করোনা সহায়তা হিসেবে ভারতে তিনটি অক্সিজেন প্ল্যান্ট (জেনারেটর) এবং ১ হাজার ভেন্টিলেটর পাঠিয়েছে ব্রিটেন; আর এ কাজে ব্যবহার করা হয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম কার্গো বিমান আন্তোনভ ১২৪ এয়ারক্রাফট।

ব্রিটেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে এ বিষয়ে বলা হয়েছে, নর্দার্ন আয়ার‌ল্যান্ডের বেলফাস্ট শহরের বিমানবন্দর থেকে শুক্রবার রাতে দিল্লির উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছে আন্তোনভ ১২৪, রোববার সকাল নাগাদ দিল্লি পৌঁছাবে বিমানটি।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, যে তিনটি অক্সিজেন প্ল্যান্ট ভারতে পাঠানো হয়েছে সেগুলোর প্রতিটির ওজন ৬ টন এবং ৪০ ফুট প্রশস্ত। এক একটি প্ল্যান্ট বা জেনারেটর প্রতি মিনিটে ৫০০ লিটার অক্সিজেন উৎপাদনে সক্ষম। প্রতিটি প্ল্যান্ট উৎপাদিত অক্সিজেন একই সময়ে ৫০ জন মানুষ নিঃশ্বাস নিতে পারবেন।

এই ত্রাণ পাঠানো সংক্রান্ত যাবতীয় কাজের অর্থায়ন এসেছে ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পররাষ্ট্র, কমনওয়েলথ ও উন্নয়ন বিভাগ থেকে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি অনুযায়ী, দিল্লিতে পৌঁছানোর পার বিমানবন্দর থেকে সেগুলো সংগ্রহ করবেন রেডক্রস ভারতীয় বাহিনীর সদস্যরা।

ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব এক বার্তায় বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডে যে অক্সিজেন প্ল্যান্টগুলো পাঠানো হয়েছিল, সেখানকার পরিস্থিতির উন্নতি ঘটায় অতিরিক্ত তিনটি অক্সিজেন প্ল্যান্ট ভারতে পাঠানো হলো। যুক্তরাজ্য ও ভারত মিলিতভাবে করোনা মহামারির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। অন্যরা নিরাপদ না হওয়া পর্যন্ত আমরা কেউই নিরাপদ নই।’

পৃথক এক বার্তায় ব্রিটেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেন, ‘ভারতের বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে আমাদের হৃদয় ভেঙে যাওয়ার মতো অবস্থায় আছে। এই দুরূহ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ভারতের বন্ধু হিসেবে আমরা সবসময় আছি এবং থাকব।’

বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতে এ রোগে মৃত্যুর হিসেবে নতুন রেকর্ড করেছে ভারত। শুক্রবার দেশটিতে মারা গেছেন ৪ হাজার ১৮৭ জন করোনা রোগী। ভারতের জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা ও আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানগুলোর তথ্য বলছে, গত বছর মহামারি শুরুর পর থেকে কোনো দেশে এই রোগে একদিনে এর আগে এত বেশি সংখ্যক মৃত্যু হয়নি।

শনিবার (৮ মে) ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মারা গেছেন ৪ হাজার ১৮৭ জন করোনা রোগী, আর এ রোগে নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা পৌঁছেছে ৪ লাখ ১ হাজার ৩২৬ জনে। দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ৩৭ লাখ ২৩ হাজার ৪৪৬ জন।

গত ৩০ এপ্রিল প্রথমবারের মত দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা চার লাখ অতিক্রম করে ভারতে। তারপর কয়েকদিন এই সংখ্যা কিছুটা কম থাকলেও গত তিন দিন ধরে টানা ৪ লাখের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন দেশটিতে।

এর মধ্যে শুধু এপ্রিল মাসেই ৬৬ লাখ মানুষ নতুন আক্রান্ত রোগীর তালিকায় নাম লিখিয়েছেন।

লাগামহীন এই সংক্রমণ পরিস্থিতিতে নানামূখী বিপর্যয়ের মধ্যে পড়েছে ভারত। সবচেয়ে সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে দেশটির স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। অনেক রাজ্যের হাসপাতালগুলোয় শয্যার সংকট দেখা দেওয়ায় চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না সেখানকার করোনা রোগীরা। বাড়িতে থেকে প্রায় বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছেন তাদের অনেকেই।

Related posts

ধর্মগুরু রাম রহিম সিং করোনায় আক্রান্ত

News Desk

কেমন কাটবে এবার রানি এলিজাবেথের ৯৫তম জন্মদিন?

News Desk

টিকা কিনবে দিল্লি সরকার, দরপত্র আহ্বান

News Desk

Leave a Comment