free hit counter
খেলা

এশিয়া কাপের মিশন শেষ ভারতের

পাকিস্তানের পর শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে এশিয়া কাপ ২০২২ এর মিশন শেষ হলো ক্রিকেটের অন্যতম পরাশক্তি ভারতের। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্ববর) স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত আটটায় অনুষ্ঠিত টুর্ণামেন্টের ৯ম খেলায় শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হয় ভারত। এদিন টসে হেরে রোহিত শর্মাদের প্রথমে ব্যাটিংয়ে পাঠায় লঙ্কানরা। নিদৃষ্ট ২০ ওভারে ১৭৩ রান সংগ্রহ করে ভারত। জবাবে খেলতে নেমে ৪ উইকেট হারিয়ে ১ বল বাকি থাকতেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় শাহানাকার দল।  এতে ৬ উইকেটের জয়ের পাশাপাশি এশিয়া কাপের ফাইনালে এক উঠার এক ধাপ এগিয়ে গেলো শ্রীলঙ্কা।




জয়ের জন্য ১৭৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার। প্রথম ওভারে আসে মাত্র ১ রান। তবে তার পরের অভার থেকেই ভারতীয় বলারদের ওপর চড়াও হতে থাকেন লঙ্কান দুই ওপেনার পাথুম নিসানকা ও কুশাল মেন্ডিস। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে ৫৭ রান তুলেন এ দুই ওপেনার। ইনিংসের ১২ তল ওভারে বলিং করতে এসে শ্রীলঙ্কাকে বড় সড় ধাক্কা দেন চাহালে। একই ওভারে ওপেনার নিসানকা ও নতুন ব্যাট করতে নামা আসালাংকাকে সাজ ঘরে ফেরান এই স্পিনার। আউট হবার আগে ৩৭ বলে ৫২ রান করেন নিসানকা এবং ৩ বলে ০ রান করেন আসালাংকা। এরপর দলীয় ১১০ রানের মাথায় আবারও পর পর ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পরে লঙ্কানরা। ১৪ তম ওভারের শেষ বলে আশ্বউইনের বলে কে এল রাহুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন দানুশকা। ৭ বলে ১ রান করেন তিনি। ঠিক তার পরের ওভারের প্রথম বলেই ৩৭ বলে ৫৭ রান করা ওপেনার কুশাল মেন্ডিসকে এলবিডাব্লিউর ফাদে ফেলেন চাহালে। পরে মিডিলওররডারে ব্যাট করতে নামা ভানুকা রাজাপাকসে কে নিয়ে জয়ের জন্য লড়াই চালিয়ে যান অধিনায়ক দাসুন শানাকা। শেষ পর্যন্ত অধিনায়ক শানাকার করে ১৮ বলে ৩৩ রান ও রাজাপাকসের করা ১৭ বলে ২৫ রানের ওপর ভর করে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় লঙ্কানরা। 

ভারতের হয়ে চাহালে ৩ টি ও আশ্বউইন ১টি উইকেট নেন। 


ছবি: সংগৃহীত

এর আগে টসে জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় লঙ্কান অধিনায়ক দাসুন শানাকা। ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখার কঠিন হিসেব মাথায় নিয়ে ওপেনিংয়ে নেমে শুরুটা বেশ দেখেশুনেই করেছিলেন ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা আর লোকেশ রাহুল।  দিলশান মাদুশাঙ্কার প্রথম ওভার থেকে আসে মাত্র ৪ রান। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে মহেশ থিকসানার বলে লেগ বিফোরে ফাদে পড়ে আউট হন রাহুল। ৭ বলে ৬ রান করেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। ঠিক পরের ওভারেই আরেকটি ধাক্কা খায় ভারত। দীর্ঘদিন ফর্মে না থাকার পর এবার এশিয়া কাপের শুরু থেকেই ব্যাটে রান ফেরানোর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বিরাট কোহলি। গত দুই ম্যাচে টানা ফিফটিও তুলে নিয়েছিলেন সাবেক এই অধিনায়ক। তবে আজ কোহলিকেও ফিরতে হয়েছে খালি হাতেই। ক্রিজে এসে ৫ বল খেলে মাদুশাঙ্কার বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরেন কোহলি। মাত্র ১৩ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে বেশ বিপদে পড়ে যায় ভারত।


ছবি: সংগৃহীত

শুরুতেই ২ উইকেট হারানো ভারতের ব্যাটিংইয়ে হাল ধরেন অধিনায়ক রোহিত আর সূর্যকুমার যাদব। পাওয়ার প্লে’র ৬ অভার শেষে ভারতের সংগ্রহ দাড়ায় ২ উইকেটে ৪৪ রান। পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার পরযেন আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন ভারতের অধিনায়ক। দশম ওভারে আশিথা ফার্নান্দোর বলে ছয় চারে ১৪ রান তুলে নেন রোহিত। সঙ্গীকে দেখে এবার হাট খুলতে শুরু করেন সূর্যকুমারও। ১২তম ওভারে রোহিতের ঝড়ের প্রভাবটা বেশি বুঝতে পেরেছেন হাসরাঙ্গা ডি সিলভা। তবে দলকে আর বেশিক্ষণ টানতে পারেননি রোহিত। ইনিংসের ১৩তম ওভারে চামিকা করুণারত্নের বলে নিশাঙ্কার হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। ৫ চার আর ৪ ছয়ে ৪১ বলে ৭১ রান করে সাজঘরে ফেরেন রোহিত।


ছবি: সংগৃহীত

অধিনায়কের বিদায়ের পর আর বেশিক্ষন টিকতে পারেননি সূর্যকুমারও। খুব বেশি টি-টোয়েন্টি সুলভ না হলেও ২৯ বলে ৩৪ রানের কার্যকরী ইনিংস খেলে শানাকারত বলে থিকসানার হাতে ক্যাচ দিয়ে উইকেট হারান সূর্যকুমার। এরপর হার্দিক পান্ডিয়া আর ঋষভ পান্ত মিলে দ্রুত দলের রান বাড়ানোর চেষ্টা করেন। পান্তের সাথে ৩০ রানের জুটিউ গড়ে ১৩ বলে ১৭ রান করেই ফেরেন পান্ডিয়া। পান্তও ফেরেন ঠিক একইরকম ১৩ বলে ১৭ রান করে। ১৯তম ওভারে পান্তের সঙ্গে দীপক হুদার উইকেটও তুলে নেন  মাদুশাঙ্কা। লঙ্কানদের হয়ে ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়েই ৩ উইকেট তুলে নেন পেসার মাদুশাঙ্কা। শেষ ওভারে বোলিংয়ে ফিরে করুণারত্নে তুলে নেন ভুবনেশ্বর কুমারের উইকেট। ওভারের পঞ্চম বলে তাকে ছয় মেরে দলের রান বাড়িয়ে নেন রবীচন্দ্রন অশ্বিন। ইনিংসের শেষ ওভার থেকে ভারত তোলে ১২ রান।

শ্রীলঙ্কার হয়ে দিলশান মাদুশাংকা ৩ টি কুলারাত্নে ও শানাকা ২টি এবং মহেশ থিকসানা ১টি করে উইকেট নেন। 

Source link