free hit counter
আন্তর্জাতিক

ক্ষতিগ্রস্ত তেল সংস্থাকে ২০০ বিলিয়ন রুপি দেবে ভারত

রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানিগুলোকে ২০০ বিলিয়ন রুপি বা ২৫০ কোটি ডলার সহায়তা দেওয়ার পরিকল্পনা করছে ভারত। সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার পর ক্ষতি পোষাতে ও রান্নার গ্যাসের মূল্য ঠিক রাখতে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, তেল মন্ত্রণালয় ক্ষতিপূরণ হিসেবে ২৮০ বিলিয়ন রুপি চেয়েছে। কিন্তু অর্থমন্ত্রণালয় মাত্র ২০০ বিলিয়ন রুপি ক্যাশ পেআউট দিতে রাজি হচ্ছে। তাছাড়া এ ব্যাপারে এখনো আলোচনা চলছে। কোনো সিদ্ধান্তই এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়নি।

ভারতে খুচরা তেল বিক্রির তিনটি রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান রয়েছে, যারা দেশটির ৯০ শতাংশ তেল সরবরাহ করে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার পর ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়ে কোম্পানিগুলো। তাই অর্থ পেলে ক্ষতি কিছুটা মোকাবিলা করতে পারবে। তবে দেশটির রাষ্ট্রী কোষাগার এরই মধ্যে চাপে পড়েছে। কারণ সরকার একদিকে যেমন তেলের ওপর শুল্ক কমিয়েছে অন্যদিকে সারেও দিচ্ছে বড় ভর্তুকি। সাধারণ মানুষের ওপর থেকে মূল্যস্ফীতির চাপ কমাতে সরকার এ সিদ্ধান্ত নেয়।

ভারত সরকার মার্চে শেষ হওয়া অর্থবছরের জন্য তেলে ভর্তুকি নির্ধারণ করে ৫৮ বিলিয়ন রুপি, যেখানে সারে ভর্তুকি নির্ধারণ করা হয় এক দশমিক শূন্য পাঁচ ট্রিলিয়ন রুপি।

এই রিফাইনিং খুচরা তেল বিক্রেতা কোম্পানিগুলো আন্তর্জাতিক দামের সঙ্গে তাদের উৎপাদিত জ্বালানিকে বেঞ্চমার্ক করে। মূলত ভারতের কোম্পানিগুলো ৮৫ শতাংশ তেল আমদানি করে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানিগুলো আন্তর্জাতিক দামে অপরিশোধিত তেল কিনতে ও স্থানীয়ভাবে মূল্য-সংবেদনশীল বাজারে বিক্রি করতে বাধ্য। কিন্তু রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের মতো বেসরকারি কোম্পানিগুলো শক্তিশালী জ্বালানি রপ্তানি বাজারগুলোতে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে।

 

এমকে

Source link