free hit counter
আন্তর্জাতিক

কাশ্মীরে মোদির ২০ হাজার কোটি রুপির প্রকল্প উদ্বোধন

২০১৯ সালে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর এই প্রথম সেখানে সফরে গিয়ে বড় বিদ্যুৎ প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সময় জনসমাবেশে দেওয়া ভাষণে তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের শান্তি ও উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেন।

. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ ভারতশাসিত কাশ্মীরের দীর্ঘদিনের আন্দোলন নিয়ন্ত্রণের পথ খুঁজছে মোদির নেতৃত্বাধীন হিন্দু জাতীয়তাবাদী সরকার। জম্মুর পল্লী অঞ্চলে মোদির আগমন উপলক্ষে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়।

সাবেক জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের জম্মু অঞ্চল হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ। কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলনের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষা হিসেবে ২০১৯ সালে রাজ্যটিকে দুইভাগ করে কেন্দ্রের প্রত্যক্ষ শাসন প্রবর্তন করা হয়।

নতুন সড়ক ও জলবিদ্যুৎ প্রকল্প উদ্বোধন করার সময় মোদি হাজার হাজার মানুষের উদ্দেশে বলেন, তাঁর সরকার অশান্ত অঞ্চলটিকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘আমি এ উপত্যকার যুবকদের বলতে চাই, তাঁদের মা-বাবা ও দাদা-দাদিরা যেসব অসুবিধা ও কষ্টের মুখোমুখি হয়েছিলেন, সেসব অসুবিধার মুখোমুখি বর্তমান প্রজন্মকে হতে হবে না। ’

 

মোদি ২০ হাজার কোটি রুপির বিদ্যুৎ প্রকল্প উদ্বোধন করার আগে জম্মু ও কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা বলেন, ‘স্বাধীনতার পর থেকে এখানে ১৫ হাজার কোটি রুপির বিনিয়োগ হয়েছিল। আর আমাদের কাছে প্রস্তাব রয়েছে ৫২ হাজার কোটি রুপি পর্যন্ত প্রকল্প বিস্তারের। ’ কিছুক্ষণ পরই তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি, ৭০ হাজার কোটি রুপি পর্যন্ত প্রকল্প হাতে নেওয়া হবে। ’

মোদির উদ্বোধন করা জলবিদ্যুৎ প্রকল্পটির ক্ষমতা ৮৫০ মেগাওয়াট। এ ছাড়া ৫৪০ মেগাওয়াটের আরো একটি জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তিনি। দুটি প্রকল্পই ভূস্বর্গের কিশতওয়ার জেলায় চেনাব নদীর ওপর তৈরি হবে।

জম্মু ও কাশ্মীরে মোদির সফরের বিরুদ্ধে পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের মুজাফফরাবাদে বিক্ষোভ হয়।

২০১৯ সালে এই অঞ্চলে ভারতের নিরাপত্তা বাহিনীগুলো কঠোর দমন অভিযান চালানোর পর এবারই প্রথম কাশ্মীর অঞ্চল সফর করলেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী।

নয়াদিল্লি ২০১৯ সালে সংবিধানে ৩৭০ ধারার মাধ্যমে সুরক্ষিত কাশ্মীরের বিশেষ সীমিত স্বায়ত্তশাসন বাতিল ঘোষণা করে। রাজ্যের মর্যাদা বাতিল করে একে দুটি কেন্দ্রশাসিত এলাকায় পরিণত করা হয়। গ্রেপ্তার করা হয় হাজারো ব্যক্তিকে। বর্তমানে জম্মু ও কাশ্মীর ভারতের সবচেয়ে বেশি সেনা মোতায়েনকৃত ভূখণ্ড। সব মিলিয়ে পুরো অঞ্চলে মোতায়েন রয়েছে পাঁচ লাখেরও বেশি সেনা ও আধাসামরিক বাহিনীর সদস্য। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস, এএফপি