free hit counter
বিনোদন

মাসুম আজিজের চিরবিদায়

মারা গেছেন মঞ্চ, টিভি নাটক ও চলচ্চিত্র অভিনেতা মাসুম আজিজ। একুশে পদক পাওয়া এই অভিনেতা ও নির্দেশক ক্যানসারের পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে হার্টের সমস্যায়ও ভুগছিলেন। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গত সপ্তাহে তাঁকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার থেকে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি।

অবশেষে আজ সোমবার বেলা সাড়ে ৩টায় পৃথিবী থেকে বিদায় নিলেন মাসুম আজিজ। তাঁর মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ। মাসুম স্ত্রী এবং দুই সন্তান রেখে গেছেন। মাসুম আজিজের মৃত্যুতে শোক নেমেছে দেশের বিনোদন অঙ্গনে। 

আগামীকাল মঙ্গলবার অভিনেতার মরদেহ নেওয়া হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ। 

বাদ যোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

অভিনেতার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এরপর মাসুম আজিজের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে পাবনার গ্রামের বাড়িতে। সেখানেই তাঁকে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হবে।

মাসুম আজিজের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এক শোক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অভিনয়ের মাধ্যমেই স্মরণীয় হয়ে থাকবেন এই গুণী শিল্পী।’

প্রধানমন্ত্রী মাসুম আজিজের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

মাসুম আজিজ অভিনয় শুরু করেন মঞ্চনাটকের মাধ্যমে। তখন তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তেন। প্রথম টিভি নাটকে অভিনয় করেন ১৯৮৫ সালে। হুমায়ূন আহমেদের ‘উড়ে যায় বকপক্ষী’, সালাউদ্দিন লাভলুর ‘তিন গ্যাদা’সহ অসংখ্য টিভি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। এ ছাড়া ‘গহীনে শব্দ’, ‘এই তো প্রেম’, ‘গাড়িওয়ালা’সহ অনেক সিনেমায়ও দেখা গেছে মাসুম আজিজকে। ‘ঘানি’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য ২০০৬ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে জাতীয় পুরস্কার পান তিনি। ‘সনাতন গল্প’ নামে সরকারি অনুদানের একটি সিনেমা পরিচালনাও করেছেন মাসুম আজিজ। সিনেমাটি মুক্তি পায় ২০১৮ সালে। ২০২২ সালে তিনি পান একুশে পদক।

Source link

Bednet steunen 2023