free hit counter
আমাদের যেন গলা থেকে পশ্চাৎদেশ, শরীরের পুরোটাই পাকস্থলি : জয়া
আন্তর্জাতিক বিনোদন

আমাদের যেন গলা থেকে পশ্চাৎদেশ, শরীরের পুরোটাই পাকস্থলি : জয়া

দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। দেশের পাশাপাশি নিয়মিত কলকাতার ছবিতেও কাজ করছেন তিনি। ক’দিন আগেই ওপার বাংলার ছবি ‘রবিবার’ ও ‘বিজয়া’র জন্য দ্বিতীয়বারের মতো পেয়েছেন ফিল্মফেয়ার পুরস্কার।

অভিনয়ের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও বেশ সরব জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী। ব্যক্তিগত বিষয়, সিনেমার প্রচার আবার কখনও মানুষের সচেতনতা ও সাহায্যার্থে উপস্থিত হন ফেসবুকে। আজ সকালে তেমনই একটি ভিডিও ও পোস্ট ফেসবুকে প্রকাশ করেছেন জয়া।

২২ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি করা হয়েছে জয়ার বাসার ছাদ থেকে। দেখা যায়, ধোঁয়াশা এক ঢাকার চিত্র। আর ক্যাপশনে জয়া লিখেছেন- ‘ভিডিও টা গতকাল সকাল ৮টার, ছাদে উঠেই থমকে গেলাম। যেন অবিকল কোনো ডিস্টোপিয়ান সায়েন্স ফিকশনের সেট পড়েছে শহরজুড়ে। ধোঁয়া ধোঁয়া, চারপাশে সব অস্পষ্ট। ধুলো আর ধোঁয়া মিলে ধোঁয়াশার পেটে পুরো শহর। চোখ বেশি দূর চলে না। শ্বাস নিতে কষ্ট হয়। হায়, আমার শহর।’

আমাদের যেন গলা থেকে পশ্চাৎদেশ, শরীরের পুরোটাই পাকস্থলি : জয়া

বায়ুদূষণে দেশের অবস্থান তুলে ধরে তিনি আরও লিখেন, ‘আর কিছুতে না পারি, বায়ুদূষণে আমরা বিরাট চ্যাম্পিয়ন। কিছুদিন পরপরই সারা পৃথিবীতে উল্টো দিক থেকে প্রথম হচ্ছি। আর আমাদের ফুসফুস ভরে যাচ্ছে বিষাক্ত ক্বাথে।’

উন্নয়নের নামে পরিবেশ নষ্ট করা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি লিখেছেন, ‘আমাদের যেন গলা থেকে পশ্চাৎদেশ, শরীরের পুরোটাই পাকস্থলি। খিদের শেষ নেই। খালি বড় করে কামড়ে ধরো আর খাও। পরিবেশের বারোটা বাজল তো আমার কী হলো! ইট পোড়ানো ধোঁয়ায় আমরা শহর ডুবিয়ে দেব। আপনি বাঁচলে বাপের নাম। উন্নয়নকাজের ধুলোয় অন্ধকার করে দেব দেশ। আর কোনো দেশে কি উন্নয়ন হচ্ছে এত?

সবশেষে জয়া লিখেছেন, ‘তোমাদের ফুসফুস পচে যাক। তোমাদের দম বন্ধ হয়ে আসুক। একদিন তোমরা সবাই মরে যাও। এই শহর বেঁচে থাকবে, একাই। বাবা, এর নাম উন্নয়ন। হায়, আমার শহর!’

Related posts

ওয়াসিমকে দাফন করা হবে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে

News Desk

রাব্বানীর সুস্থতা কামনা করে পল্লবী শর্মার ফেইসবুক স্ট্যাটাস

News Desk

বাংলাদেশি চিত্রশিল্পীর আন্তর্জাতিক পুরস্কার জয়

News Desk