free hit counter
একজন সৃষ্টিশীল মানুষের তিনটি জীবন দরকার: কুমার বিশ্বজিৎ
বিনোদন

একজন সৃষ্টিশীল মানুষের তিনটি জীবন দরকার: কুমার বিশ্বজিৎ

দেশ বরেণ্য সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিতের জন্মদিন আজ। চার দশকেরও বেশি সময় ধরে বাংলা গানকে আঁকড়ে ধরে আছেন তিনি। এই সময়টায় উপহার দিয়েছেন অনেক কালজয়ী ও শ্রোতা নন্দিত গান। এখনও সমানতালে কণ্ঠে ধারণ করছেন প্রিয় সব সুর।

জন্মদিন উপলক্ষে ঘড়ির কাঁটায় রাত ১২টা ১ বাজার পর থেকেই ভক্ত শুভাকাঙ্ক্ষীদের শুভেচ্ছার জোয়ারে ভাসছেন কুমার বিশ্বজিৎ। দিনভর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই তারকাকে শুভেচ্ছায় সিক্ত করেছেন অসংখ্য মানুষ।

জন্মদিনের সন্ধ্যায় ঢাকা পোস্টের সঙ্গে নিজের অনুভূতি শেয়ার করেন তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার গাওয়া এই গায়ক, ‘ছোটবেলায় জন্মদিনে খুব আনন্দ লাগতো, কোনো কিছু প্রাপ্তির আশায়। এখন ভয় লাগে যে মৃত্যুর খুব কাছাকাছি চলে আসছি।’

কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, ‘এখন জন্মদিনে একটা উপলব্ধি হয়। তা হলো আমার কর্মের চেয়ে মানুষের ভালোবাসা অনেক বেশি পেয়েছি। এদিন আমি অন্তর যন্ত্রণায় দংশিত হই। মনে হয় আমার অনেক কিছু করার ছিল, অনেক কিছু করার বাকি।

তার মতে, ‘একজন সৃষ্টিশীল মানুষের তিনটি জীবন দরকার। শৈশব চলে যায় কিছু না বুঝেই, তারুণ্য চলে যায় পড়াশোনায়। এরপর শুরু হয় নিজেকে গোছানোর সময়। এরমাঝেই চলে আসে আসে দায়িত্ববোধ। বাকি জীবন চলে যায় ঘুমে। আমি যদিও না পারি আমার আশা থাকবে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম আমাদের স্বপ্নের জায়গায় নিয়ে যাবে বাংলা গানকে।’

উল্লেখ, ১৯৬৩ সালের ১ জুন জন্মগ্রহণ করেন কুমার বিশ্বজিৎ। তার শৈশব কেটেছে চট্টগ্রামে। ‘তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে’ গান দিয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্রাবস্থাতেই তিনি পেয়েছিলেন জনপ্রিয় গায়কের খ্যাতি। এরপর দিন যতই গেছে ততই সামনে এসেছেন তিনি। ‘তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে’, ‘তুমি রোজ বিকেলে’ কিংবা ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’ এর মতো বহু গান দিয়ে এ দেশের সংগীত প্রেমিদের মনে জায়গা করে আছেন তিনি।

Related posts

মরণোত্তর দেহ দান করেলেন এস আই টুটুল

News Desk

অসহায়দের পাশে কুঁড়েঘর ব্যান্ডের তাসরিফ খান

News Desk

আমি যথেষ্ট পরিমাণে জীবিত আছি: বেসবাবা সুমন

News Desk