Image default
আন্তর্জাতিক

শেষ হলো কাশ্মীরে পৃথিবীর উচ্চতম সেতুর আর্চ তৈরির কাজ

পৃথিবীর উচ্চতম সেতুর কাজ অগ্রসর হল অনেকটাই। সেতুর মূল অংশ আর্চ তৈরির কাজ শেষ হল। জম্মু ও কাশ্মীরের চন্দ্রভাগা নদীর উপর এই সেতু নির্মাণ করেছে উত্তর রেল। সোমবার এই সেতুর আর্চ তৈরির কাজ শেষ হওয়ার পর বলা যায় এক বড়সড় মাইলস্টোন টপকালো রেলওয়ে।

চন্দ্রভাগা নদীর থেকে ৩৫৯ মিটার উঁচুতে বানানো হয়েছে এই সেতু। এর দৈর্ঘ্য ১.৩ কিলোমিটার। এটি তৈরি করতে খরচ পড়েছে ১ হাজার ৪৮৬ কোটি টাকা। উধমপুর-শ্রীনগর-বারামুল্লার মধ্য়ে সংযোগ স্থাপন করতে সাহায্য করবে এই সেতু। প্যারিসের আইফেল টাওয়ারের থেকে এই সেতুর উচ্চতা ৩৫ মিটার বেশি। এক বছরের মধ্যে সেতুর কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে বলে আশাবাদী রেল। উত্তর রেলের জেনারেল ম্যানেজার আশুতোষ গঙ্গাল বলেছেন, “উত্তর রেলের জন্য এটি এক ঐতিহাসিক দিন। USBRL প্রজেক্ট এক মাইলস্টোন অতিক্রম করল। গোটা দেশের সঙ্গে কাশ্মীরের সংযোগ রক্ষা করবে এই সেতু। আর আড়াই বছরের মধ্যে গোটা প্রজেক্টের কাজ শেষ হয়ে যাবে।”

কিছুদিন আগে এই সেতুর আর্চের নিচের অংশ তৈরির কাজ শেষ হয়। তখন একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। তিনি বলেন, এটি একটি ঐতিহাসিক মুহুর্তে। চন্দ্রভাগা নদীর উপর যে সেতু তৈরি হচ্ছে তার আর্চ বটম তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। এরপরে, ইঞ্জিনিয়ারিং মার্ভেলের আর্চ আপার তৈরি হবে। আর সোমবার সেতুর গোটা আর্চ তৈরির কাজই শেষ হল।
একাধিক চ্যালেঞ্জ ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই সেতুর কাজ করেছেন কর্মীরা। ভৌগলিকভাবে ঝুঁকিপূর্ণ এই জায়গায় ইঞ্জিনিয়র ও অন্যান্য কর্মীরা ওভারটাইম কাজ করেছেন। বিশ্বের উচ্চতম সেতু বানাতে দিনরাত এক করে কাজ করেছেন তাঁরা। উত্তর রেলওয়ের তরফে জানানো হয়েছে, সবচেয়ে শক্ত কাজ হল ১১১ কিলোমিটার লম্বা সেকশনের। এটি উধমপুর-শ্রীনগর-বারামুল্লা রেল লিঙ্কের। এই কাজ ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্য়ে শেষ হওয়ার কথা। এর সাহায্যে ভারতের সঙ্গে কাশ্মীর রেল লাইনের মাধ্যমে যুক্ত হবে।

Related posts

মডার্নার আরও ৩৫ লাখ ডোজ টিকা আসছে সোমবার

News Desk

বোমারু বিমান–ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে যুদ্ধে পটু জেনারেলকে ইউক্রেনে কমান্ডার করলেন পুতিন

News Desk

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হয়ে পশ্চিমবঙ্গে প্রথম মৃত্যু

News Desk

Leave a Comment