free hit counter
খেলা

বীরের বেশেই দেশে ফিরলো লঙ্কান সিংহরা

রাজনৈতিক আর অর্থনৈতিক সংকটে পড়ে প্রায় দুর্দশায় দিন পার করা শ্রীলঙ্কার মানুষের মুখে যেন এক চিলতে হাসি ফুটিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। পাকিস্তানকে হারিয়ে গত রোববার ১৫তম এশিয়া কাপের শিরোপা জিতে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। ২০১৪ সালের পর ক্রিকেটে আবারও বড় কোন শিরোপা জিতলো লঙ্কানরা।

গত এপ্রিল থেকে নিজ দেশে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতিতে এমন শিরোপায় দেশের জনগনকে বড় উৎসবের সুযোগ করে দিয়েছে দাসুন শানাকারা। সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে এশিয়া কাপের শিরোপা নিয়ে দেশে ফিরেই ছাদ খোলা বাসে করে ভক্তদের সঙ্গে আনন্দে মেতে উঠেন দাসুন শানাকা-হাসারাঙ্গা ডি সিলভা-ভানুকা রাজাপাকসেরা।

আরব আমিরাত থেকে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৬টায় দেশে ফিরে শ্রীলঙ্কা দল। বন্দরানায়েকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে খোলা বাসে উঠে দলের সদস্যরা।



এশিয়া কাপজয়ী সিংহদের স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে বাইরে অপেক্ষায় ছিলো দেশটির হাজার-হাজার মানুষ। এশিয়া কাপের ট্রফি নিয়ে খোলা বাসে ওঠা খেলোয়াড়দের সাথে আনন্দে মেতে উঠে লঙ্কান ক্রিকেট প্রেমিরা। রাস্তার দুই পাশে ছিল মানুষের ভিড়। তাদের সামানে ট্রফি উচিয়ে ধরেন অধিনায়ক শানাকা। অনেকেই ক্রিকেটারদের কাছে ব্যাটে, জার্সিতে বা দেশের পতাকায় অটোগ্রাফও চান। ভক্তদের সেসব আবদার যথাসাধ্য মিটিয়েছেন শানাকাবাহিনীও।   

খোলা বাসে করে বিমানবন্দর থেকে কলম্বোয় ক্রিকেট বোর্ড কার্যালয়ে যান ক্রিকেটাররা। ততক্ষণ পর্যন্ত ক্রিকেটারদের বহন করা বাসের সাথেই ছিলেন ভক্তরা।


শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল।

এশিয়া কাপে গ্রুপ পর্বে আফগানিস্তানের কাছে হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছিলো শ্রীলঙ্কা। এরপর টানা পাঁচ ম্যাচ জিতে শিরোপা নিজেদের করে নেয় লঙ্কানরা। পাকিস্তানকে হারিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ষষ্ঠবার এশিয়ার সেরা হলো এশিয়ার সিংহরা।

ফাইনালে ব্যাট হাতে ৪৫ বলে ৭১ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হন রাজাপাকসে। আর পুরো আসরে ৬৬ রান ও ৯ উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরা হন হাসারাঙ্গা।

Source link