free hit counter
খেলা

পান্ট-পান্ডিয়া নৈপুণ্যে ভারতের ইংলিশ বধ

প্রথম ওয়ানডেতে ওভালে ইংল্যান্ডকে ১১০ রানে গুটিয়ে ১০ উইকেটের দাপুটে জয় তুলে নিয়েছিল ভারত। লর্ডসে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হয় সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র। ১০০ রানের বড় ব্যবধানে জয় পায় ইংল্যান্ড। তাই গতকাল ম্যানচেস্টারে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি হয়ে যায় সিরিজ নির্ধারনি। সবাই আশা করেছিল দারুণ একটি লড়াই হবে। কিন্তু রিশাভ পান্ট ও হার্দিক পান্ডিয়া সেটা হতে দেননি।

ইংল্যান্ডের দেওয়া ২৫৯ রান তাড়া করতে নেমে ৩৮ রানের মধ্যেই শেখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলিকে হারিয়ে ফেলে ভারত। এর মধ্যে ধাওয়ান ১ এবং রোহিত ও বিরাট সমান ১৭ রান করেন। তিনজনকেই পরাস্ত করেন রিচ টপলি। এরপর বেশিদূর যেতে পারেননি সূর্যকুমার যাদবও। মাত্র ১৬ রান করে ওভারটনের বলে জস বাটলারের হাতে কটবিহান্ডে পরিণত হন। তখন ভারতের স্কোর ১৬.২ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৭২ রান। সফরকারীদের মধ্যে পরাজয়ের শঙ্কা দেখা দেয়।



তবে ওই সময় ক্রিজে নামা হার্দিক পান্ডিয়ার ব্যাটিং দেখে মনেই হয়নি কোনো শঙ্কা কাজ করছে। শুরু থেকেই শতাধিক স্ট্রাইক রেটে ব্যাট চালাতে থাকেন। অপরপ্রান্ত দেখেশুনে আগলে রাখেন রিশাভ পান্ট। সময় যত গড়িয়েছে দুজনের ব্যাট তত চওড়া হয়েছে। শেষ পর্যন্ত তাদের জুটি থেকে আসে ১১৫ বলে ১৩৩ রান। ২০৫ রানের সময় বিদায় নেন পান্ডিয়া। তার আগে করেন ৫৫ বলে ৭১ রান। পরের গল্পটা কেবল পান্টের।

তুলে নিয়েছেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারে নিজের প্রথম শতক। রবীন্দ্র জাদেজা নামলেও তিনি কেবল সঙ্গ দিয়েছেন। করেন ১৫ বলে ৭ রান। আর পান্ট ১১৩ বলে ১২৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। এতেই ৪৭ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখে সহজেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় টিম ইন্ডিয়া। একই সঙ্গে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৪৫.৫ ওভারে ২৫৯ রানে অলআউট হয়ে যায় ইংল্যান্ড। সর্বোচ্চ ৬০ রান করেন জস বাটলার। এছাড়া জেসন রয় ৪১, মঈন আলি ৩৪, ক্রেইগ ওভারটন ৩২, লিয়াম লিভিংক্সটোন ২৭, বেন স্টোকস ২৭ ও ডেভিড উইলি ১৮ রান করেন। হার্দিক পান্ডিয়া ৪টি, যুযবেন্দ্র চাহাল ৩টি, মোহাম্মদ সিরাজ ২টি ও জাদেজা একটি উইকেট শিকার করেন। ম্যাচসেরা হয়েছেন রিশাভ পান্ট ও সিরিজসেরা হার্দিক পান্ডিয়া।

Source link