free hit counter
আন্তর্জাতিক

ইসরায়েলের গুলিতে ফিলিস্তিনি নিহত, সংঘর্ষে আহত ৩২০

অধিকৃত পশ্চিম তীরে অবৈধ ইহুদি বসতি স্থাপনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন ফিলিস্তিনিরা। এ সময় ইসরায়েলি সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক ফিলিস্তিনি তরুণ নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও তিন শতাধিক ফিলিস্তিনি। গতকাল শনিবার ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ বলেছে, ১৭ বছর বয়সী নিহত তরুণের নাম মুনির আল-তামিমি। ফিলিস্তিনের বেইতা গ্রামে বিক্ষোভের সময় তিনি গুলিতে আহত হলে পরে তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে মারা যান তিনি।

ইসরায়েলের অবৈধ বসতি স্থাপনের প্রতিবাদে গত শুক্রবার পশ্চিম তীরের বেইতা গ্রামে হাজারো ফিলিস্তিনি জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখান। ইহুদি বসতি সম্প্রসারণের প্রতিবাদে ওই এলাকায় নিয়মিত বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, সংঘর্ষে অন্তত ৩২০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ২১ জন গুলিবিদ্ধ হন। রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাসের শেলে আহত হয়েছেন অনেকে। অন্যদিকে ইসরায়েলের দুই সেনা সামান্য আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির সামরিক বাহিনী।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর দাবি, শত শত ফিলিস্তিনি ইসরায়েলি সেনাদের লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করলে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়।

গত মে মাসের পর থেকে বেইতা গ্রামে প্রায়ই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। আন্তর্জাতিক আইনের তোয়াক্কা না করেই নাবলুসের কাছে বসতি স্থাপন শুরু করেছেন ইসরায়েলি নাগরিকেরা। সেখানে ফিলিস্তিনিরা তাঁদের জমি জোরপূর্বক দখলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন।

কয়েক সপ্তাহ ধরে থেমে থেমে চলা সংঘর্ষ ও উত্তেজনার পর ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেত বসতি স্থাপনকারীদের সঙ্গে একটি চুক্তি করেন। চুক্তির আওতায় তাঁরা অ্যাভিয়েটার বসতি ছেড়ে চলে গেছেন। এখন ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ওই এলাকাকে ইসরায়েলের রাষ্ট্রীয় এলাকা হিসেবে বিবেচনা করা যায় কি না, তা নির্ধারণের কাজ করছে। ওই সিদ্ধান্তে না আসা পর্যন্ত সেখানে ইসরায়েলি সেনারা অবস্থান করছেন। বেইতার মেয়র বৃহস্পতিবার বলেন, ইসরায়েলিরা দখল করা জায়গা না ছাড়া পর্যন্ত বিক্ষোভ চলবে।

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের হিসাব অনুযায়ী, অধিকৃত পশ্চিম তীরে সাড়ে ছয় লাখের বেশি বসতি রয়েছে। আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী, অধিকৃত অঞ্চলের সব ইসরায়েলি বসতি অবৈধ।

ফিলিস্তিনিরা অবৈধ দখলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করায় গত মাসে অ্যাভিয়েটার বসতি নিয়ে পশ্চিম তীরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এর আগে মে মাসে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে ৩৪ জন ফিলিস্তিনি নিহত হন। ওই সময় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের বেশ কিছু ঘটনা ঘটে।

Bednet steunen 2023