Image default
খেলা

বাংলাদেশ থেকে তানজিদ তামিম-রিশাদের ব্যাট সিরিজ

সিরিজের নির্ণায়ক ম্যাচে লক্ষ্য 236 রান। এই দৌড়ে এগিয়ে যাওয়ার জন্য চাপে পড়েছে বাংলাদেশ। তবে তাহিনজিদ হাসান তামিম ও রাশাদ হোসেনের ব্যাটে জয় পায় বাংলাদেশ। লঙ্কাকে চার উইকেটে হারিয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় স্বাগতিকরা।

সোমবার (১৮ মার্চ) চট্টগ্রামের জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে শ্রীলঙ্কা দলকে পাঠান অধিনায়ক নাজম হাসান শান্ত। শ্রীলঙ্কার অলরাউন্ডার জেনিথ লিয়াংয়ের সেঞ্চুরিতে শ্রীলঙ্কা ৫০ ওভারে ২৩৫ রান তুলতে সক্ষম হয়। লিয়াং ১০২ বলে ১০১ রান করে অপরাজিত থাকেন।



236 রানের টার্গেটে নামার পর কনকশন রিপ্লেসমেন্ট সৌম্য তানজিদ তামিম জোরালো ব্যাটিং শুরু করেন। অন্যদিকে সামান্য আগ্রহ নিয়ে খেলতে থাকেন এনামুল হক বিজয়। যাইহোক, দলের 50 ওভারে 22 বলে 12 রান করার পর বিজয় সাগরে ফিরে যান।



বিজয়ের বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন অধিনায়ক নাজম হাসান শান্ত। তানজিদ তামিম আক্রমণাত্মক ব্যাটিং চালিয়ে যান টাইগার অধিনায়ক। তবে দলের ৫৬ রানের ইনিংসে ৫ বলে মাত্র ১ রান করে আউট হন শান্ত। এরপর ক্রিজে পৌঁছে তাওহীদ হৃদয়কে নিয়ে ব্যাটিং শুরু করেন তামিম। ৫১ বলে ফিফটি তুলে নেন এই টাইগার ওপেনার।



হৃদয়ের সঙ্গে ৪৯ রানের জুটি গড়েন তামিম। এরপর দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। হৃদয় ৩৬ বলে ২২ এবং মাহমুদুল্লাহ রিয়াজ ৪ বলে মাত্র ১ রান করে ডাগআউটে ফেরেন। তাদের বিদায়ের পর মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে চাপ সামলানোর চেষ্টা করেন তামিম।

তবে দলের হয়ে ১৩০ শটে ৮১ বলে ৮৪ রান করে ফেরেন তামিম। তার বিদায়ের পর আরও চাপে বাংলাদেশ। এরপর মেহেদি হাসান মিরাজকে নিয়ে চাপ সামলানোর চেষ্টা করেন মুশফিক। এই দুই হিটার জুটি গড়েন ৪৮ হোম রান।

তবে দলের ১৭৮ রানের লক্ষ্যে ৪০ বলে ২৫ রান করে আউট হন মিরাজ। তার বিদায়ের পর ক্রিজে জোরে মারতে থাকেন রাশাদ হোসেন। তার ১৮ বলে ৪৮ রানের ঝড়ো ইনিংসে ৫৮ বল হাতে রেখে ৪ উইকেটে জয় পায় বাংলাদেশ। ৩৬ বলে ৩৭ রান করে অপরাজিত থাকেন মুশফিক।

Source link

Related posts

ফ্যানাটিক স্পোর্টসবুক প্রোমো কোড: 10 দিনের মধ্যে $1,000 পর্যন্ত বোনাস উপার্জন করুন

News Desk

পাকিস্তান সফরে পূর্ণ শক্তির অস্ট্রেলিয়া দল ঘোষণা

News Desk

Emotional 911 call reveals more about Vontae Davis’ final moments before death

News Desk

Leave a Comment