free hit counter
আন্তর্জাতিক

ইরানে খোমেনির পৈতৃক বাড়িতে আগুন

ছবি: সংগৃহীত

সরকার বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল ইরান। এর মধ্যে ইসলামী বিপ্লবের নেতা ও ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রতিষ্ঠাতা আয়াতুল্লাহ রুহুল্লাহ খোমেনির পৈতৃক বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। ওই বাড়িতে আয়াতুল্লাহ খোমেনির জন্ম বলে জানা যায়। তবে বাড়িটি এখন জাদুঘর হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। সেখানে খোমেনির জীবনের নানা স্মৃতি সংরক্ষিত আছে। ১৯৭৯ সালে ইরানে যে ইসলামী বিপ্লব হয়, তাতে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন আয়াতুল্লাহ খোমেনি।

গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা ছবি ও ভিডিওতে দেখা যায়, খোমেইন শহরে আয়াতুল্লাহ খোমেনির পৈতৃক বাড়িটির একটি অংশ আগুনে পুড়ে যাচ্ছে। বাড়িতে আগুন লাগার পর কিছু মানুষকে উল্লাস করতেও দেখা যায়।

ইরানি অ্যাক্টিভিস্টদের একটি নেটওয়ার্ক জানিয়েছে, এসব ভিডিও বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যার। বেশ কয়েকটি সংবাদ সংস্থাও নিশ্চিত করেছে যে বিক্ষোভকারীরা খোমেনির পৈতৃক বাড়িতে আগুন লেগেছে। তবে আঞ্চলিক সরকারি কর্তৃপক্ষ অগ্নিসংযোগের বিষয়টি অস্বীকার করেছে।

অন্যদিকে, খোমেইন কাউন্টি প্রেস অফিস দাবি করেছে, সেখানে কোনো হামলা হয়নি। ইরানের আধা সরকারি সংবাদ সংস্থা তাসনিম জানিয়েছে, বাড়ির বাইরে কয়েকজন জড়ো হয়। পরে বাড়ির একটি ভিডিও পোস্ট করেন। ইরানের মহান বিপ্লবের নেতৃত্ব দেওয়া আয়াতুল্লাহ খোমেনির বাড়ি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত আছে।

এর আগে ইসলামী বিপ্লবের মাধ্যমেই ইরানের তৎকালীন নেতা শাহ মোহাম্মদ রেজা পাহলাভি ক্ষমতাচ্যুত হন। রেজা পাহলাভি পশ্চিমপন্থী নেতা হিসেবে পরিচিত ছিলেন। বিপ্লবের মধ্য দিয়ে খোমেনি ইসলামী বিধানে রাষ্ট্র পরিচালনা শুরু করেন। ১৯৭৯ সালে তিনি ইরানের প্রথম সর্বোচ্চ নেতা হন। ১৯৮৯ সালে মৃত্যু পর্যন্ত তিনি এ দায়িত্বে ছিলেন। তার মৃত্যুর দিন প্রতি বছর ইরানে শোক দিবস পালিত হয়।

প্রসঙ্গত, ইরানে নীতি পুলিশের হেফাজতে থাকা অবস্থায় মাহশা আমিনি নামে ২২ বছরের এক তরুণীর মৃত্যুর পর দুই মাস ধরে দেশটিতে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভকারীরা আয়াতুল্লাহ রুহুল্লাহ খোমেনির উত্তরসূরি, ইরানের বর্তমান সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি এবং তার সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন ইরানি জনতা।

এমকেএইচ

Source link

Bednet steunen 2023