Image default
আন্তর্জাতিক

মহামারির মধ্যেও বাড়ছে ধনীর সংখ্যা

কোভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারির এই চরম দুর্দিনেও বিশ্বে বেড়েছে ধনীর সংখ্যা। যারা আগে থেকেই ধনী ছিলেন, তাদের অধিকাংশই আরও ধনী হয়েছেন; বেড়েছে তাদের আয়। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রভাবশালী ফোর্বস ম্যাগাজিন ৩৫তম বছরের মতো ধনকুবেরদের তালিকা প্রকাশ করেছে। তালিকায় এ বছর নতুন করে যুক্ত হয়েছে ৬৬০ জনের নাম।

ফোর্বসের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, নতুন যুক্ত হওয়া ৬৬০ ধনকুবেরের মধ্যে ৪৯৩ জনই প্রথমবারের মত তালিকায় জায়গা পেয়েছেন। এক বছরে ধনকুবেরদের এই এলিট ক্লাবের সদস্যদের মোট সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে পাঁচ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। তালিকায় প্রায় ৮৬ শতাংশেরই মোট সম্পদের পরিমাণ আগের বছরের চেয়ে বেড়েছে। অর্থাৎ, আটজনের মধ্যে সাতজনেরই সম্পদ বেড়েছে।

মহামারির মধ্যেও সম্পদ বেড়ে যাওয়া নিয়ে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার অর্থনীতিবিদ গ্যাব্রিয়েল জাকম্যান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম চারশ ধনীর বর্তমান সম্পদ মার্কিন জিডিপির ১৮ শতাংশ। যা ২০১০ সালের হিসাবের দ্বি গুণ। এদিকে, টানা চতুর্থবারের মত ফোর্বসের এই তালিকার শীর্ষে রয়েছেন অ্যামাজন প্রধান জেফ বেজোস। বেজোসের মোট সম্পদের পরিমাণ দেখানো হয়েছে ১৭৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ১৫১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সম্পদ নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন টেসলা প্রধান এলন মাস্ক।

ফোর্বস প্রকাশিত দুই হাজার ৭৫৫ ধনকুবেরের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন মার্কিন রিয়্যালিটি শো তারকা কিম কারডাশিয়ান ওয়েস্ট। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, অক্টোবরে মহামারির মধ্যেই তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৭৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে বেড়ে এক বিলিয়ন মার্কিন ডলারে ঠেকে। লকডাউনের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই তারকা তার ব্র্যান্ডের আরামদায়ক ঘর পরার কাপড়ের বিষয়ে প্রচার চালালে তাতে বিক্রি ব্যাপকহারে বেড়ে যায়। মাইক্রো ব্লগিং ওয়েবসাইট টুইটারে তার ফলোয়ার প্রায় সাত কোটি, আর ইনস্টাগ্রামের ফলোয়ার ২১ কোটি ৩০ লাখের বেশি।

কিম কারডাশিয়ানের স্বামী কানয়ে ওয়েস্টও এক দশমিক আট বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সম্পদ নিয়ে জায়গা পেয়েছেন ধনকুবেরদের এই তালিকায়। অবশ্য ২০২০ সালের মে মাসে মোট সম্পদ বাড়িয়ে উপস্থাপন করার দায়ে কিমের সৎ বোন কাইলি জেনারকে ধনকুবেরদের এই তালিকা থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়।

এছাড়াও মাইক্রোসফ্ট এবং বিল এন্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ১২৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সম্পদ নিয়ে এই তালিকার চতুর্থ স্থানে রয়েছেন। ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ আছেন তালিকার পঞ্চম স্থানে। ভারতের মুকেশ আম্বানি সাড়ে ৮৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের মালিক হিসেবে এই তালিকার দশম স্থানে জায়গা করে নিয়েছেন।

Related posts

গুতেরেসের সফরকালে কিয়েভে রাশিয়ার রকেট হামলা

News Desk

ইরানে একদিনে আট বিক্ষোভকারীকে হত্যা

News Desk

ইতালিতে ক্যাবল কার ছিড়ে নিহত ৯

News Desk

Leave a Comment