Image default
মুক্তিযুদ্ধ

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের কিছু দুর্লভ ছবি

মুক্তিযুদ্ধ আমাদের অহংকার। দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে আমরা এ দেশকে স্বাধীন করেছি। সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি)-র সংগ্রহে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের কিছু দুর্লভ ছবি রয়েছে ৷

উত্তাল মার্চউত্তাল মার্চ

 ১৯৭১ সালের ২৩ শে মার্চ স্বাধীনতার দাবিতে ঢাকার রাস্তায় দেশীয় অস্ত্র “হারপুন” হাতে মুক্তিকামীদের বিক্ষোভ মিছিল ৷

যশোরে মুক্তিবাহিনীযশোরে মুক্তিবাহিনী

২ এপ্রিল ১৯৭১, যশোরে মার্চ করছে মুক্তিবাহিনী ৷

ত্রিপুরায় বাংলাদেশি শরণার্থী

ত্রিপুরায় বাংলাদেশি শরণার্থী

১৯৭১ সালের ৫ এপ্রিল-এসময় প্রচণ্ড যুদ্ধ চলছে। প্রাণ বাঁচাতে ভারতের ত্রিপুরার মোহনপুরের একটি স্কুল ভবনে আশ্রয় নিয়েছেন বাংলাদেশিরা।

ভারত সীমান্তের কাছে বাংলাদেশিদের অবস্থান

ভারত সীমান্তের কাছে বাংলাদেশিদের অবস্থান

১৯৭১ সালের ৮ এপ্রিল-এসময় ভারত সীমান্তের ৩০ মাইলের মধ্যে কুষ্টিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাসহ অনেকেই অবস্থান করছিল।

বেনাপোলের কাছে শরণার্থী শিবির

বেনাপোলের কাছে শরণার্থী শিবির 

১৪ এপ্রিল ১৯৭১, যশোরের বেনাপোলের কাছে ভারত সীমান্তে শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিয়েছিল পাঁচ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি ৷

আহত মুক্তিযোদ্ধা

আহত মুক্তিযোদ্ধা

১৯৭১ সালের ১৬ এপ্রিল চুয়াডাঙ্গায় পাকিস্তানি বিমানবাহিনীর বোমা হামলায় আহত একজন মুক্তিযোদ্ধাকে চিকিৎসা দিতে নিয়ে যাচ্ছেন বেসামরিক মানুষ এবং মুক্তিযোদ্ধারা।

বীর মুক্তিবাহিনীর শত্রুর বিরুদ্ধে অবস্থান

বীর মুক্তিবাহিনীর শত্রুর বিরুদ্ধে অবস্থান

১৯৭১ সালের ৩ রা আগস্ট৷ ঢাকার কাছে মুক্তিবাহিনীর সদস্য হেমায়েতউদ্দীন একটি গোপন ক্যাম্প থেকে মেশিনগান তাক করে রেখেছেন ৷

১৯ বছর বয়সি শিক্ষার্থীর নেতৃত্বে প্লাটুন

১৯ বছর বয়সি শিক্ষার্থীর নেতৃত্বে প্লাটুন

১৩ নভেম্বর ১৯৭১, এ সময়ে ফরিদপুরে রাইফেল হাতে তরুণ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ। ৭০ সদস্যের একটি প্লাটুন গড়া হয়েছিল সেখানে। সেই প্লাটুন দক্ষিণাঞ্চলে সামরিক ও চিকিৎসা দ্রব্য সরবরাহ করত। একদম বামে থাকা ১৯ বছর বয়সি তরুণটি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। ৭০ জনের প্লাটুনের নেতৃত্বে ছিলেন তিনি।

মুক্তিবাহিনীর পারুলিয়া দখল

মুক্তিবাহিনীর পারুলিয়া দখল

১৯৭১ সালের ২৬ নভেম্বর৷ তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের পারুলিয়া গ্রাম দখল করে নেয় মুক্তিবাহিনী ৷

আখাউড়ায় পাকিস্তানি সেনাবাহিনী

আখাউড়ায় পাকিস্তানি সেনাবাহিনী

২৯ নভেম্বর, ১৯৭১। আখাউড়ায় অস্ত্র পাহাড়া দিচ্ছে পাকিস্তানি সেনারা। তাদের দাবি ছিল, ভারতীয় সৈন্যদের কাছ থেকে এসব অস্ত্র জব্দ করা হয়েছে।

ভারতীয় সেনাদের হামলা

ভারতীয় সেনাদের হামলা

২ ডিসেম্বর, ১৯৭১-এসময় যশোরে পাকিস্তানি সেনাদের উপর গোলাবর্ষণ শুরু করে ভারত। এক পাকিস্তানি সেনাসদস্য রাইফেল নিয়ে অন্যত্র যাচ্ছে। অন্য সেনারা তখন অস্ত্র তাক করে পরিখার মধ্যে

ভারতীয় ট্যাংক

ভারতীয় ট্যাংক

১৯৭১ সালের ৪ঠা ডিসেম্বর ৷ ভারতীয় সেনাবাহিনীর ট্যাংক বগুড়ার দিকে রওনা হয়েছে ৷

ভারতীয় সেনা

ভারতীয় সেনা

১৯৭১ সালের ৭ ডিসেম্বর ৷ ভারতীয় সীমান্তের কাছে ডোঙ্গারপাড়ায় খোলা মাঠে মেশিনগান তাক করে রেখেছেন এক ভারতীয় সেনা ৷

ডিসেম্বরেও ঢাকায় পাকিস্তানি সার্জেন্ট

ডিসেম্বরেও ঢাকায় পাকিস্তানি সার্জেন্ট

১২ ডিসেম্বর, ১৯৭১ ৷ রাজধানী ঢাকার অদূরে একটি এলাকায় একজন পাকিস্তানি সার্জেন্ট দুই সেনাকে নির্দেশনা দিচ্ছে ৷

যুদ্ধবিরতি

যুদ্ধবিরতি

রবিবার ১২ ডিসেম্বর. ১৯৭১৷ ঢাকা বিমানবন্দরে অপেক্ষায় আছেন বিদেশিরা ৷ একটি ব্রিটিশ বিমান অবতরণ করেছে ৷ ৬ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতির সময় বিদেশিদের নিয়ে যাওয়ার জন্যই ঐ বিমানটি পাঠানো হয়েছিল ৷

চার রাজাকারকে হত্যার পর মুক্তিবাহিনীর প্রতিক্রিয়া

চার রাজাকারকে হত্যার পর মুক্তিবাহিনীর প্রতিক্রিয়া

হত্যা, ধর্ষণ ও লুটপাটে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীকে সহযোগিতা করা চার রাজাকারকে হত্যার পর আল্লাহ’র উদ্দেশে শুকরিয়া জানাচ্ছেন মুক্তিসেনারা ৷

Related posts

একনজরে মুজিবনগর স্মৃতি কমপ্লেক্স

News Desk

বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম রসুল মারা গেছেন

News Desk

অকুতোভয় সৈনিক বীরশ্রেষ্ঠ ল্যান্স নায়েক মুন্সি আব্দুর রউফ

News Desk

Leave a Comment