free hit counter
আইপিএলের জৈব নিরাপত্তা বলয় আরো কঠোর হল
খেলা

আইপিএলের জৈব নিরাপত্তা বলয় আরো কঠোর হল

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল ভারতবর্ষ। তবে আতঙ্কের পরিবেশ, স্বজনহারা মানুষের হাহাকার আর আর্তনাদের মাঝেই দেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে চতুর্দশ আইপিএল। বিভিন্ন মহল থেকে কোটিপতি লিগ বন্ধের দাবি জানানো হলেও বিসিসিআই টুর্নামেন্ট চালিয়ে যাওয়ার পক্ষেই সিলমোহর দিয়েছে। এদিকে সদ্য আইপিএলের বায়ো-বাবল ছেড়ে দেশে ফিরে যাওয়া এক অজি ক্রিকেটার আইপিএল বায়ো-বাবলের তীব্র সমালোচনা করেছেন। করোনাতঙ্কে ইতিমধ্যেই নাম প্রত্যাহার করে দেশে ফিরেছেন আরও অনেকে।

সামগ্রিক পরিস্থিতি বিচার করে দেশীয় এবং বিদেশি ক্রিকেটার-সাপোর্ট স্টাফেদের নিরাপত্তা আরও সুনিশ্চিত করতে আইপিএলের বায়ো-বাবল মজবুত করতে উদ্যোগী হল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বোর্ড। বায়ো-বাবল নিয়ে কিয়দংশের অসন্তোষ এবং দেশজুড়ে কোভিড পরিস্থিতির ক্রমাগত অবনতি বোর্ডকে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করেছে বলে মনে করছে ক্রিকেটমহল। বহির্জগতের সঙ্গে বায়ো-বাবলে থাকা ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট সাটফেদের যে ন্যূনতম যোগাযোগটুকু ছিল প্রোটোকল মজবুত হওয়ায় সেই যোগাযোগটুকুও আর রইল না।

বিসিসিআই সিওও হেমাং আমিন জানিয়েছেন, ‘পুরনো ব্যবস্থায় আমরা আমাদের মনোনীত কয়েকটি হোটেল থেকে বায়ো-বাবলের মধ্যে খাবার আসার অনুমতি প্রদান করেছিলাম। কিন্তু নয়া ব্যবস্থায় তা প্রত্যাহার করা হল। এছাড়াও বায়ো-বাবল আরও শক্তিশালী করতে সতর্কতার মাত্রা আরও বৃদ্ধি করা হয়েছে।’ একনজরে দেখে নেওয়া যাক বদলগুলো।

বাইরের হোটেল/রেস্তোরাঁ থেকে খাবার আসা বন্ধ হল: আইপিএলে অংশগ্রহণকারী প্লেয়ার এবং সাপোর্ট স্টাফেরা যেহেতু বায়ো-বাবলে ছিলেন তাই টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই নিজেদের হোটেলের বাইরে রেস্তোরাঁয় খেতে যাওয়ার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা ছিল। কিন্তু মনোনীত কয়েকটি রেস্তোরাঁ/হোটেল থেকে তারা পছন্দমতো খাবার অর্ডার করতে পারতেন। পরিবর্তিত গাইডলাইনে বাইরে থেকে খাবার আসার ব্যাপারেও নিষেধাজ্ঞা জারি হল।

সম্প্রতি হোটেলের রান্নাঘরে সিএসকে ব্যাটসম্যান রবিন উথাপ্পাকে রাঁধুনির বেশে দেখা গিয়েছে। মনে করা হচ্ছে গাইডলাইন আরও আঁটোসাঁটো হওয়ার পর তিনি তার সতীর্থদের জন্য নয়া কোনও ডিশ তৈরি করতেই রাঁধুনি হয়েছিলেন।

দু’দিনের ব্যবধানে কোভিড পরীক্ষা: প্রাথমিক প্রোটোকল অনুসারে ক্রিকেটারদের কোভিড পরীক্ষা করা হচ্ছিল ৫ দিনের ব্যবধানে। বিগত কয়েকসপ্তাহে দেশজুড়ে ভাইরাস সংক্রমণের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ায় পরিবর্তিত গাইডলাইনে বদল এসেছে তাতেও। ক্রিকেটারদের এখন ২ দিন অন্তর আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করা হবে।

Related posts

অনেক খুজেও খেলোয়াড় খুজে পাচ্ছেনা চেন্নাই সুপার কিংস

News Desk

দেশে টিকার জন্য ২ কোটির বেশি নিবন্ধন

News Desk

বায়ুর মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা, প্রমাণ পেল ল্যান্সেট

News Desk