free hit counter
আন্তর্জাতিক

প্রথম দিনের বিতর্কে উৎরে গেলেন সুনাক

ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক

কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে প্রবেশের আগে এই বক্তব্য দিয়ে মুহূর্ত সময় নষ্ট না করে একটা মেধাবী, অভিজ্ঞ, ঐক্যবদ্ধ ও চমক লাগানো মন্ত্রিসভা গঠনের মধ্য দিয়ে গভীর অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলায় যাত্রা শুরু করেছেন ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক।

চমকের মন্ত্রিসভা: উপপ্রধানমন্ত্রী ও বিচারমন্ত্রী ডমিনিক র‌্যাব, পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদে জেমস ক্লেভারলি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদে সুয়েলা ব্রাভারম্যান এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেসও বহাল আছেন। জেরেমি হান্টকে অর্থমন্ত্রী পদে রেখে অন্য পদগুলোতে নতুন মন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে স্টিভ বারক্লে হয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। গ্রান্ট শ্যাপস ব্যবসাবিষয়ক মন্ত্রী, পেনি মর্ডান্ট হাউস অব কমন্সের নেতা, জিলিয়ান কিগান শিক্ষামন্ত্রী, নাদিম জাহাউই কনজারভেটিভ পার্টির চেয়ারম্যান, কেমি ব্যাডেনোচ বাণিজ্যমন্ত্রী, মেল স্ট্রাইড কর্ম ও পেনশন বিষয়ক মন্ত্রী, মিশেল ডনেলান সংস্কৃতি মন্ত্রী, থেরেসি কফি পরিবেশ মন্ত্রী, সাইমন হার্ট চিফ হুইপ, মার্ক হারপার পরিবহন মন্ত্রী, টম টুগেনধাত নিরাপত্তা মন্ত্রী এবং রবার্ট জেনরিক অভিবাসন মন্ত্রী।

চমকের পর চমক: দলের কট্টর বিরোধীদের মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত করে সুনাক রীতিমতো চমকে দিয়েছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। আরো বেশি চমকে দিয়েছেন গতকাল প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তরের জবাবে বিরোধী লেবার দলের জাঁদরেল নেতা কিয়ার স্টারমার্কের তীব্র আক্রমণাত্মক খোচার জবাবে হাসিমুখে জবাব দিয়ে। তাছাড়া পাল্টা প্রশ্নে কুপোকাত করেছেন অভিজ্ঞ বিরোধী নেতাকে।

গতকাল প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রথমেই বিরোধী দল আক্রমণ চালায় গত সপ্তাহে পদত্যাগকারী লিজ ট্রাসের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুয়েলা ব্রাভারম্যানকে পুনরায় নিয়োগ দেয়াকে কেন্দ্র করে। তারা বলছিলেন, প্রথমেই জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে সততা ও মর্যাদার অঙ্গীকার ভঙ্গ করেছেন সুনাক।

উত্তরে ঋষি বলেন, সুয়েলা অত্যন্ত অভিজ্ঞ। এই দপ্তরে তার অভিজ্ঞতাকে দেশ অবজ্ঞা করতে পারে না। তিনি আবাসন ও সীমান্ত সমস্যয় দেশের পক্ষে জোরাল ভূমিকা রাখতে পারবেন। তাছাড়া তিনি যে কারণে পদত্যাগ করেছিলেন সে কারণটি তার ভুল ছিল না। প্রযুক্তিগত ত্রুটি।

মধ্যবর্তী নির্বাচনের উত্তর: বিরোধী এমপিদের মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবির ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলেন, এটা আপনারা বলতে পারেন কি? ২০১৯ ম্যান্ডেট অনুযায়ী আমরা জনগণকে মেয়াদ শেষের আগে ভোটের দৌড়ে ফেলতে পারি না। এখন ভোটের সময় নয়। আগে সংকট উত্তরণ। তাছাড়া আমি একটি ইশতেহারের ওপর দাঁড়িয়ে আছি। আমাদের কছে আগে দেশ, তারপরে দল, তারপরে ব্যক্তি। কিন্তু আপনাদের কাছে আগে ব্যক্তি, তারপরে দল, শেষে দেশ। তাই বিশ্ব সংকটের সময় আপনারা ভোট চান। সরকারি দলের এমপিদের মুহুর্মুহু করতালি আর উল্লাসের সঙ্গে টেবিল থাপড়ানোর কারণে স্পিকার বলেন টেবিল ভেঙ্গে যেতে পারে।

প্রথম ফোন জেলোনেস্কিকে: দায়িত্ব নেয়ার পরে প্রথম ফোন কল করেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলোনেস্কিকে এবং দ্বিতীয়টি ছিল মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে।

বাজেট পরিকল্পনা পিছিয়েছে: নতুন সরকারের অর্থনৈতিক পরিকল্পনা দেয়ার কথা ছিল ৩০ অক্টোবর। কিন্তু আগের অর্থমন্ত্রীকে বহাল রাখলেও ঋষি নিজের পরিকল্পনা সংযুক্ত করার জন্য আগামী ১৭ নভেম্বর তারিখ ঘোষণা করেন।

অক্সফোর্ডের দখলে ১০ নম্বর: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে গর্ডন ব্রাউন ছাড়া প্রত্যেক প্রধানমন্ত্রী অক্সফোর্ডে পড়াশোনা করেছেন।

Source link

Bednet steunen 2023