায়গায় চলে গিয়েছিলাম আমরা। কিন্তু প্রতিদিন লাইনটা পার করতে পারবো না। কিন্তু এত কাছে আসা ছেলেদের অনেক আত্মবিশ্বাস দিয়েছে।’

ভারতের কাছে হারে সেমিফাইনালের যাওয়ার পথটা কঠিন হয়ে গেছে বাংলাদেশের। রবিবার পাকিস্তানের বিপক্ষে জিতলেও অনেক সমীকরণ মিললেই কেবল সেমিফাইনালে যাওয়া সম্ভব। বাংলাদেশ দল সেইসব ভাবনা না ভেবে পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়াই করতে মরিয়া। পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়াই হবে জানিয়ে শ্রীরাম বলেছেন, ‘আমার মনে হয় পাকিস্তান খুব ভালো দল। নিউজিল্যান্ডে তাদের বিপক্ষে দুই ম্যাচেই আমাদের সুযোগ ছিল। তারা জানে আমাদের শক্তির জায়গা, আমরাও তাদেরটা জানি। আগামীকাল একটা ভালো লড়াই হবে।’

শ্রীরামের অধীনে বাংলাদেশের সাফল্যের পরিসংখ্যান উজ্জ্বল হয়নি। তার অধীনে ১২ ম্যাচ খেলে দলটির জয় মাত্র চারটিতে। তবে কাজের মেয়াদের শুরু থেকেই ম্যাচের ফল সর্বোচ্চ গুরুত্ব পাচ্ছে না শ্রীরামের কাছে।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশে নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে শ্রীরাম বলেছেন, ‘এখন আমার লক্ষ্য হচ্ছে, বিশ্বকাপটা ভালোভাবে শেষ করা। আমার নজর কেবল সেদিকেই। বেশি দূরের কিছু নিয়ে চিন্তা করিনি।’

Bednet steunen 2023