Image default
আন্তর্জাতিক

সিরিয়া ও ইরাকে তুরস্কের বিমান হামলা

উত্তর সিরিয়া ও ইরাকজুড়ে কুর্দি জঙ্গিঘাঁটিতে বিমান হামলা চালানোর কথা বলেছে তুরস্ক। গতকাল রোববার এ হামলা চালানো হয়। তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি (পিকেকে) ও কুর্দিস পিপলস প্রোটেকশন ইউনিটসের (ওয়াইপিজি) ঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়। এসব ঘাঁটি থেকে তুরস্কে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালানোর অভিযোগ তুলেছে আঙ্কারা। গত সপ্তাহে ইস্তাম্বুলে বোমা হামলায় ছয়জন নিহত হন। ওই ঘটনার জন্য পিকেকের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলে আঙ্কারা। এরপরই পিকেকে ঘাঁটি লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালানো হলো।

তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘জাতিসংঘ সনদের অনুচ্ছেদ ৫১ অনুসারে আমাদের আত্মরক্ষার অধিকারের সঙ্গে এ হামলা সামঞ্জস্যপূর্ণ।’ এ অধিকার থেকেই ইরাক ও সিরিয়ায় পেন্স কিলিক নামের এই হামলা চালানো হয়েছে।

সিরিয়া ও ইরাকে তুরস্কের বিমান হামলা

এদিকে ইস্তাম্বুলে হামলার বিষয়টি পিকেকে ও ওয়াইপিজির পক্ষ থেকে অস্বীকার করা হয়েছে। গত রোববার সকালে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক টুইটে বলা হয়, হিসাব-নিকাশের সময় এসে গেছে। দুর্বৃত্তদের বিশ্বাসঘাতকতার হামলার হিসাব নেওয়া হচ্ছে। পরে আরেক টুইটে বলা হয়, সন্ত্রাসীদের আশ্রয়স্থল সুনির্দিষ্ট আক্রমণে ধ্বংস করা হয়েছে।

সিরিয়ার কাজ করা যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংখ্যা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে, সিরিয়ার আলেপ্পো ও হাসাকেহ অঞ্চলের ২০টির বেশি জায়গায় তুরস্ক বিমান হামলা চালিয়েছে। এ হামলায় কমপক্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন।

Related posts

ইথিওপিয়ায় দুর্ভিক্ষের কবলে সাড়ে ৩ লাখ মানুষ

News Desk

আফগানিস্তানে টানেল দুর্ঘটনায় নিহত ১২

News Desk

ইলন মাস্কের প্রস্তাবে টুইটার বোর্ডের সম্মতি

News Desk

Leave a Comment