free hit counter
আন্তর্জাতিক

চীনা ঋণের ফাঁদে এশিয়ার ৩ দেশ

প্রতীকী ছবি

চীনের কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে ঋণ নিয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার তিন দেশ শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান ও মালদ্বীপ। চীনের কাছে সাত হাজার ৭৩০ কোটি ডলারের বৈদেশিক ঋণ রয়েছে পাকিস্তানের। প্রভাবশালী মার্কিন ম্যাগাজিন ফোর্বসের একটি প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

আবার ২০২০ সালের শেষ নাগাদ মালদ্বীপের মোট ঋণের পরিমাণ দাঁড়ায় আট হাজার ৬০০ কোটি রুফিয়া (এমভিআর)। যার মধ্যে চার হাজার ৪০০ কোটি এমভিআর বৈদেশিক ঋণ।

২০২০ সালের বিশ্বব্যাংকের তথ্যের বরাত দিয়ে ফোর্বস জানায়, বিশ্বজুড়ে ৯৭টি দেশ চীনা ঋণের অধীনে রয়েছে। চীনের কাছে সবচেয়ে বেশি বৈদেশিক ঋণ রয়েছে পাকিস্তানের সাত হাজার ৭৩০ কোটি, অ্যাঙ্গোলা তিন হাজার ৬৩০ কোটি, ইথিওপিয়া ৭৯০ কোটি, কেনিয়ার ৭৪০ কোটি ও শ্রীলঙ্কা ৬৮০ কোটি ডলার।

এদিকে মালদ্বীপের সংবাদপত্র জানিয়েছে, অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুসারে, ২০২২ সালের প্রথম প্রান্তিকের শেষে মালদ্বীপের ঋণ নয় হাজার ৯০০ কোটি এমভিআরে পৌঁছেছে। মালদ্বীপে চীনের ঋণে অর্থায়ন করা প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে সিনামালে সেতু নির্মাণ ও বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্প।

শ্রীলঙ্কা দুই দশকের মধ্যে প্রথম দেশ যেটি তার সার্বভৌম ঋণে খেলাপি করেছে। দেশটির খারাপ অর্থনৈতিক অবস্থার কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে চীনের সঙ্গে ৫২০ কোটি ডলারের ঋণ নিয়ে পুনরায় আলোচনা করতে হয়েছিল।

এমকে

Source link