free hit counter
আন্তর্জাতিক

উত্তেজনা চরমে, সীমান্তে দুই কোরিয়ার গুলি বিনিময়

সীমান্তে দুই কোরিয়ার মধ্যে গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে

চলতি বছর উত্তর কোরিয়া একের পর এক অস্ত্র পরীক্ষা চালাচ্ছে। এই নিয়ে বাড়তে থাকা উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে বলেই মনে করছেন কূটনৈতিক বিশ্লেষকরা। সোমবার (২৪ অক্টোবর) সীমান্তে দুই কোরিয়ার মধ্যে গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। খবর-রয়টার্সের।

উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া একে অপরের বিরুদ্ধে সমুদ্রসীমা লঙ্ঘনের অভিযোগ করে পশ্চিম উপকূলে সতর্কতামূলক গুলি বিনিময় করেছে বলে জানায়।

তীব্র সামরিক উত্তেজনার মধ্যেই সোমবার এ গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ (জেসিএস) জানিয়েছে, সোমবার স্থানীয় সময় ভোর প্রায় ৩টা ৪০ মিনিটের দিকে প্রচলিত সমুদ্রসীমা নর্দান লিমিট লাইন (এনএলএল) অতিক্রম করে উত্তর কোরিয়ার একটি বাণিজ্যিক জাহাজ, সেটিকে বিদায় করতে সতর্ক করে তারা এবং সতর্কতামূলক গুলি ছোড়ে।

উত্তর কোরিয়ার সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ার নৌবাহিনীর জাহাজ এনএলএল লঙ্ঘন করার পর ১০টি রকেট গোলা ছুড়ে সতর্ক করে তারা।

রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা কেসিএনএ-র দেওয়া উদ্ধৃতিতে উত্তর কোরিয়ার পিপলস আর্মির জেনারেল স্টাফের মুখপাত্র বলেছেন, শত্রুর জাহাজকে দৃঢ়ভাবে বিতাড়িত করতে আমরা প্রাথমিক পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলাম।

দক্ষিণ কোরিয়ার নৌবাহিনী সোমবার জানিয়েছে, এই কর্মসূচীর অংশ হিসেবে তারা পশ্চিম উপকূলে চার দিন মহড়া চালাবে। এই মহড়ায় তাদের এইজেস সজ্জিত ডেস্ট্রয়ারসহ ২০টি যুদ্ধজাহাজ ও যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাপাচি হেলিকপ্টার ও এ-১০ স্ট্রাইক বিমান অংশ নেবে।

পিয়ংইয়ং এই মহড়াকে উস্কানি অবহিত করে এর পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছে। অপরদিকে সিউল ও ওয়াশিংটন বলেছে, তাদের মহড়া প্রতিরক্ষামূলক ও উত্তর কোরিয়ার হুমকি-ধামকি থামানোর জন্য আয়োজন করা হয়েছে।

এমকে

Source link

Bednet steunen 2023