free hit counter
খেলা

বছরে দু’ভাগে আইপিএল! সচিবের পর চাইছে দলগুলিও

দু’ভাগে আইপিএলের পক্ষে জোরালো সওয়াল শুরু হল দল মালিকদের তরফেও। পঞ্জাব কিংসের অন্যতম কর্ণধার নেস ওয়াদিয়া তাঁদের মধ্যে একজন।

মিডিয়া স্বত্ব থেকে প্রায় পঞ্চাশ হাজার কোটি টাকা ঢুকেছে বোর্ডের ঘরে। আগামী কয়েক বছরে বাড়তে চলেছে ম্যাচের সংখ্যাও। এ বার কি সত্যিই দু’ভাগে আইপিএল আয়োজন করা হবে? বোর্ড সচিব জয় শাহ সেই ইঙ্গিত উড়িয়ে দেননি। এ বার দু’ভাগে আইপিএলের পক্ষে জোরালো সওয়াল শুরু হল দল মালিকদের তরফেও। পঞ্জাব কিংসের অন্যতম কর্ণধার নেস ওয়াদিয়া তাঁদের মধ্যে একজন।

সংবাদ সংস্থাকে সাক্ষাৎকারে ওয়াদিয়া বলেছেন, “গোটা বিশ্বে ক্রিকেটকে ছড়িয়ে দিয়েছে আইপিএল। আগামী দিনে তা আরও বড় হবে। ফলে ঘরের মাঠে সাতটা ম্যাচ খুবই কম। অন্তত ১৪টি ম্যাচ খেলা উচিত। আরও লম্বা সময় ধরে আইপিএল চলা উচিত। যদি তিন-চার মাসের সময় না পাওয়া যায়, তা হলে দু’ভাগে করা যাবে না কেন? একটা ভারতে হোক, একটা বিদেশে। বিশ্বের সব জায়গায় ভারতীয়রা রয়েছে। বেশি ম্যাচ খেললে অনেক সুবিধা।”

আট দলের আইপিএল থাকাকালীন দলগুলি ১৪টি ম্যাচ খেলত। এ বার দু’টি দল যোগ হলেও ফরম্যাট বদলে একই ম্যাচ রাখা হয়েছে। কেন ম্যাচের সংখ্যা দ্বিগুণ করা উচিত তার যুক্তিতে ওয়াদিয়া বলেছেন, “ঘরের মাঠে সাতটা ম্যাচ খুবই কম। ম্যাচ প্রতি দামের বিচারে আইপিএল কিন্তু ইপিএলকে টপকে গিয়েছে। ওখানে ক’টা ম্যাচ (৩৮) খেলা হয় দেখুন।”

অনেক বিশেষজ্ঞই মনে করছেন, ভবিষ্যতে টি-টোয়েন্টি লিগই ক্রিকেট শাসন করবে। ক্রিকেট হয়তো ফুটবলের পথই নেবে। ওয়াদিয়াও একই মতের পক্ষপাতী। বলেছেন, “আমার মনে হয় ব্যাপারটা শুরু হয়ে গিয়েছে। একদিন এটাই সত্যি হবে। আইপিএল ক্রিকেটকে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে। আমরা এখন পাহাড়ের শুধু চূড়োটা দেখতে পাচ্ছি।”