free hit counter
আন্তর্জাতিক

পার্থ-অর্পিতার বিরুদ্ধে পাহাড়প্রমাণ নথি

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের সাবেক শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়

শিক্ষক নিয়োগে ‘দুর্নীতি’ মামলায় রাজ্যের সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেসের সাবেক পদাধিকারী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তার ‘ঘনিষ্ঠ’ হিসেবে পরিচিত অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র তৈরি করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। ট্রাঙ্কে ভরে সেই চার্জশিট এবং পাহাড়প্রমাণ নথি নিয়ে যাওয়া হয়েছে ব্যাঙ্কশাল আদালতে। ইডি সূত্রে জানা গেছে, পার্থ ও অর্পিতার নামে মোট ১০৩ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

ইডি সূত্র জানিয়েছে, পার্থ ও অর্পিতার বিরুদ্ধে মূল চার্জশিটটি ১৭২ পাতার। এর সঙ্গে রয়েছে বিপুল পরিমাণ নথিও। সোমবার সেই অভিযোগপত্র ও নথি ট্রাঙ্কে ভরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ব্যাঙ্কশাল আদালত চত্বরে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

নিয়োগ ‘দুর্নীতি’ মামলায় পার্থ এবং অর্পিতার নামে কয়েক কোটি টাকার সম্পত্তির হদিস পাওয়া গিয়েছে বলে তদন্তের প্রথম ধাপেই জানিয়েছিল তদন্তকারী সংস্থা। অর্পিতার দু’টি ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছিল নগদ কোটি কোটি টাকা ও সোনার গয়না।

ঘটনাচক্রে, বেশ কয়েক দফায় তল্লাশি চালিয়ে ওই নগদ টাকা উদ্ধারের পর তাও নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বেশ কয়েকটি ট্রাঙ্কে করেই।পার্থ এবং অর্পিতার গ্রেপ্তার হওয়ার ৫৮ দিনের মাথায় চার্জশিট দিল ইডি। সেই পাহাড়প্রমাণ নথি এবং চার্জশিট আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে দুটি ট্রাঙ্কে করে।

গত ২২ জুলাই এসএসসি নিয়োগ ‘দুর্নীতি’ কাণ্ডে নাকতলায় পার্থের বাড়িতে হানা দিয়েছিল ইডি। তার পর টানা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাকে। ওই দিন গভীর রাতে (তারিখ অনুযায়ী ২৩ জুলাই, শনিবার) গ্রেপ্তার করা হয়েছিল পার্থকে। সাবেক মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন তার ‘ঘনিষ্ঠ’ হিসেবে পরিচিত অভিনেত্রী ও মডেল অর্পিতার টালিগঞ্জের আবাসনে হানা দেন তদন্তকারীরা। ওই ফ্ল্যাট থেকে নগদ প্রায় ২২ কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়। পরে অর্পিতার বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাটেও খোঁজ মেলে টাকার পাহাড়ের। সেখানে প্রায় ২৮ কোটি টাকা পাওয়া যায়। সব মিলিয়ে, প্রায় ৫০ কোটি নগদ টাকা ও সোনাদানা উদ্ধার ঘিরে শোরগোল পড়ে যায় রাজ্য জুড়ে। টাকা উদ্ধারের পর গ্রেপ্তার করা হয় অর্পিতাকেও।

Source link