free hit counter
বিনোদন

‘বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটের সঙ্গে মিলিয়ে ওটিটি নীতিমালা দরকার’

চলচ্চিত্র প্রদর্শনের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ওটিটিতে (ওভার দ্য টপ) বাংলাদেশের ব্যবসায়িক সম্ভাবনার কথা তুলে বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটের সঙ্গে মিলিয়ে নীতিমালা প্রণয়নের উপর জোর দিয়েছেন একটি আলোচনা সভার বক্তারা।

আজ রোববার সকালে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের সেমিনার হলে ‘ওটিটি প্ল্যাটফর্মে বাংলাদেশি চলচ্চিত্র’ শীর্ষক সেমিনারে চলচ্চিত্র অঙ্গনের সংশ্লিষ্ট অভিনয়শিল্পী, পরিচালক ও প্রযোজকরা এই মত দেন।

অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী বলেন, ‘ওটিটি বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র। ভবিষ্যতে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে নেতৃত্ব দেবে ওটিটি। ওটিটি চলচ্চিত্রের সেন্সরশিপের বিষয়টি আলোচনার মাধ্যমে স্পষ্ট করা প্রয়োজন।’

চলচ্চিত্র নির্মাতা রেদওয়ান রনি বলেন, ‘ওটিটির মাধ্যমে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য ওটিটি টিকিয়ে রাখতে হবে। ওটিটির নীতিমালা নিয়ে আলোচনা হতে পারে। ওটিটির গ্লোবাল বিজনেস প্ল্যাটফর্মকে মাথায় রেখে বাংলাদেশে ওটিটি নীতিমালা তৈরি করা প্রয়োজন। ওটিটির নীতিমালা গ্লোবাল পলিসির সাথে যেন সাংঘর্ষিক না হয়।’

সময়ের আলোচিত চলচ্চিত্র পরিচালক রায়হান রাফী বলেন, ‘কোভিডের সময় ওটিটির মাধ্যমে দর্শক তৈরি হয়েছে। এখন সিনেমা হলে এতো দর্শক আসছে, এরা সবাই ওটিটি কনটেন্ট দেখা মানুষ। ওটিটি ঘিরে নতুন নতুন নির্মাতা তৈরি হচ্ছে। সেন্সরশিপ দিয়ে বা নীতিমালা দিয়ে এটাকে যেন বাধাগ্রস্ত না করা হয়।’

বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক মো. নিজামুল কবীরের সভাপতিত্বে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশের (পিআইবি) প্রভাষক ও গবেষক শুভ কর্মকার। এতে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের পরিচালক ড. মো: মোফাকখারুল ইকবাল। 

এতে আলোচনায় অংশ নেন অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদ, চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট পরিচালক ও গবেষকরা। 

তারা বলেন, সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সময়ের আলোচিত বিষয় হচ্ছে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম। সিনেমা হলের স্বল্পতা, চলচ্চিত্রাঙ্গনে অপকীর্তির আধিক্যের কারণে চলচ্চিত্র যখন বড় ধাক্কা খেল, তখনই ত্রাতা হয়ে উঠল ওটিটি।

Source link

Bednet steunen 2023