free hit counter
আন্তর্জাতিক

প্রথমবারের মতো নির্বাচনে হারলেন মাহাথির মোহাম্মদ

৫৩ বছরের রাজনৈতিক জীবনে প্রথমবারের মতো নির্বাচনে পরাজিত হলেন মালয়েশিয়ার বর্ষীয়ান নেতা মাহাথির মোহাম্মদ (৯৭)। গতকাল শনিবার মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ হয়। নির্বাচনে নিজের আসন থেকে হেরে গেছেন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ৯৭ বছর বয়সী মাহাথির মোহাম্মদ। এ পরাজয়কে তাঁর সাত দশকের রাজনৈতিক জীবনের ইতি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

মাহাথির মোহাম্মদ দুই দফায় দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে গতকালের নির্বাচনে তিনি নিজের লংকাউয়ি আসনে চতুর্থ হয়েছেন। এ আসনে পাঁচজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। আসনে জিতেছেন মোহাম্মদ সুহাইমি আবদুল্লাহ। তিনি পেরিকাতান জোট থেকে নির্বাচন করেন। এ জোটের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মুহিউদ্দিন ইয়াসিন।

১৯৬৯ সালে নির্বাচনে দাঁড়ানোর পর থেকে মাহাথিরের এটা প্রথম হার।
মাহাথির মোহাম্মদ একটি জোটের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তিনি ক্ষমতাসীন বারিসান ন্যাশনালের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে নির্বাচনে প্রচার চালান। তবে এবারের নির্বাচনে তাঁর জোট মূল প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল না। বারিসান জোটকে এবার মুহিউদ্দিনের জোটের পাশাপাশি মাহাথিরের দীর্ঘদিনের প্রতিদ্বন্দ্বী আনোয়ার ইব্রাহিমের জোটের সঙ্গে লড়তে হচ্ছে।

এর আগে গত মাসে মাহাথির বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, নির্বাচনে হারলে তিনি রাজনীতি থেকে অবসরে যাবেন।

এএফপি জানায়, শনিবার সকাল থেকেই ভোটারদের শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে ভোটকেন্দ্রে আসতে দেখা যায়। নির্বাচনী লড়াইয়ে বিভিন্ন কেলেঙ্কারিতে সাজাপ্রাপ্ত সাবেক নেতা নাজিব রাজ্জাকের দল ক্ষমতা ধরে রাখার চেষ্টা করলেও কঠিন লড়াইয়ের আভাস পাচ্ছেন বিশ্লেষকেরা।

বিরোধীদলীয় নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম দেশটিতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রচার চালিয়েছেন। নির্বাচন কমিশন বলেছে, দেশটির ২ কোটি ১০ লাখ নিবন্ধিত ভোটারের মধ্যে ভোট গ্রহণ বন্ধ হওয়ার দুই ঘণ্টা আগে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৭০ শতাংশ ভোট পড়েছিল।

দেশটিতে স্থিতিশীলতা ফেরানোর চেষ্টার অংশ হিসেবে তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব আগাম নির্বাচনের ডাক দিয়েছেন। সাধারণ নির্বাচনকে ১৯৫৭ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটির স্বাধীনতার পর সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন হিসেবে বিবেচনা করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা। বুথফেরত এক জরিপে দেখা গেছে, আনোয়ার ইব্রাহিমের জোট ২২২ আসনের পার্লামেন্টে ৮২ আসন পেতে পারেন।

Bednet steunen 2023