Image default
রূপচর্চা

নাকের তৈলাক্ত ভাব দূর করতে

তৈলাক্ত ছাড়াও সাধারণ ও শুষ্ক ত্বকের অধিকারীদেরও নাকের ওপর অতিরিক্ত তৈলাক্তভাব তৈরি হয়।

এই সমস্যা কমাতে রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে জানানো হল কিছু পন্থা।

ফেইস ওয়াশ: দিনে কম পক্ষে দুবার ফেইস ওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করার অভ্যাস করতে হবে। এতে নাকের ওপরের বাড়তি তেলতেলেভাব দূর হবে।

টোনার: ত্বকের তেল নিয়ন্ত্রণে টোনার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই মুখ ধোয়ার পরে টোনার ব্যবহার সমস্যার মাত্রা কমাবে।

পানি নির্ভর ময়েশ্চারাইজার: তৈলাক্তভাব কমাতে ক্রিম ভিত্তিক ময়েশ্চারাইজারের বদলে পানি ভিত্তিক ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উপকারী।

শিট মাস্ক: শিট মাস্ক সম্পূর্ণ তৈরি অবস্থাতেই পাওয়া যায় এবং এটা নাকের তেল চিটচিটেভাব কমাতে সহায়তা করে।

‘বেবি সোপ’: নাকের তৈলাক্ততার দ্রুত সমাধান চাইলে ‘বেবি সোপ’ দিয়ে নাক ধুয়ে নিতে পারেন।

মুখ এক্সফলিয়েট করা: মুখের ত্বক এক্সফলিয়েট করতে স্ক্রাব ব্যবহার নাকের তেল, উন্মুক্ত লোমকূপের সমস্যা ও ময়লা দূর করতে সাহায্য করবে।

ব্লটিং পেপার বা টিস্যু ব্যবহার: তেলতেলেভাব থেকে মুক্তি পেতে ‘ব্লটিং পেপার’ বা টিস্যু কার্যকর। এটা নাকের বাড়তি তেল শুষে নেয় ও ত্বকের স্বাভাবিকতা বজায় রাখে।

তেল শোষক ব্যবহার: ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারে আগে ‘অয়েল ম্যাটিফিয়র’ বা তেল শোষক প্রসাধনী ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

তেল বিহীন সানস্ক্রিন: ‘ননকমেডোজেনিক’ সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এতে ত্বকের লোমকূপ আবদ্ধ হয়ে যাবে না ও বাড়তি তেল উৎপাদন হবে না।

Related posts

গরমেও পা ফাটা থেকে মুক্তির উপায়

News Desk

কলার ফেসপ্যাক দূর করবে কুঁচকে যাওয়া ত্বক

News Desk

বাড়িতেই দূর করে ফেলুন সান ট্যান

News Desk

Leave a Comment