free hit counter
আন্তর্জাতিক

‘করোনা শেষ’ দাবির সঙ্গে একমত নন বিশেষজ্ঞরা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ‘করোনা শেষ’ দাবি সঙ্গে একমত নন মহামারি বিশেষজ্ঞরা। এছাড়া অনেকেই বলছেন, এরফলে সাধারণ মানুষ অসাবধান হয়ে উঠতে পারে এবং জনস্বাস্থ্য হুমকিতে পড়তে পারে।

এছাড়া বাইডেনের ওই ঘোষণার পর এখন কোভিড নিয়ে কড়াকড়ি আরোপ তার প্রশাসনের জন্য আরও কঠিন হয়ে পড়বে। মানুষ এখন বুস্টার ডোজ নিতে অনাগ্রহী হয়ে উঠবে এবং কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের জন্য ২২.৫ বিলিয়ন ডলার পেতে কংগ্রেসকে রাজি করানো চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বলেও বিশেষজ্ঞদের অভিমত ।

দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মহামারি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাইডেন যা বলেছেন তা আর দশজন মার্কিন নাগরিকের চিন্তার মতোই। তারা শুধু দেখছেন যে, আগের তুলনায় কোভিডে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা কমে এসেছে। ফলে তারা মাস্ক পরা কমিয়ে দিয়েছেন এবং সমাবেশে আগ্রহী হয়ে উঠছেন। যদিও এখনও প্রতিদিন গড়ে ৪০০ মানুষ কোভিডে মারা যাচ্ছে। তাই কোভিড ভাইরাসকে এখনও হুমকি হিসেবে দেখা উচিৎ।

এর আগে গত রোববার সিবিএস-এ প্রচারিত সিক্সটি মিনিটস প্রোগ্রামে বাইডেন বলেন, চলমান মহামারি শেষ। আমাদের এখনও কোভিড নিয়ে সমস্যা আছে, আমরা এ নিয়ে কাজ করছি। তবে এই মহামারির শেষ আমরা দেখে ফেলেছি। আপনারা যদি বাইরে তাকান তাহলে দেখবেন কেউ আর মাস্ক পরছে না। সবাইকেই সুস্থ লাগছে এবং আমার ধারণা, পরিবর্তন শুরু হয়ে গেছে।

এছাড়া বাইডেনের কোভিড-১৯ উপদেষ্টা দলের সদস্য পেনসিলভানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োথিসিস্ট ড. ইজিকিয়েল বলেন, মানুষের জীবন স্বাভাবিক এবং তারা মাস্ক পরছে না মূলত এটাই দেখছেন বাইডেন।

অন্যদিকে, কাইজার হেলথ নিউজের এডিটর ড. সেলিন গাউন্ডার বলেন, খুব সম্ভবত আসন্ন মধ্যবর্তী নির্বাচনের বিষয়টি মাথায় রেখেই এমন মন্তব্য করেছেন বাইডেন। তিনি বুঝাতে চাইছেন যে, আগে যুক্তরাষ্ট্র কোভিডের কারণে যেভাবে অর্থনৈতিক এবং সামাজিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছিল, এখন আর সেই পরিস্থিতি নেই। আমরা আসলেই আগের থেকে একসঙ্গে ভাল করছি কিন্তু এখনও অনেক উন্নতির জায়গা রয়েছে। প্রেসিডেন্ট যখন ‘মিশন সফল’ ঘোষণা করলেন তখনও হাজার হাজার মানুষ কোভিডে মারা যাচ্ছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বর্তমানে যে হারে যুক্তরাষ্ট্রে কোভিডে মৃত্যু হচ্ছে তাতে এক বছরে মৃত্যুর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াবে এক লাখ ৫০ হাজার জনে। অর্থাৎ, যখন বলা হচ্ছে কোভিড মহামারি শেষ হয়ে গেছে তখনও এটি বেশ ভয়াবহই রয়ে গেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সামনের শীতে এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা আবারও বাড়তে পারে। তাই এখনই মহামারি শেষ হয়ে গেছে এমন ঘোষণা না দিয়ে বাইডেনের উচিৎ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সমাধান নিয়ে আরও বিস্তারিত আলোচনা করা এবং সে অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

অন্যদিকে, জর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. লেয়ানা ওয়েন বলেন, এখন যে পরিস্থিতি চলছে তাতে কোভিড-১৯ মহামারি কখনোই চলে যাবে না। এটি কখনো বাড়বে, কখনো কমবে সেটাই স্বাভাবিক হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই বাইডেন যা বলেছেন ঠিকই বলেছেন। এই মহামারি আসলেই শেষ হয়ে গেছে!

এমকে

Source link

Bednet steunen 2023