প্রবল বৃষ্টিতে ইস্টবেঙ্গল উৎসব
খেলা

প্রবল বৃষ্টিতে ইস্টবেঙ্গল উৎসব

গত কয়েকদিন ধরেই কলকাতায় বৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু সল্টলেক সিটির ফুটবল ভক্তরা এমন বৃষ্টি দেখেননি। ইস্টবেঙ্গল ভক্তরা এটাকে বৃষ্টি বলতে রাজি নন। এই বৃষ্টি আনন্দের। পূর্ববঙ্গের সমর্থকরা বলছেন যে আষাঢ় বা শ্রাবণ এইভাবে বৃষ্টি হয়নি। 1-0 ব্যবধানে হারার পর সমস্ত ফুটবল খেলোয়াড় মোহনবাগান ছেড়ে চলে যায়। দৌড়ে মাঠের বাইরে চলে যান। মাঠে নামেন ইস্টবেঙ্গলের ভক্তরা। খেলা শেষ হওয়ার চার মিনিট আগে হঠাৎ বৃষ্টি। তাহলেই জয়ের পথ নিশ্চিত হয়ে যাবে ইস্টবেঙ্গলের। ঠিক তখনই শুরু হলো বৃষ্টি। বৃষ্টিতে ভিজে ইস্টবেঙ্গলের ভক্তরা। গ্যালারির দিকে তাকিয়ে মোহনবাগানের সমর্থকরা। ইস্টবেঙ্গলের দর্শকরা বেড়া পেরিয়ে মাঠে প্রবেশ করে এবং ক্যাপ্টেন খোবরা, গোলরক্ষক গিল, স্পেনের ক্রেসপো, গঞ্জালেজ, তোরা, অস্ট্রেলিয়ার এলসি জর্ডান এবং নন্দ কুমারের পায়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে। ফুটবল খেলোয়াড়রা পাগল ভক্তদের বয়ে নিয়ে তাদের বুকে নিয়ে যায়। স্প্যানিশ কোচ কার্লোস কোয়াদরাত মাঠে ঢুকে ছুটে যান ভক্তদের দিকে। লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আনন্দ দর্শকদের মধ্যে। প্রবল বর্ষণ বেড়েছে বৃষ্টি। বৃষ্টি দেখে মনে হচ্ছিল ইস্টবেঙ্গল জেতার জন্য প্রস্তুত।

পাঁচ বছরের অপেক্ষা শেষ। এমন আনন্দ ছাড়া বা উপায় কি। এটি ভারতীয় উপমহাদেশের ফুটবলের সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ ফুটবল ম্যাচ। বলা হয় ইস্টবেঙ্গল ডার্বি-মোহনবাগান। আমরা গত ১৫ দিন ধরে কলকাতায় ফুটবলে একটা কথা শুনেছি। পূর্ব বাংলার দিন চলে গেল। উড়ছে মোহনবাগান। বাংলা কখনো ফিরে যেতে পারবে না। ইস্টবেঙ্গলের ভক্তরা এখনও সেই ঘি খাওয়ার সময় গন্ধ পান (1975 সালে ইস্টবেঙ্গল মোহনবাগানকে 5-0 গোলে হারিয়েছিল, মোহনবাগান এখনও এই রেকর্ডটি ভাঙতে পারেনি)। এর আগে সংবাদ সম্মেলনে গুঞ্জন উঠেছিল ইস্টবেঙ্গল পারবে না। কয়েকদিন পর এএফসি কাপ খেলবে মোহনবাগান। এটা ৫৫ কোটি টাকার দল। ইস্টবেঙ্গলের কী হবে? আইএসএল-এর চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগান। কেমন করে, প্রশ্নই ওঠে না। শেষবার ইস্টবেঙ্গল জিতেছিল 2019 সালে। এই জয়ের পর ইস্টবেঙ্গল মোহনবাগানের বিরুদ্ধে টানা আটটি ম্যাচ হেরেছে। প্রতিশোধ নিতে পারে না। হতাশ সমর্থকরা। সেই ভক্তরা কাল বিজয়ী হয়ে বাড়ি চলে গেল। মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ১-০ গোলে জিতেছে ইস্টবেঙ্গল। আর এই জয়ের নায়িকা নন্দ কুমার। ৬০তম মিনিটে গোল করেন।



ডুরান্ড কাপের প্রথম ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল ২-২ গোলে এগিয়ে থাকার পর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করে। মোহনবাগান বাংলাদেশ আর্মিকে ৫-০ এবং পাঞ্জাব ২-০ গোলে হারিয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে নকআউট পর্বে যায়। গতকাল, ইস্টবেঙ্গল ক্লাব দ্বিতীয় ম্যাচে মোহনবাগানকে হারিয়ে এখন গ্রুপ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের পথে। কারণ মোহনবাগান তিনটি গ্রুপ ম্যাচ শেষ করেছে। পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচ খেলবে ইস্টবেঙ্গল। 7 পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়নশিপ জেতার পরে, মোহনবাগান সেরা গ্রুপ রানার্সআপ হিসাবে যেতে পারবে কি না তা নিয়ে সংশয় ছিল। ম্যাচ জিতেছে ইস্টবেঙ্গল। সমর্থকরা বলছেন, তারা ভালো করেছে।

Source link

Related posts

ডেভ ব্যাশ তার মৃত্যুর পর বিল ওয়ালটনের কাছ থেকে অন্তরঙ্গ পুরানো পাঠ্য শেয়ার করেছেন: ‘বল ক্রাশার সব সময়’

News Desk

ফ্রেঞ্চ ওপেন স্ট্যান্ডে অ্যালকোহল নিষিদ্ধ করে যখন প্লেয়ার দাবি করেন যে ফ্যান তার দিকে গাম থুতু দেয়: ‘এটি সম্পূর্ণ অসম্মান’

News Desk

স্টিভ কোহেনের নিউ ইয়র্ক গল্ফ ক্লাব আগামীকালের নতুন গল্ফ লিগের জন্য একটি তারকা-খচিত রোস্টার পাচ্ছে

News Desk

Leave a Comment