free hit counter
আন্তর্জাতিক

পৃথিবীর দীর্ঘতম কাচে তৈরি ব্রিজ এখন ভিয়েতনামে

২০৭৩ ফুট দৈর্ঘ্যর এই ব্রিজটি খুলে দেয়া হয় গত এপ্রিলে

ভিয়েতনামে কাচে তৈরি একটি ব্রিজ গিনেস বুক অব রেকর্ডসে স্থান পেয়েছে। পৃথিবীর দীর্ঘতম কাচের তৈরি সেতুর শিরোপা এত দিন ছিল চীনের গুয়াংডং প্রদেশের একটি সেতুর দখলে। সেই রেকর্ড ভেঙে দিতে পেরে খুশি ভিয়েতনাম প্রশাসন। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু মানুষ ছুটে গেছেন নবনির্মিত এই সেতু দেখতে। ধীরে ধীরে সারা পৃথিবীর পর্যটকরাই এই ঝুলন্ত কাচের সেতু দেখতে ভিড় জমাবেন বলে আশা ভিয়েতনামের পর্যটন দপ্তরের।

রেকর্ডে বলা হয়েছে, ব্রিজটির নাম ব্যাচ লং। কাচের তৈরি বিশ্বে সবচেয়ে বৃহৎ এই ব্রিজটি। এর পাটাতনে ব্যবহার করা হয়েছে তিন স্তর বিশিষ্ট কাচ। প্রতিটি স্তরের পুরুত্ব ৪০ মিলিমিটার। একসঙ্গে ব্রিজটি ধারণ করতে পারে ৪৫০ জন মানুষকে। বার্তা সংস্থা সিএনএন ও রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পর্যটকদের জন্য এই ব্রিজটি খুলে দেয়া হয়েছে এপ্রিলে। এর দৈর্ঘ্য ২০৭৩ ফুট।

স্থানীয় পর্যটন বিষয়ক কর্তৃপক্ষ এবং ফরাসি একটি নির্মাণ কোম্পানি যৌথভাবে এই ব্রিজটি তৈরি করেছে। তবে মজার বিষয় হলো ব্রিজটিতে কোনা খুঁটি নেই। মাটি থেকে প্রায় ৪৯২ ফুট ওপরে ঝুলন্ত অবস্থায় আছে এ ব্রিজ। এর অবস্থান রাজধানী হ্যানয় থেকে উত্তর-পশ্চিমে সোন লা প্রদেশে। এই প্রদেশটি লাওস সীমান্তের কাছে। এতে উঠেছিলেন ভি থি থু নামের একজন পর্যটক।

তিনি রয়টার্সকে বলেছেন, ব্রিজটি এত উঁচুতে যে আমি নিচের দিকে তাকানোর সাহস দেখাই নি। ৭২ বছর বয়সী আরেক পর্যটক ট্রান সুয়ান তিন বলেছেন, প্রথমেই এই ব্রিজটি দেখলে আপনার গা শিউরে উঠবে। তবে যদি আপনি ১০টি কাচের প্যানেল পেরিয়ে যান তখন আর ভয় থাকবে না। এ জন্য পাটাতনে যে কাচ ব্যবহার করা হয়েছে তা তৈরি করা হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থায়। এটা এতটাই শক্ত যে একসঙ্গে ৪৫০ জন মানুষকে ধারণ করতে পারে। এর টেকসইয়ের পরীক্ষা করা হয়েছে গত মাসে। এ জন্য ব্রিজের ওপর দিয়ে চালানো হয়েছে একটি এসইউভি বা স্পোর্টস জাতীয় গাড়ি।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের প্রতিনিধি গ্লেন পোলার্ড বলেছেন, প্রকৌশলীরা পাহাড়ের চূড়ায় এই ব্রিজ তেরি করেছেন। এতে প্রকৃতি, চারদিকের সবুজ, পাথর, সবকিছু বিস্ময়করভাবে ফুটে উঠেছে।

ডি-ইভূ

Source link