free hit counter
আন্তর্জাতিক

যাত্রীচাপ কমাতে বিমানবন্দর চালু করছে কাতার

ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বকাপ উপলক্ষে দর্শকদের জন্য কোনো কমতিই রাখতে চাইছে না কাতার। চলতি বছরের ২০ নভেম্বর পর্দা উঠছে গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ খ্যাত ফুটবল বিশ্বকাপের। দর্শকদের সুবিধার জন্য হোটেল নির্মাণ, ইলেকট্রিক বাস নামানোসহ বেশ কয়েকটি ঘোষণা দিয়েছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ। এবার যাত্রীচাপ কমাতে দোহা বিমানবন্দর পুনরায় চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি।
বিশ্বকাপ উপলক্ষে ১০ লাখ দর্শক ও সমর্থক কাতার ভ্রমণ করবে। খেলা চলাকালে প্রতিদিন দেশটিতে গড়ে প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজার যাত্রীর আগমন ঘটবে বলে ধারণা করছে কাতার এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ। এরই মধ্যে বিমানবন্দরে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে ১৮ শতাংশ। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত জুন মাসেই দেশটির হামাদ বিমানবন্দর তিন মিলিয়ন যাত্রী পরিবহন করেছে।

২০১৪ সালে হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর চালু হলে দোহা বিমানবন্দর আধা-অবসরে চলে যায়। কেবল কাতারের রাজপরিবার ও ভিআইপিরা এই বন্দরে অবতরণ করত। এছাড়া আরো ব্যবহার করত দেশটির বিমানবাহিনী। তবে বিশ্বকাপে যাত্রীদের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে নতুন রূপে চালু হবে দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে দোহার পুরনো বিমানবন্দর থেকে ফের উড়বে বাণিজ্যিক বিমান।

কাতার এয়ারওয়েজ জানিয়েছে, ‘চলতি সপ্তাহেই মিসরীয় ও সৌদি লীগ চ্যাম্পিয়নদের মধ্যে লুসাইল সুপার কাপ ম্যাচের জন্য ভ্রমণ করতে আসা ফ্লাইট গুলো দোহা বিমানবন্দরে অবতরণ করবে।

এছাড়াও কুয়েতের জাজিরা এয়ারওয়েজ, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফ্লাই দুবাই, ওমানের সালাম এয়ার এবং তুরস্কের পেগাসাস এয়ারলাইন্স ১৫ তারিখ থেকেই দোহা বিমানবন্দরের টিকেট বিক্রি শুরু করতে পারবে।’ দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে বিভিন্নভাবে সমস্যার সম্মুখীন হয়। যার ফলে বন্দরটিকে প্রসারিত করা হয়। নতুন বিমানবন্দর খোলার আগে প্রতি বছর ১২ মিলিয়ন যাত্রী পারাপার হতো এই বিমানবন্দর দিয়ে। এটি ছিল অন্যতম দীর্ঘ একটি বেসামরিক বিমানবন্দর যার আয়তন ৪,৫৭০ মিটার। কাতার বিমানবন্দরের মূল ভিত্তি ছিল এই দোহা বিমানবন্দর। ২০১০ সালে এটি বিশ্বের ২৭তম ব্যস্ততম মালবাহী বিমানবন্দর হিসেবে বিবেচিত হয়। ২০১৪ সালের ২৭ মে দোহা বিমানবন্দরটি সমস্ত নির্ধারিত বাণিজ্যিক বিমান চলাচল নতুন হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্থানান্তরিত করা হয়।

২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক কাতার চায় আগের সব বিশ্বকাপকে পেছনে ফেলে ইতিহাস গড়তে। এবারের আসর হবে সবচেয়ে বিলাসবহুল বিশ্বকাপ এমনটা ধারণা করছেন তারা। বিমানবন্দর চালুর আগে দর্শকদের সুবিধার জন্য নতুন ৩টি পাঁচতারকা হোটেল চালু প্রস্তুতিও সম্পন্ন করেছে তারা।

ডি- এইচএ

Source link