free hit counter
বেলদের উড়িয়ে ১৭ বছর পর কোয়ার্টারে ডেনমার্ক
খেলা

বেলদের উড়িয়ে ১৭ বছর পর কোয়ার্টারে ডেনমার্ক

গ্রুপপর্বের প্রথম দুই ম্যাচে হেরেও দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছে ইতিহাস গড়েছিল ডেনমার্ক। নিজেদের এই ঐতিহাসিক যাত্রাকে আরও দীর্ঘায়িত করে এবার চলতি ইউরো কাপের প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লেখাল তারা।

শনিবার রাতে শেষ ষোলোর প্রথম ম্যাচে গ্যারেথ বেলের ওয়েলসকে রীতিমতো উড়িয়ে দিয়ে শেষ আটে পৌঁছে গেছে ডেনমার্ক। নেদারল্যান্ডের আমস্টারডাম এরেনায় হওয়া ম্যাচটিতে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে জিতেছে ডেনমার্ক। যার সুবাদে ১৭ বছর পর ইউরোর কোয়ার্টারের টিকিট পেয়েছে তারা।

১৯৯২ সালের আসরে ইউরো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর টানা দুই আসরে প্রথম রাউন্ডেই বাদ পড়ে যায় ডেনমার্ক। পরে ২০০৪ সালের আসরে তারা পৌঁছায় কোয়ার্টার ফাইনালে। কিন্তু এরপর ২০১২ সালের আসরে আবার বাদ পড়ে যায় গ্রুপপর্বেই। এবার ফের শেষ আটে নিজেদের স্থান নিশ্চিত করেছে দলটি।

অন্যদিকে ২০১৬ সালে ইউরো কাপের সবশেষ আসরে সেমিফাইনাল খেললেও, এবার শেষ ষোলোর বাধা পেরুতে পারল না গ্যারেথ বেলের দল। ডেনমার্কের সঙ্গে মুখোমুখি লড়াইয়ে সপ্তম পরাজয়ের দিন দ্বিতীয় রাউন্ডেই শেষ হয়ে গেল ওয়েলসের ইউরোর যাত্রা।

ডেনমার্কের এ বড় জয়ে জোড়া গোল করেন ক্যাসপার ডলবার্গ। আর একদম শেষ দিকে গিয়ে হালি পূরণের দায়িত্ব পালন করেছেন জোয়াকিম মাহল ও মার্টিন ব্রাথওয়েট। আর ম্যাচে ওয়েলসের ‘প্রাপ্তি’ চার হলুদের কার্ডের সঙ্গে একটি লাল কার্ড। সারা ম্যাচে মাত্র একটি শট লক্ষ্যে রাখতে পেরেছে তারা।

ম্যাচের ২৭ মিনিটের সময় প্রথম গোলটি করেন ডলবার্গ। ডামসগার্ডের পাস থেকে পাওয়া বল দারুণ দক্ষতার সঙ্গে ডান পাশ দিয়ে জালে জড়ান তিনি। পরে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও স্কোরশিটে নাম তোলেন ডলবার্গ। ব্রাথওয়েটের ক্রস ক্লিয়ার করতে গিয়ে ডলবার্গের পায়ে তুলে দেন ওয়েলসের ডিফেন্ডার। বাকি কাজ সারতে ভুল করেননি ডলবার্গ।

মনে হচ্ছিল এ দুই গোলের জয়েই নিশ্চিত হচ্ছে ডেনমার্কের কোয়ার্টারের টিকিট। কিন্তু বাকি ছিল আরও গল্প। ম্যাচের নির্ধারিত ৯০ মিনিটের দুই মিনিট বাকি থাকতে ব্যবধান বাড়ান মাহল। জেনসেনের কাছ থেকে পাওয়া বল নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান পাশ দিয়ে স্কোর করেন তিনি।

এরপর অহেতুক ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন ওয়েলসের মিডফিল্ডার হ্যারি উইলসন। খানিকবাদে রেফারির সিদ্ধান্তে ব্যাঙ্গাত্মক তালি দেয়ায় হলুদ কার্ড দেখানো হয় গ্যারেথ বেলকে। এটুকুতেই শেষ হয়নি ম্যাচে তাদের দুর্দশা। বাকি ছিল শেষ গল্পটুকু।

অতিরিক্ত যোগ করা সময়ের চতুর্থ মিনিটে কর্নেলিয়াসের পাস থেকে বল জালে জড়ান ব্রাথওয়েট। সঙ্গে সঙ্গে অফসাইডের বাঁশি বাজান লাইন্সম্যান। কিন্তু পরে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তা নিয়ে মূল রেফারি বাজান গোলের বাঁশি, পূরণ হল হালি। এ জয়ের পর প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টারের টিকিট পেল ডেনমার্ক। এখন তাদের অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে শেষ আটের প্রতিপক্ষ জানার জন্য।

Related posts

ইউরোপের মাঠে গোল করে বিশ্বকে মাতালেন ভারতের বালা দেবী

News Desk

টিভিতে আজকের খেলা

News Desk

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরলেন এরিকসেন

News Desk