free hit counter
খেলা

ভারতকে হারিয়েই গ্রুপ সেরা হতে চায় বাংলাদেশ

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের গ্রুপের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলেছে বাংলাদেশ আর ভারত। নিজেদের মধ্যে গ্রুপের শেষ ম্যাচে নির্ধারণ হবে কে হতে যাচ্ছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। গ্রুপ সেরা হয়ে সেমিতে উঠলে এড়ানো যাবে অন্য গ্রুপের সেরা দল নেপালকে। গ্রুপ সেরা হওয়ার লড়াইয়ে কেউ কাউকে ছাড় দিতে চান না বাংলাদেশ-ভারতের মেয়েরা।

অধিনায়ক সাবিনা খাতুনের হ্যাটট্রিকে পাকিস্তানকে ৬-০ গোলে হারানোর পর আজ সকালে কাঠমান্ডুর আর্মি হেডকোয়ার্টার্স মাঠে অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ নারী দলের সদস্যরা। পরের ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারতের বিপক্ষে নিজেদের সেরাটা দেওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টাই করছেন সাবিনা-সানজিদারা।

ভারতকে হারিয়েই উৎসব করার ইঙ্গিত দিয়ে বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ‘এখনই কোন আত্মতুষ্টি নয়। এটা মেয়েরা জানে। ২০১৫ সালে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতার পরও কোন উৎসব করেনি মেয়েরা। এবারও তাই।’

সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসে এর আগে কখনোই ভারতকে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। দুই দলের সাতবারের মোকাবিলায় একবার মাত্র ড্র করেছিলো বাংলাদেশ। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে আগের পাঁচ আসরেই টানা শিরোপা জিতেছে ভারত।



তবে শক্তিশালী ভারত বধের স্বপ্নই দেখছেন লাল-সবুজের জার্সিধারীরা। চলমান আসরে এ-গ্রুপে আগের দুটি ম্যাচই জিতেছে দুই দল। সমান ছয় পয়েন্ট করে সংগ্রহ করলেও গোল ব্যবধানে বাংলাদেশের (+৯) চেয়ে এগিয়ে রয়েছে ভারত (+১২)। আগামী মঙ্গলবার গ্রুপের শেষ ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে এ- গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে বি-গ্রুপের সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়ন শক্তিশালী নেপালকে এড়ানো যাবে। যে কারণে ভারতকে হারানোর জন্য মুখিয়ে রয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা।

ভারতকে হারানোর স্বপ্ন পূরণ করতে নিজেদের মধ্যে খুঁটিনাটি আলোচনা আর পরিকল্পনাও করতেও দেখা গেছে সাবিনা খাতুন, সানজিদা আক্তার, আঁখি খাতুন আর রুপনা চাকমাদের।

এ প্রসঙ্গে অধিনায়ক সাবিনা বলেন,‘আমরা আসলে (ভারতকে হারিয়ে) নিজেদের স্বপ্ন পূরনের জন্য পরস্পরকে কিভাবে সহযোগিতা করা যায় সেটি নিয়েই কথা বলেছি।’

তবে ভারতকে হারানোর এই ইচ্ছা খুব সহজে পূরণ হবে না বাংলাদেশের। মালদ্বীপের বিপক্ষে ৯-০ গোলের বিশাল ব্যবধানে জয়লাভের পর ভারতের কোচ সুরেন ছেত্রী জানিয়েছেন, ‘বাংলাদেশের বিপক্ষে তৃতীয় ম্যাচটি জিতে নিতে চাই আমরা। চেষ্টা থাকবে বাংলাদেশকে চাপে ফেলে সুবিধা আদায় করে নেওয়ার। এই মুহুর্তে আমরা সুবিধাজনক অবস্থানে আছি। বাংলাদেশের বিপক্ষে ড্র করতে পারলেও আমরা গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারব। সুতরাং এখন থেকেই বাংলাদেশ চাপে পড়ে গেছে।’

ভারতের কোচের এমন কথার জবাবে বাংলাদেশ কোচ বলেন, ‘গত দুই ম্যাচে সাবিনারা যে ফুটবল খেলেছে, তাতে আমার মনে হয়, আমাদের বিপক্ষে যে কোন দলই চাপে থাকবে।’

আগের দুই ম্যাচ দুর্দান্তভাবে জিতে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করায় ভারতের বিপক্ষেও জয় তুলে নিতে বেশ আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। তিনি বলেন, ‘আমরা মালদ্বীপের বিপক্ষে ভারতের ম্যাচ দেখেছি। বিরতির আগে চার গোল দিয়েছিল তারা। কিন্তু মালদ্বীপের গোলরক্ষক আমিনাথ লিজা ইনজুরিতে পড়ার পরও মাঠ ছাড়েনি। ওর জন্যই এতগুলো গোল (৯-০ গোল) হজম করেছে মালদ্বীপ। এতে বাড়তি সুবিধা আদায় করে নিয়েছে ভারত। সমান পয়েন্ট থাকলেও গোল পার্থক্যে আমাদের চেয়ে এগিয়ে গেছে তারা।’

Source link