free hit counter
বিনোদন

মেদ ঝরাতে সার্জারি, প্রাণ গেল অভিনেত্রীর

সুন্দর দেখাতে এবং আর গ্ল্যামার জগতে টিকতে সুন্দর ফিগার না থাকলে চলবেই না! এমন ভাবনা মানসিক রোগে পরিণত হয়েছে আজকাল অনেক অভিনেত্রীর। তাই মেদ ঝরাতে গিয়ে প্রাণ গেল কন্নড় অভিনেত্রী চেতনা রাজের। 

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে জানা যায়, পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে প্লাস্টিক সার্জারির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন কন্নড় অভিনেত্রী চেতনা। আর সেই সার্জারির ফলেই ফুসফুস বিকল হয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। পরিবারের অভিযোগ, চিকিৎসকের গাফিলতির কারণেই মৃত্যু হয়েছে চেতনার। ইতিমধ্যেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার ‘ফ্যাট-ফ্রি’ প্লাস্টিক সার্জারির জন্য বেঙ্গালুরুর শেট্টিস কসমেটিক সেন্টারে ভর্তি হয়েছিলেন চেতনা। সার্জারি করতে গিয়েই অভিনেত্রীর ফুসফুসে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। পানি জমতে শুরু করে ফুসফুসে। এরপর অ্যানাস্থেসিস্ট এবং যে সার্জন অস্ত্রোপচার করেছিলেন তিনি একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান চেতনাকে। রোগীর কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছে বলে চিকিৎসা শুরু করতে জোরাজুরি করেন তাঁরা। 

সার্জারির সময় ফুসফুস বিকল হয়ে মারা যান চেতনা। ছবি: টুইটার পুলিশি অভিযোগে আইসিইউর দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক সন্দীপ বলেন, প্লাস্টিক সার্জারির কর্মীরা জানতেন যে, চেতনার মৃত্যু হয়েছে অনেক আগেই। তা সত্ত্বেও চিকিৎসা করতে হুমকি দিতে থাকে। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পৌনে ৭টায় চেতনাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। 

‘গীতা’, ‘দোরেসানি’ ধারাবাহিকে অভিনয়ের সুবাদে অল্প বয়সেই জনপ্রিয়তা লাভ করেন চেতনা। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে কন্নড় ইন্ডাস্ট্রিতে। ইতিমধ্যেই শেট্টিস কসমেটিক সেন্টারের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Source link