free hit counter
আন্তর্জাতিক

পোল্যান্ডে আঘাত করা ক্ষেপণাস্ত্র ইউক্রেনেরই ছিল

ন্যাটো মহাসচিব জেন্স স্টোলটেনবার্গ। ছবি: সংগৃহীত

ইউক্রেন নয়, পোল্যান্ডে ক্ষেপণাস্ত্র বিস্ফোরণের দায় রাশিয়ার বলে মন্তব্য করে ন্যাটোর মহাসচিব জেন্স স্টোলটেনবার্গ বলেছেন, আমাদের প্রাথমিক পর্যালোচনা ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, পোল্যান্ডে বিস্ফোরিত রাশিয়ার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের হামলার মোকাবিলায় ইউক্রেনীয় ভূখণ্ড রক্ষায় ইউক্রেনীয় আকাশ প্রতিরক্ষা বাহিনী হয়তো ছুড়েছে। সিএনএনের এক প্রতিবেদন সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

বুধবার (১৬ নভেম্বর) ব্রাসেলসে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে মঙ্গলবার রাতে ইউক্রেনের সীমান্তবর্তী পোল্যান্ডের ভূখণ্ডে একটি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে। ইউক্রেন-রাশিয়ার চলমান যুদ্ধে এই প্রথম কোনও ন্যাটো দেশ সরাসরি আক্রান্ত হলো।

সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ন্যাটো মহাসচিব বলেন, স্টোলটেনবার্গ বলেন, ন্যাটো এই ঘটনায় ইউক্রেনকে দায়ী করে না। কারণ দেশটির আত্মরক্ষার অধিকার আছে। পোল্যান্ডে যা ঘটেছে তার দায় রাশিয়ার। রাশিয়া ইউক্রেনে আক্রমণ করার কারণেই পোল্যান্ডে এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় পোল্যান্ড ন্যাটো চুক্তির আর্টিকেল ৪ এর শর্তাবলীর অধীনে অন্যান্য ন্যাটো দেশগুলোর সঙ্গে বৈঠকের জন্য অনুরোধ করেনি। ওই অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, কোনো দেশ যদি মনে করে যে তাদের নিরাপত্তা হুমকির মুখে রয়েছে তাহলে তারা এই আহ্বান জানাতে পারে।

ন্যাটো মহাসচিব বলেন, ইউক্রেনীয় শহর ও গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো লক্ষ্য করে ছোড়া রুশ ক্ষেপণাস্ত্রকে ভূপাতিত করার অধিকার অবশ্যই ইউক্রেনের রয়েছে। এমন ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে ইউক্রেন। আর যদি এমনটি ঘটেও তাহলে তা যেনও নিয়ন্ত্রণের বাইরে না যায় সেই চেষ্টা করা হবে।

এর আগে মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) ক্ষেপণাস্ত্র বিস্ফোরিত হওয়ার পর পোল্যান্ড দাবি করেছিল, রুশ নির্মিত ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছে। শুরুতে ধারণা করা হয়েছিল, রাশিয়ার ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র পোল্যান্ডে আঘাত হেনেছে। ইউক্রেনও একই দাবি করেছিল।

কিন্তু পরে যুক্তরাষ্ট্র, পোল্যান্ড ও ন্যাটো বলেছে, এটি একটি দুর্ঘটনা। ইউক্রেনের আকাশ প্রতিরক্ষা বাহিনীর ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র পোল্যান্ডের ভূখণ্ডে আঘাত হেনে থাকতে পারে। রাশিয়া পোল্যান্ডকে নিশানা করে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে বলে কোনও ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি।

এমকেএইচ

Source link

Bednet steunen 2023