free hit counter
আন্তর্জাতিক

পৃথিবীর তাপমাত্রা দেড় ডিগ্রিতে আটকানোর সিদ্ধান্ত বহাল

ছবি: সংগৃহীত

মিশরের শারমুল শেখ শহরে চলমান ২৭তম জলবায়ু সম্মেলনে (কপ-২৭) বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) একটি চুক্তির প্রথম খসড়া প্রকাশ করা হয়েছে। খসড়ায় চলতি শতাব্দীতে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে আটকে রাখার আগের সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়েছে। কিন্তু এটা কার্যকর করার জন্য যেসব নীতিমালা দরকার, তার অনেক কিছু নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। তাই খসড়া প্রস্তাব কতটা সফল হবে তা নিয়ে শঙ্কা রয়ে গেছে।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে দরিদ্র দেশগুলো ঝড়, খরা এবং বন্যার মতো দুর্যোগে বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়েছে। তা কাটিয়ে উঠতে ২০২০ সাল থেকে ধনী দেশগুলোর বছরে ১০০ বিলিয়ন ডলার জলবায়ু তহবিল দেওয়ার কথা। তিন বছর পার হতে চললেও তা আলোর মুখ দেখেনি। ২০২৩ সাল থেকে এ তহবিল বাস্তবায়নের কাজ শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

কিন্তু তহবিলটির যে কয়েক বিলিয়ন অর্থ ঘাটতি রয়েছে, তা কীভাবে পূরণ হবে তা নিয়ে কোনো কিছু উল্লেখ করা হয়নি খসড়া প্রস্তাবে। খোদ কপ-২৭ সভাপতি সামেহ শউকরি এ বিষয়ের নিন্দা করেছেন।

বৃহস্পতিবার সম্মেলনে আসা প্রতিনিধিদের চিঠি দিয়েছেন শউকরি। চিঠিতে তিনি বলেছেন, ‘সময় আমাদের পক্ষে নেই। আসুন আমরা একসঙ্গে বসি এবং শুক্রবারের মধ্যে কোনো একটা মীমাংসায় আসি।’ ৬ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া কপ২৭ শুক্রবার ১৮ নভেম্বর শেষ হবে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ জলবায়ু দূত জন কেরি গত সপ্তাহে কোনো দেশের নাম উল্লেখ না করে বলেছিলেন, কয়েকটি দেশ ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সীমাবদ্ধ রাখার বিষয়টি মানতে চাইছে না। তবে চীনের দাবি, তারা ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস লক্ষ্যমাত্রার বিরোধী নয়।

চীন ও যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের দুটি বৃহত্তম গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমনকারী দেশ। তাইওয়ানকে নিয়ে সৃষ্ট উত্তেজনায় কিছুদিন বন্ধ থাকার পর আবারও দুই দেশ জলবায়ু সহযোগিতা পুনরায় শুরু করতে সম্মত হয়েছে।

তবে এ পর্যন্ত যেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে, তা এবং প্রস্তাবিত খসড়া নিয়ে সন্তুষ্ট নয় যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও কানাডা।

এবারের খসড়া নিয়ে গত বছর অনুষ্ঠিত কপ২৬-এর যুক্তরাজ্যের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘খসড়ায় এখনও অনেক ফাঁক রয়েছে।’ প্রস্তাবিত খসড়াটি কয়েক দফায় পরিবর্তিত হয়ে কপ-২৭-এর শেষ দিন একেবারে শেষ মুহূর্তে গৃহীত হওয়ার কথা রয়েছে।

Source link

Bednet steunen 2023